গুচ্ছ বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরিক্ষা পেছাচ্ছে

;
  • প্রকাশিত: ১০ জুন ২০২১, ১১:০৮ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ৪ মাস আগে
No Caption

::জবি প্রতিনিধি::
করোনাভাইরাসের কারণে ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছভিত্তিক ভর্তি পরীক্ষা পিছিয়ে যাচ্ছে। ১৯ জুন থেকে আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত তিনদিনে তিনটি বিভাগে এই ভর্তি পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু এখনো এ বিষয়ে চূড়ান্ত সময় ঘোষণা করা হয়নি।
শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‌করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় ভর্তি পরীক্ষা পিছাতে হচ্ছে। প্রাথমিক আবেদনের কাজ এখনো শেষ করা যায়নি। চলমান বিধিনিষেধের পর প্রাথমিক আবেদনের জন্য ১০দিন সময় বাড়ানো হবে। এখন ১৬ জুন পর্যন্ত বিধিনিষেধ রয়েছে, তাহলেও প্রাথমিক আবেদন করতে ২৬ জুন পর্যন্ত চলে যাবে। তারপর আবার চূড়ান্ত আবেদন।
এসব করতে সময় লাগবে।
এই অবস্থায় কবে এই পরীক্ষা হবে, তার তারিখও ঘোষণা করা যাচ্ছে না। আগামী শুক্রবার সভা করে পরীক্ষা স্থগিতের কথা জানিয়ে দেওয়া হবে। ভর্তি প্রক্রিয়ার সদস্য সচিব জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী ওহিদুজ্জামান বলেন, করোনার জন্য এমনিতেই আমাদের কার্যক্রম স্থবির হয়ে আছে। শিক্ষার্থীদের ঝুঁকির মুখে ফেলে আমরা কিছু করবো না। সামনে আমাদের সভা আছে।
কিভাবে কি করা যায়? সেখানে আমরা আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নিতে পারবো। এবার প্রথমবারের মতো ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছভিত্তিতে ভর্তি পরীক্ষা নিচ্ছে। গত শিক্ষাবর্ষে সাতটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ও কৃষির প্রাধান্য থাকা বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছভিত্তিতে ভর্তি পরীক্ষা শুরু করেছিল। গুচ্ছভিত্তিক পরীক্ষার মাধ্যমে একজন ভর্তি ইচ্ছুক শিক্ষার্থী নিজ নিজ বিভাগে একটি পরীক্ষা দিয়েই যোগ্যতা ও আসন অনুযায়ী যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পাবেন।
আগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য মোট তিনটি পরীক্ষা হবে। এর মধ্যে একটি পরীক্ষা হবে বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের জন্য, আরেকটি মানবিকের জন্য এবং অন্যটি ব্যবসায় শিক্ষার শিক্ষার্থীদের জন্য।
১৯ জুন মানবিক বিভাগের, ২৬ জুন বাণিজ্যের ও আগামী ৩ জুলাই বিজ্ঞান বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিলো। এখন পর্যন্ত সিদ্ধান্ত হলো অনলাইনে নয়, সরাসরি ভর্তি পরীক্ষা হবে এসব বিশ্ববিদ্যালয়ে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...