নারীদের জন্য বিপজ্জনক দেশের তালিকায় ভারত-যুক্তরাষ্ট্র

মঙ্গলবার, ২৬ জুন, ২০১৮ ১১:২৫:৩৭ পূর্বাহ্ণ
0
79
অনলাইন ডেস্ক:

বিশ্বে নারীদের জন্য সবচেয়ে বিপজ্জনক দেশের তালিকায় পশ্চিমা বিশ্বের যে একটি মাত্র দেশ স্থান পেয়েছে, সেটি যুক্তরাষ্ট্র। মি-টু প্রচারণার কারণে দেশটিতে নারীদের ওপর যৌন নিপীড়ন ও হয়রানির খবর সামনে আসার পর এবারই প্রথমবারের মত এই তালিকায় ওঠে আসলো ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেশ।

মঙ্গলবার প্রকাশিত নারীদের জন্য সবচেয়ে বিপজ্জনক দেশের তালিকায় বরাবরের মত শীর্ষে রয়েছে ভারত। ধর্ষণ, যৌন হয়রানি, পারিবারিক নির্যাতন, নারী পাচার, জোরপূর্বক শ্রম, যৌন শ্রম ইত্যাদি কারণে তালিকার এক নম্বরে রয়েছে দেশটি।

তালিকার দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে রয়েছে যথাক্রমে আফগানিস্তান ও সিরিয়া। শীর্ষ দশে থাকা অন্য দেশগুলো হচ্ছে: সোমালিয়া, সৌদি আরব, গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গো, পাকিস্তান, ইয়েমেন নাইজেরিয়া ও ও মার্কিন যক্তরাষ্ট্র।

নারীদের ওপর যৌন সহিংসতা, হয়রানি, পারিবারিক সহিংসতা ও মানসিক হয়রানি ইত্যাদি ছয়টি বিষয় বিবেচনা করে এটি তৈরি করেছে ‘দ্য থমাস রয়টার্স ফাউন্ডেশন’ নামের আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানটি। নারী ইস্যুতে কাজ করছেন এমন সাড়ে ৫শ বিশেষজ্ঞের মতামতের ওপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছে বিশ্বের এই বিপজ্জনক দেশের তালিকা।

নারীদের জন্য বিপজ্জনক দেশের তালিকায় এশিয়া, মধ্যপ্রাচ্য ও আফ্রিকার যে দেশগুলোর নাম রয়েছে এর আগের তালিকাতেও এদের নাম ছিল। তবে এবার এদের সঙ্গে নতুনভাবে যুক্ত হলো যুক্তরাষ্ট্র। অবাধে ধর্ষণ, যৌন হয়রানি এবং এসব ঘটনায় নির্যাতীত নারীদের বিচার পাওয়ার সুযোগ সীমিত হওয়ার কারণেই দেশটিকে আর নিরাপদ ভাবছেন না নারী বিষেশজ্ঞরা।

গত বছর মি-টু প্রচারণার কারণে সামাজিক মাধ্যমগুলোতে হাজার হাজার মার্কিন নারী তাদের যৌন হয়রানির অভিযোগ তুলে ধরেছিলেন। যার ফলে প্রকাশ্যে এসেছিল হলিউডের প্রভাবশালী প্রযোজক ও পরিচালক হার্ভে উইনস্টেইনের যৌন হয়রানির অভিযোগগুলো।

সূত্র: আরব নিউজ