বৃষ্টির মধ্যে পলিথিন টানিয়ে শিক্ষকদের অনশন

বুধবার, ৪ জুলাই, ২০১৮ ৪:২৯:০৪ অপরাহ্ণ
0
131

যুগের কন্ঠ ডেস্ক:

বৃষ্টির মধ্যেই পলিথিন টানিয়ে চলছে বেসরকারি নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের অনশন। বুধবার এমপিওভুক্তির দাবিতে আন্দোলনের ২৫তম দিন ও আমরণ অনশনের ১০ম দিন। নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের ব্যানারে এই কর্মসূচি পালন হচ্ছে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে।
অনশনকারী শিক্ষক কর্মচারীদের দাবি, স্বীকৃত বেসরকারি সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি করতে হবে। নীতিমালার দোহাই দিয়ে আংশিক এমপিও মেনে নেয়া হবে না, বলে শ্লোগান দেন তারা।
বেলা ১২টার দিকে কর্মসূচিস্থলে গিয়ে দেখা যায়, বৃষ্টির মধ্যেই আধা ভোজা শরিরে পলিথিন টানিয়ে, কেউ ছাতা মাথায় নিয়ে বসে আছেন অনশনে। কারো কারো শরীরে স্যালাইন যুক্ত রয়েছে। থেমে থেমে শ্লোগান দিচ্ছেন শিক্ষক কর্মচারীরা- শেখ হাসিনার বাংলায় শিক্ষকরা কেন রাস্তায়? ডিজিটাল বাংলায় শিক্ষকরা কেন রাস্তায়? জয় বাংলা। জয় বঙ্গবন্ধু। শেখ হাসিনা জিন্দাবাদ। ইত্যাদি শ্লোগানে মুখরিত অনশনস্থল।
শিক্ষকদের অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি না মেনে শিক্ষা মন্ত্রণালয় কিছু সংখ্যক প্রতিষ্ঠান এমপিও দেয়ার কথা শোনা যাচ্ছে। আমরা তা মানবো না, শিকরা এমপিও না পেলে বাড়ি ফিরবে না। এমপিওর আশায় বছরের পর বছর বিনে পয়সায় চাকরি করে আসছেন। তাদের পরিবার অর্ধহার আর এখন অনাহরে চলছে। শিক্ষকদের প্রতি এমন আচরণ কেন?
গত ১০ জুন থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচি পালন শুরু করেন। এরপর গত ২৫ জুন থেকে আমরণ অনশন কর্মসূচি পালন করছেন শিকক্ষরা।
সংগঠনের তথ্যানুযায়ী, বর্তমানে নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে পাঁচ হাজার ২৪২টি। এ ছাড়া সরকার নতুন করে ১৩১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের স্বীকৃতিসহ মোট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পাঁচ হাজার ৩৭৩টি।
মঙ্গলবার নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির ব্যাপারে বিধিগত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিবকে নির্দেশ দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি।
ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ড. বিনয়ভূষণ রায় জানান, এখন পর্যন্ত মোট ১৯৩ জন অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাদের মধ্যে ১০২ জনকে বিভিন্ন সময়ে স্যালাইন দিয়ে রাখতে হয়েছে। অনশনস্থলে ২০ জনকে স্যালাইন দেওয়া হয়েছে। এখন পর্যন্ত অর্ধশতাধিক শিকক্ষ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।