এমপিওভুক্তি: এখনো চূড়ান্ত হয়নি আবেদনের শর্ত

মঙ্গলবার, ২৬ জুন, ২০১৮ ১১:২০:৫৮ পূর্বাহ্ণ
0
98
অনলাইন ডেস্ক:

এমপিওভুক্তি প্রদানের লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠান বাছাইয়ের জন্য কোনো শর্ত এখনো চূড়ান্ত হয়নি। গতকাল সোমবার যৌথ কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হলেও সেখানে আবেদন গ্রহণের কলাকৌশলসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়। কিন্তু কোন শর্তের ভিত্তিতে এমপিও আবেদন করা যাবে এ বিষয়ে কোনো কিছু চূড়ান্ত হয়নি।

আগামী অর্থবছরের বাজেটে এমপিওভুক্তির সুনির্দিষ্ট কোনো অর্থ বরাদ্দ না করায় গত ১০ জুন থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন শুরু করেন শিক্ষকরা। একইসঙ্গে তারা রাষ্ট্রপতি ও সংসদ সদস্যদের কাছে স্পিকারের মাধ্যমে স্মারকলিপি দিয়েছেন। তবে টানা ১৬ দিন শিক্ষকরা রাস্তার ওপর অবস্থান করলেও সরকারের কেউ তাদের সঙ্গে দেখা করেননি এমন অভিযোগ শিক্ষকদের।

তবে ঈদের আগে শেষ কর্মদিবসে শিক্ষা মন্ত্রণালয় নতুন এমপিও নীতিমালা ২০১৮ জারি করেছে। এর পর গত সপ্তাহে এমপিও প্রদানের লক্ষ্যে বাছাই কমিটি ও এমপিওভুক্তির শর্ত পূরণকৃত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তালিকা প্রস্তুতের নিমিত্তে অনলাইনে আবেদন গ্রহণ এবং ব্যবস্থাপনার জন্য দুটি কমিটি গঠন করা হয়। গতকাল এই কমিটির প্রথম সভা ছিল।

কমিটির এক সদস্য বলেন, এই কমিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছ থেকে সব ধরনের তথ্য সংগ্রহ করবে। যেহেতু এটি অনলাইনে হবে। তাই এ কারণে একটি সফটওয়্যার তৈরি করতে হবে। ব্যানবেইজ একটি আবেদনের নমুনা তৈরি করেছে সভায় এই আবেদন ফরম নিয়ে আলোচনা হয়। কমিটি প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছ থেকে তথ্য নিয়ে একটি র্যাংকিং করে সরকারের কাছে জমা দেবে । সভায় ঢাকা বোর্ড থেকে একজন সদস্য কমিটিতে কো-অপট করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বাংলাদেশ নন এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার বলেন, স্বীকৃতিপ্রাপ্ত সকল প্রতিষ্ঠানকে এমপিও করতে হবে। কিন্তু এখন পর্যন্ত সরকারের কেউ আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেনি। অথচ আমরা প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাসেই আগেরবারের কর্মসূচি স্থগিত করেছিলাম। এখন আমরা সেই আশ্বাসের বাস্তবায়ন চাই। যেহেতু গত ১৫ দিনে আমাদের দাবির পক্ষে কোনো ঘোষণা আসেনি। তাই আমাদের পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ থেকে আমরণ অনশন শুরু করলাম। দাবি আদায় না করে আমরা বাড়ি ফিরে যাব না। শিক্ষকরা জানান, এ পর্যন্ত এমপিওভুক্তির ২৭ বার প্রতিশ্রুতি মিলেছে। বাস্তবায়নের কোনো লক্ষণ নেই।