মধুসূদনের মৃত্যুদিবসে প্রাঙ্গণেমোরের নাটক

বৃহস্পতিবার, ২৮ জুন, ২০১৮ ২:১৬:৪৭ অপরাহ্ণ
0
119
 বিনোদন ডেস্ক:
 

বাংলা ভাষার প্রথম প্রহসন রচনা করেছেন। বাংলা ভাষার প্রথম ট্র্যাজেডি নাটকের রচয়িতা তিনি। বাংলা ভাষার প্রথম অমিত্রাক্ষর ছন্দে তিনি মহাকাব্য রচনা করেছেন। বাংলা ভাষার বই উৎসর্গ করা রীতির প্রবর্তন করেছেন তিনি। বাংলা ভাষার প্রথম পত্রকাব্য রচনা করেন। তিনিই বাংলা ভাষার প্রথম সনেট অথবা চতুর্দশপদী কবিতার রচয়িতা। মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্ত তার নাম।

মাইকেল ‘বাংলা ভাষার প্রথম নাটক “শর্মিষ্ঠা” রচনা করেছিলেন। বাংলা ভাষার প্রথম “রত্নাবলী” নাটক অনুবাদের কৃতিত্ব তার। তাই নাটকের মানুষের কাছে তার বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। সেই গুরুত্বকে অনুধাবন করেই তার স্মরণে মঞ্চে আসছে নাটক।

২৯ জুন মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের মৃত্যুদিন। তাকে স্মরণ করে রাজধানীর বেইলি রোডের মহিলা সমিতি মিলনায়তনে প্রাঙ্গণেমোর মঞ্চস্থ করবে ‘দাঁড়াও…জন্ম যদি তব বঙ্গে’ নামের নাটক। জানালেন প্রাঙ্গণেমোর নাট্যদলের প্রধান অনন্ত হিরা।

তিনি জানান, নাটকটিতে দেখা যাবে ১৮৭৩ সালের ২৯ জুন বেলা দুইটায় আলীপুর দাতব্য হাসপাতালে মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্ত মারা যান। মৃত্যুর আগের এক ঘণ্টায় মহাকবির মনোজগতের ভাবনার টানাপোড়েন নিয়ে নাটকটি। সব কাজের ব্যাপারে হেনরিয়েটাকে জানালেও এফিটাফ বা শোকগাথা রচনা নিয়ে মধুসূদন কেন হেনরিয়েটাকে জানালেন না, সেই প্রশ্নের জবাব খোঁজার অনুসন্ধান নাটকটি। এই নাটকে চরিত্র হিসেবে উপস্থিত হয় হেনরিয়েটা, বিদ্যাসাগর আর মাইকেল মধুসূদন।

‘দাঁড়াও…জন্ম যদি তব বঙ্গে’ নাটকটি রচনা করেছেন অপূর্ব কুমার কুণ্ডু, নির্দেশনা দিয়েছেন অনন্ত হিরা। এতে মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন অনন্ত হিরা। আরও অভিনয় করেছেন রামিজ রাজু, শুভেচ্ছা রহমান, আল-আভী জাহান।

নাটকটির মঞ্চ ও পোশাক পরিকল্পনা করেছেন নূনা আফরোজ, সংগীত পরিকল্পনা করেছেন রামিজ রাজু, আলোক পরিকল্পনা করেছেন আহমেদ সুজন।