বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে অংশ নিতে প্রধান শিক্ষকের চাঁদাবাজি

রবিবার, ৮ জুলাই, ২০১৮ ১১:৫৭:৪১ পূর্বাহ্ণ
0
79
নড়াইল প্রতিনিধি:

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট খেলায় অংশগ্রহণ করতে হলে খেলোয়াড় প্রতি দিতে হবে এক’শ টাকা। টাকা দিলে খেলায় অংশগ্রহণ আর না দিলে অংশগ্রহণ করতে পারবেনা বলে সাফ জানিয়ে দেন নড়াইল সদর উপজেলার আফরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা হালিদা বেগম। এসব অভিযোগ করেন ওই বিদ্যালয়ের চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণি পড়ুয়া খেলোয়ার ও অভিভাবকরা।

বিদ্যালয়ের অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, গত ৩ জুলাই উপজেলা পর্যায়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের খেলা অনুষ্ঠিত হয়। আফরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ও ইউনিয়ন পর্যায়ে প্রতিদ্বন্দীতা করে জয়ী হয়ে উপজেলা পর্যায়ে খেলায় অংশগ্রহণের যোগ্যতা অর্জন করে। কিন্তু বিদ্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা হালিদা বেগম সাফ জানিয়ে দেন খেলায় অংশ নিতে হলে প্রত্যেককে এক’শ করে টাকা দিতে হবে। এভাবে এক হাজার দুইশত টাকা সংগ্রহ করে ৩ জুলাই নড়াইল বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ স্টেডিয়ামে নিয়ে আসেন খেলোয়াড়দের। এ ঘটনায় শিক্ষার্থীর অভিভাবকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। অভিভাবকরা তাদের সন্তানকে ওই বিদ্যালয়ে না পাঠানোর কথাও জানান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক শিক্ষার্থী প্রত্যেক খেলোয়াড় শিক্ষার্থীর কাছ থেকে এক’শ টাকার করে নেয়া হয়েছে আরা যারা টাকা দেয়নি তাদের খেলায় অংশগ্রহণ করতে দেয়া হয়নি বলেও অভিযোগ করেন খেলোয়াড়রা।

অভিভাবক ফরহাদ হোসেন বলেন, খেলা হবে নড়াইলে। ছেলেদের যাওয়া-আসার টাকা আমাদের দিতে হবে তা হলে এমন খেলার দরকার কি? আমার সন্তানকে আর ওই বিদ্যালয়ে পাঠাবো না বলেও জানান তিনি।

চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থীর ভাই রায়হান অভিযোগ করেন, প্রত্যেক খেলোয়াড়দের নিকট থেকে এক’শ টাকা করে নিয়েছে শিক্ষকরা। ছোট্ট শিশুদের টাকার বিনিময়ে খেলায় অংশগ্রহণ করালেও তাদের একটু নাস্তাও দেয়া হয়নি।

আফরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা হালিদা বেগম খেলোয়াড়দের কাছ থেকে এক’শ টাকা করে নেয়ার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, খেলার জন্য আমাদের কোন বাজেট থাকেনা। তাই ওদের কাছ থেকে টাকা নেয়া হয়েছে খেলোয়াড়দের নড়াইলে যাওয়ার আসার খরচ বাবদ।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি কুদ্দুস আলী ফকির বলেন, আমি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টাকা নিতে নিষেধ করলেও শিক্ষকরা তা শোনেননি।

সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার অসিত রায় পাল টাকা নেয়ার পক্ষ নিয়ে বলেন, শিক্ষকরা কি পকেট থেকে টাকা খরচ করবে?

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মু. শাহ আলম বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট খেলায় অংশগ্রহণের বিষয়ে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টাকা নেয়ার কোন নিয়ম নেই। এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।