খালেদা জিয়ার সর্বশেষ অবস্থা সম্পর্কে যা বললেন চিকিৎসক

;
  • প্রকাশিত: ৭ মে ২০২১, ৬:৪৯ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৫ মাস আগে
No Caption

::নিজস্ব প্রতিবেদক::

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার অবস্থা স্থিতিশীল আছেন বলে জানিয়েছেন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক টিমের সদস্য ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন। তিনি বলেছেন, সরকারের অনুমতি দেয়ার পরেই মেডিকেল বোর্ড পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানাবে।

শুক্রবার রাতে এভার কেয়ার হাসপাতালের সামনে উপস্থিত সাংবাদিকদের বিএনপি চেয়ারপারসনের সর্বশেষ অবস্থা জানান তিনি।

বেগম খালেদা জিয়ার বিদেশে যাওয়ার মত শারীরিক সক্ষমতা আছে- জানতে চাইলে জাহিদ হোসেন বলেন, উনার পরিবার এবং আমাদের মহাসচিবও আবেদন জানিয়েছেন। এখন এটা সরকারের বিষয়, সরকার কবে নাগাদ এবং কিভাবে উনাকে যাওয়ার অনুমতি দেবেন।

তিনি বলেন, উনার পরিবার ‘বিদেশে চিকিৎসার’ বিষয়ে আবেদন দিয়েছেন এবং দলও অনুরোধ করেছেন। আরো উন্নত চিকিৎসার জন্য যদি দেশের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়, সেক্ষেত্রে সরকারের অনুমতি দেয়ার পর মেডিকেল বোর্ড পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানাবেন। যখন অনুমতি জানাবেন তখন মেডিকেল বোর্ড সিদ্ধান্ত জানাবে।

ডা. জাহিদ বলেন, এখন উনি ‘খালেদা জিয়া’ বাংলাদেশে এবং ঢাকায় অত্যন্ত স্বনামধন্য একটি হাসপাতালে ভর্তি আছেন। সেখানে দেশের স্বনামধন্য চিকিৎসকদের সমন্বয়ে গঠিত মেডিকেল বোর্ডের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন আছেন। আর আপনারা উনার আশু রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া করবেন।

খালেদা জিয়া এখনো সিসিইউতে আছেন জানিয়ে তিনি বলেন, আজকেও মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা এসেছিলেন। উনার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছেন। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর যে চিকিৎসা ছিলো, সেই চিকিৎসাই অব্যাহত রেখেছেন। আলহামদুলিল্লাহ গতকালকের ন্যায় আজকেও উনার অবস্থা স্থিতিশীল আছে।

এদিকে গত ৫ মে বিএনপির চেয়ারপারসনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নেয়ার আবেদন করেছেন তার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার।

আবেদন পাওয়ার পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, একটা আবেদন পেয়েছি। বিদেশে বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসার প্রয়োজন হলে ইতিবাচক দৃষ্টিতে বিবেচনা করা হবে। আবেদনটি পরীক্ষার জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে।

পরে গতকাল আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, খালেদা জিয়ার বিষয়টি সরকার মানবিকভাবেই দেখছে।

গত মঙ্গলবার শ্বাসকষ্ট অনুভব করলে চিকিৎসকরা খালেদা জিয়াকে সিসিইউতে স্থানান্তর করে। এর আগে গত ২৭ এপ্রিল গুলশানের ওই হাসপাতালে ভর্তির পরদিনই এই মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়।

পরে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ২৭ এপ্রিল রাতে তাকে এভারকেয়ার হাসপপাতালে নেয়া হয়। সিটি স্ক্যান ও কয়েকটি পরীক্ষার পর সেই রাতেই তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে নেয়া হয়।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...