প্রচ্ছদ

প্রশংসায় ‘লজ্জা’ লাগে পরিকল্পনামন্ত্রীর

০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৩:০৬

যুগের কন্ঠ ২৪ ডট কম
কর্মশালায় পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বক্তব্য রাখছেন।
::নিজস্ব প্রতিবেদক::

নিজের প্রশংসা কেউ যদি করে সেটা কার না ভালো লাগে! তবে এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম মানুষও আছেন। যেমন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। তিনি জানালেন, যদি কেউ তার অতিরিক্ত প্রশংসা করে তাহলে তিনি অস্বস্তি বোধ করেন, এমনকি এতে তিনি লজ্জাও পান।

তার মতে কাজ করলে কাজের সুফল মিলবে। এজন্য প্রশংসা বন্ধ করে যথাসময়ে যথাযথ কাজ করে যেতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন মন্ত্রী।

মঙ্গলবার মন্ত্রণালয়ের একটি কর্মশালায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন। এদিন চলতি অর্থবছর নির্বাচিত চলমান ২২টি প্রকল্পের নিবিড় পরিবীক্ষণ এবং আটটি সমাপ্ত প্রকল্পের প্রভাব মূল্যায়ন সংক্রান্ত ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয় পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে।

সেখানে বক্তব্য দেয়ার সময় বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের (আইএমইডি) সচিব প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তী এবং অতিরিক্ত সচিব ড. গাজী মো. সাইফুজ্জামান কথা বলেন। প্রচলিত রীতি অনুযায়ী এ সময় তারা অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানের প্রশংসা করেন।

এরপর প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘আমাকে নিয়ে অনেক সুন্দর কথা বলেছেন প্রদীপ এবং সাইফুজ্জামান। আমাকে অত প্রশংসা করতে হবে না। এতে লজ্জা লাগে, মাঝে মাঝে অস্বস্তিকর। ধন্যবাদ, আসুন, ভালো আছেন, এটুকু যথেষ্ট। ইদানিং ফুল-ক্রেস্ট দেয়া কমেছে। আরো কমাব আমরা। গেলেই ফুল নিয়ে আসে, ক্রেস্ট দেয় এগুলো কমিয়ে আনা দরকার।’

এ সময় বিভিন্ন অনুষ্ঠানে প্রচলিত সঞ্চালন ধারার সমালোচনা করে সেগুলো বাদ দেয়ার কথা বলেন এম এ মান্নান।

তিনি বলেন, ‘স্ফুলিঙ্গ ২১ ফেব্রুয়ারি সামনে। তাদের (ভাষা শহীদ) স্মরণ করতে হবে। কিন্তু স্মরণ করে মাথা নোয়াবেন না, মাথা ভেঙে পড়ে যাবেন না। আমাদের বীর পুরুষদের সালাম দেব, ধন্যবাদ জানাব, তারপর কাজে চলে যাব। ওদিকে তাকিয়ে বন্দনাগীতি গেয়ে সারাবেলা নষ্ট করলে দিন নষ্ট হয়ে যাবে।’

পরিকল্পনামন্ত্রী আরো বলেন, ‘নিজেদের অবস্থান সম্পর্কে আপনারা গর্ববোধ করবেন। লজ্জা পাবেন না, ভয় পাবেন না। ভয় পাওয়ার দিন শেষ। মাথা নুইয়ে চলার দিন শেষ। স্বাধীন দেশের মানুষ আপনারা। কাজ করব, কাজের ফল ভোগ করব।’

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে মন্ত্রীকে আইএমইডির পক্ষ থেকে ক্রেস্ট দিয়ে সম্মান জানানো হলে এসময় তিনি হেসে বলেন, ‘আজকে রিসিভ করলাম, ভবিষ্যতে আর দেবেন না।’

Shares