হাসপাতালের শৌচাগারে মিললো রোগীর ঝুলন্ত লাশ

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি;
  • প্রকাশিত: ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:২৯ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ২ সপ্তাহ আগে
আলমডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। ফাইল ছবি

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের শৌচাগার থেকে মালেকা বেগম নামে (৬৩) এক রোগীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শনিবার সকালের দিকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। পুলিশের দাবি, গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন তিনি। মৃত মালেকা বেগম হারদি কুয়াতলা গ্রামের রসুলের স্ত্রী।

স্থানীয় ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, মালেকা বেগম দীর্ঘদিন ধরে পেটের পীড়া, হার্টসহ বিভিন্ন রোগে ভুগছিলো। গত ৮ সেপ্টেম্বর রাত ৮টার দিকে মুমূর্ষু অবস্থায় ভর্তি হন বৃদ্ধা মালেকা। হাসপাতালে গত তিনদিন চিকিৎসা নিয়ে তিনি সুস্থতা বোধ করছিলো বলে জানান কর্তব্যরত চিকিৎসক।

হাসপাতাল সূত্র আরও জানায়, গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাত ১০টার দিকে মহিলা ওয়ার্ডের বাথরুমে গলায় ওড়না জড়িয়ে আত্নহত্যা করেন তিন। রাতে মহিলা ওয়ার্ডের এক রোগী বাথরুমে গেলে তার ঝুলন্ত লাশ দেখে চিৎকার করে। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক ও রোগীরা ছুটে গিয়ে পুলিশকে খবর দেয়।

আলমডাঙ্গা হারদি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. মাসুক রহমান জানান, গত ৮ সেপ্টেম্বর রাতে বৃদ্ধা মহিলাকে তার স্বামী ভর্তি করেন। তার শারীরিক অবস্থা উন্নতি হলেও শুক্রবার রাতে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্নহত্যা করে।

এ ঘটনায় আলমডাঙ্গা থানার এসআই সঞ্জিত কুমার শনিবার বেলা ১১টায় হাসপাতালে উপস্থিত হয়ে সুরতহাল রিপোর্ট সংগ্রহ করেন। পরে কোনো অভিযোগ না থাকায় লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর কবীর জানান, প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে মধ্যরাতে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন ওই বৃদ্ধা। পরিবারের কোনো অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...