বাজেট বাস্তবায়নই বড় চ্যালেঞ্জ: এফবিসিসিআই

শনিবার, ৯ জুন, ২০১৮ ২:১৫:৩৩ অপরাহ্ণ
0
181
bdj
নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রস্তাবিত বাজেট বাস্তবায়নই সরকারের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ বলে মনে করছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই।

শনিবার দুপুরে রাজধনীর ফেডারেশন ভবনে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রস্তাবিত জাতীয় বাজেটের ওপর আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানাতে সংবাদ সম্মলনের আয়োজন করে সংগঠনটি।

সংগঠনের সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, এই বাজেটকে ভালো-খারাপ বলে মন্তব্য করেতে চাই না। অন্যদের মতো গরিব মারার বাজেট কিংবা উচ্চাভিলাষী বাজেটও আমরা বলতে চাই না।

তিনি বলেন, প্রস্তাবিত বাজেটের অনেক কিছুই আছে সন্তুষ্ট হওয়ার মতো। আবার যে দিকগুলোতে ব্যবসায়ীদের আপত্তির সুযোগ আছে, সেগুলো নিয়ে আমরা সরকারে উচ্চ মহলের সঙ্গে বসে আলোচনা করে ঠিক করে নেয়ার চেষ্টা করব।

শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, বাজেট বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা এবং তদারকির মান নিশ্চিত করতে হবে। অন্যথায় এই বিশাল বাজেট বাস্তবায়ন বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দেখা দেবে।

তিনি আরো বলেন, দেশের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড যে গতিতে বাড়ছে, রাজস্ব আয় যে হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে, সেই হারে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর)-এর সক্ষমতা বৃদ্ধি পায়নি। এনবিআর এর সক্ষমতা বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন ব্যবসায়ী নেতারা।

ব্যাংকিংখাতে বিশৃঙ্খলা প্রসঙ্গে এফবিসিসিআই-এর এই নেতা বলেন,  ব্যাংকের টাকা জনগণের আমানত। এই টাকা যারা লুট করে,এফসিসিআই তাদের পক্ষে অ্যাডভোকেসি করবে না।

তিনি বলেন, মুষ্টিমেয় স্বার্থান্বেষী মহলের কারণে দেশের ব্যাংকিং খাতে বিশৃঙ্খলা দেখা দিচ্ছে। ব্যাংকিং খাতে সুশাসন বজায় রাখতে এদের শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, প্রস্তাবিত বাজেটে পাবলিক ট্রেডেড ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে করপোরেট করের হার ৪০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৩৭.৫ শতাংশ করা হয়েছে এবং নন-পাবলিকলি ট্রেডেড ব্যাংক বীমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে কর্পোরেট কর ৪২.৫ শতাংশ থেকে ৪০ শতাংশ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ব্যাংকিং সেক্টরে করপোরেট কর কমানোর প্রতিফলন ব্যাংকিং সেক্টরে সুদের ‘স্প্রেড’ যৌক্তিক পর্যায়ে কমানো তথা সুদের হার সিঙ্গেল ডিজিটে নামিয়ে আনতে সহায়ক হবে বলে আমরা আশা করি। এখানে উল্লেখযোগ্য যে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ব্যাংকের সুদ হার সিঙ্গেল ডিজিটে নামিয়ে আনার ব্যাপারে বদ্ধপরিকর।

সংবাদ সম্মেলনে এফবিসিসিআই’র সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম, সহ- সভাপতি মুনতাকিম আশরাফ, এফবিসিসিআই’র পরিচালক শমী কায়সারসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।