ফুটবল বিশ্বকাপে মার্সেলের ৪৩ মডেলের এলইডি টিভি

সোমবার, ২৮ মে, ২০১৮ ১২:১৪:১৫ অপরাহ্ণ
0
218

 

চলছে রমজান মাস। আসছে ঈদ। আগামী মাসে শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ ফুটবল। টেলিভিশন বিক্রির জন্য এর চেয়ে ভালো সময় আর নেই। হচ্ছেও তাই। এসব উপলক্ষ্যকে সামনে রেখে বিক্রি বেড়েছে মার্সেল টিভির। দেশীয় ব্র্যান্ড মার্সেল বাজারে নিয়ে এসেছে ৪৩ টি মডেলের এলইডি টেলিভিশন। নিজস্ব কারখানায় বাড়ানো হয়েছে উৎপাদন। এবার তিনগুণ বেশি টিভি বিক্রির টার্গেট সেট করেছে মার্সেল।

বিক্রেতারা জানান, এরইমধ্যে অনেক বেড়ে গেছে মার্সেল টিভির বিক্রি। ঈদ এবং বিশ্বকাপ ফুটবলকে সামনে রেখে ক’দিন পর থেকেই বিক্রি আরো বাড়বে। তৈরি হবে বাড়তি চাহিদা। চাহিদার সিংহভাগ নিজেদের দখলে নিতে সম্পূর্ণ প্রস্তুত বাংলাদেশি ব্র্যান্ড মার্সেল। তারা বাজারে ছেড়েছে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও বৈচিত্র্যময় ডিজাইনের সর্বমোট ৪৩ মডেলের এলইডি টেলিভিশন। এর মধ্যে রয়েছে স্মার্ট, ফুল এইচডি ও ব্লুটুথসমৃদ্ধ শক্তিশালী স্পিকারযুক্ত বুম বক্স টিভি।

মার্সেল কর্তৃপক্ষ জানায়, ঈদুল ফিতর ও ফুটবল বিশ্বকাপকে ঘিরে টেলিভিশনের বাড়তি চাহিদার বিষয়টি বিবেচনা করে কয়েক মাস আগেই প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। গত রমজানে যে পরিমাণ টেলিভিশন বিক্রি হয়েছিল তার চেয়ে তিনগুণ বেশি টিভি বিক্রির টার্গেট নেয়া হয়েছে এই রমজানে। সেই অনুযায়ী নিজস্ব কারখানায় টিভির উৎপাদন বাড়ানো হয়েছে। ডিজাইন ও কালারে আনা হয়েছে বৈচিত্র্য।

বিশ্বকাপ ফুটবল উপলক্ষ্যে মার্সেল টিভি কিনে রেজিস্ট্রেশন করলেই ক্রেতারা পাচ্ছেন আমেরিকা, রাশিয়া ভ্রমণের সুযোগ কিম্বা ফ্রিজ, টিভি ও এসি সম্পূর্ণ ফ্রি। তবে এসব সুযোগ না পেলেও, মিলছে এক হাজার টাকা পর্যন্ত নিশ্চিত নগদ ছাড়। ক্রেতারা মার্সেল টিভিতে এসব সুবিধা পাবেন ৩০ জুন, ২০১৮ পর্যন্ত।

মার্সেল টিভির বিক্রয় কর্মকর্তারা জানান, রোজার ঈদ ও ফুটবল বিশ্বকাপকে উপলক্ষ্যে ১৯, ২০, ২৪, ২৮, ৩২, ৩৯, ৪০, ৪৩, ৪৯ ও ৫৫ ইঞ্চির চোখ ধাঁধানো ৪৩ মডেলের এলইডি টিভি বাজারে ছেড়েছেন তারা। এর মধ্যে রয়েছে এইচডি, ফুল এইচডি ও স্মার্ট টিভি। গ্রাহক পর্যায়ে ইতোমধ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে মার্সেলের বিল্ট-ইন ওয়াইফাইযুক্ত ও দ্রুত গতির প্রসেসরসমৃদ্ধ ৩২ ইঞ্চি স্মার্ট টিভি। এছাড়াও ব্যাপক গ্রাহকপ্রিয়তা পাচ্ছে ব্লুটুথ সুবিধার দুইপাশে দুটি করে চারটি ডলবি সাউন্ডবক্সযুক্ত ২০ ইঞ্চির ‘বুমবক্স’ টিভি। এর ব্ল্যাক ও সিলভার কালারের দুটি মডেল রয়েছে।

তারা জানান, সবচেয়ে বেশি মডেল রয়েছে মার্সেলের ২৪ ও ৩২ ইঞ্চির টিভিতে। প্রতিটি সাইজে রয়েছে ১০ টি করে মডেল। প্রতিটিতে ৭ টি ব্ল্যাক মডেল ও ৩ টি সিলভার মডেলের টিভি রয়েছে। এছাড়াও মার্সেলের ২৮ ইঞ্চি এলইডি টিভিতে রয়েছে ৩টি মডেল।

মার্সেল বিপণন বিভাগের প্রধান ড. মো. সাখাওয়াৎ হোসেন বলেন, চলতি বছরের শুরু থেকেই মার্সেল টিভির বিক্রি বেড়েছে আশাতীত। প্রতি মাসেই পূর্ববর্তী বছরের একই মাসের চেয়ে দ্বিগুণ পরিমাণ বেশি এলইডি টিভি বিক্রি হচ্ছে। তবে, ঈদুল ফিতর ও ফুটবল বিশ্বকাপকে ঘিরে চলতি রমজান মাসে গত রমজানের চেয়ে তিনগুণ বেশি টিভি বিক্রির টার্গেট নেয়া হয়েছে। এই টার্গেট পূরণে সকল শ্রেণী, পেশা ও আয়ের গ্রাহকদের চাহিদা অনুযায়ী উচ্চ গুণগতমানের এলইডি টিভি উৎপাদন ও বাজারজাত করা হচ্ছে। তিনি বলেন, উচ্চমানের টিভি দেশেই উৎপাদিত হওয়ায় বর্তমানে বিদেশী টিভির চেয়ে অনেক বেশি বিক্রি হচ্ছে দেশে তৈরি টিভি।

জানা গেছে, গাজীপুরের চন্দ্রায় সর্বাধুনিক ইউরোপিয়ান প্রযুক্তি ও মেশিনারিজের সমন্বয়ে আন্তর্জাতিক মানের এলইডি টিভি উৎপাদন করছে মার্সেল। কারাখানায় গড়ে তোলা হয়েছে আদ্রতা, তাপ ও ধূলারোধী আইএসও ৭:১০০০০ মানের ক্লিন রুম। রয়েছে প্লাস্টিক কেবিনেট, স্পীকার, রিমোট কন্ট্রোল ইউনিট, মাদার বোর্ড এবং প্যানেল প্রডাকশনের জন্য পৃথক ম্যানুফাকচারিং লাইন। যেখানে এলইডি টিভির মৌলিক কাঁচামাল থেকে প্রয়োজনীয় সকল যন্ত্রাংশসহ তৈরি করা হচ্ছে। ফলে, নিজস্ব তত্ত্বাবধানে সর্বোচ্চ গুণগতমান নিশ্চিত করা সম্ভব হচ্ছে। পাশাপাশি, দামও গ্রাহকদের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে রাখা সম্ভব হচ্ছে।

সূত্রমতে, মার্সেল টেলিভিশনে রয়েছে ছয় মাসের রিপ্লেসমেন্ট গ্যারান্টি, দুই বছরের প্যানেল ও স্পেয়ার পার্টস ওয়ারেন্টিসহ পাঁচ বছরের ফ্রি সার্ভিসের সুবিধা। দ্রুত বিক্রয়োত্তর সেবার জন্য আইএসও স্ট্যান্ডার্ড সার্ভিস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের আওতায় সার্ভিস সেন্টার রয়েছে দেশজুড়ে।