বিনিয়োগ ভিসা নিয়েও ট্রাম্পের কড়াকড়ি

রবিবার, ২৪ জুন, ২০১৮ ১০:৪৫:২৪ পূর্বাহ্ণ
0
140
President Donald Trump talks with reporters during a meeting with Irish Prime Minister Leo Varadkar in the Oval Office of the White House, Thursday, March 15, 2018, in Washington. (AP Photo/Evan Vucci)

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

এইচ ১-বি ভিসার পরে এ বার ইবি-৫ বা বিনিয়োগ ভিসা নীতিতে বদল চান  মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ইবি-৫ ‘ইমিগ্র্যান্ট ইনভেস্টর ভিসা প্রোগ্রাম’ অনুযায়ী, বিদেশি লগ্নিকারীরা যুক্তরাষ্ট্রের কোনো অনুন্নত এলাকায় ব্যবসার ক্ষেত্রে দশ লাখ ডলার লগ্নি করলে তার বিনিময়ে দেশটিতে বৈধ ভাবে বসবাসের সুযোগ বা গ্রিন কার্ড পেতে পারেন। এই বিনিয়োগের ফলে অন্তত দশ জন নাগরিকের কর্মসংস্থান হওয়ার শর্তও পূরণ করতে হয়। কিন্তু ট্রাম্প প্রশাসনের দাবি, ইবি-৫ ভিসার হাত ধরে যুক্তরাষ্ট্রে ঢুকেছেন এমন অনেক বিদেশি নাগরিকের বিরুদ্ধেই আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে গত কয়েক বছরে। ফলে মার্কিন কংগ্রেসের কাছে এই ভিসা নীতি বদল বা বাতিলের দাবি তুলেছেন তিনি।

চলতি সপ্তাহে মার্কিন নাগরিকত্ব ও অভিবাসন সংক্রান্ত বিভাগের এক শীর্ষ কর্তা এল ফ্রান্সিস সিসনা জানিয়েছেন, ইবি-৫ ভিসা নিয়ে বিদেশি নাগরিকেরা কালো টাকা সাদা করছেন। আবার অনেক সময় গুপ্তচরবৃত্তির অসৎ উদ্দেশ্য নিয়েও যুক্তরাষ্ট্রে ঢুকছেন অনেকে। এই ভিসা প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হবে চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে। সিসনার কথায়, ‘জাতীয় নিরাপত্তা রক্ষার স্বার্থে ও জালিয়াতি রুখতে এই ভিসা নীতির বদল প্রয়োজন।’

প্রসঙ্গত, বিনিয়োগ ভিসার কোটায় প্রতি বছর ১০ হাজার গ্রিনকার্ড দেয় যুক্তরাষ্ট্র। প্রতি দেশের জন্য বরাদ্দ সর্বোচ্চ ৭ শতাংশ। চীন ও ভিয়েতনামের পরে এই ভিসার আবেদনকারীদের মধ্যে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ভারত।