প্রচ্ছদ

উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় নারীসহ ২ জনকে পিটিয়ে আহত

১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৩:২৪

যুগের কন্ঠ ২৪ ডট কম
আহত চয়ন বৈদ্য
::গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি::

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় সরস্বতী পূজার অনুষ্ঠানে মেয়েদের উত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় চয়ন বৈদ্য নামে এক স্কুলছাত্রকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসময় চয়ন বৈদ্যকে রক্ষার জন্য মঞ্জিলা বেগম (৫০) নামে এক নারী এগিয়ে আসলে তাকেও পেটায় বখাটেরা।

বৃহস্পতিবার সকালে কোটারীপাড়া উপজেলার শুয়াগ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহত স্কুলছাত্র চয়ন বৈদ্য শুয়াগ্রামের গুরুদাস বৈদ্যর ছেলে ও শুয়াগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র। অপর আহত মঞ্জিলা বেগম একই গ্রামের রহমান বিশ্বাসের স্ত্রী। তাদেরকে কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় আহত চয়ন বৈদ্যের পিতা গুরুদাস বৈদ্য বাদী হয়ে কোটালীপাড়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) শুয়াগ্রামের ডা. ভবানন্দের বাড়িতে সরস্বতী পূজার অনুষ্ঠানে পাশ্ববর্তী দক্ষিণপাড়া গ্রামের ছত্তার শেখের ছেলে শরিফুল শেখ (২০) ও আতিয়ার শেখের ছেলে আজগর শেখ পূজায় আগত মেয়েদের উত্যক্ত করতে থাকে। এসময় চয়ন বৈদ্য ও তার বন্ধুরা মিলে এর প্রতিবাদ করে।

এ ঘটনার জেরে আজ বৃহস্পতিবার সকালে চয়ন বৈদ্য নিজ বাড়ি থেকে শুয়াগ্রাম বাজারে যাওয়ার পথে শরিফুল শেখ ও আজগর শেখ তাদের বন্ধুদের নিয়ে মারধর শুরু করে। এসময় চয়ন বৈদ্য দৌড়ে পার্শ্ববর্তী রহমান বিশ্বাসের বাড়িতে গিয়ে আশ্রয় নেয়।

বখাটেরা সেখানে গিয়ে ওই ছাত্রের উপর আবারও হামলা চালায়। এসময় রহমান বিশ্বাসের স্ত্রী হামলাকারীদের হাত থেকে চয়ন বৈদ্যকে রক্ষা করতে গেলে হামলাকারীরা তাকেও মারধর করে।

ভুক্তভোগী চয়ন বৈদ্যের পিতা গুরুদাস বৈদ্য বলেন, শরিফুল ও আতিয়ার প্রায়ই বন্ধুদের নিয়ে এসে আমাদের এলাকার স্কুল-কলেজগামী মেয়েদেরকে উত্যক্ত করে। এর প্রতিবাদ করায় এই বখাটেরা আমার ছেলেকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে।

এ বিষয়ে জানার জন্য শরিফুল ও আতিয়ারদের বাড়িতে গিয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে কোটালীপাড়া থানার ওসি শেখ লুৎফর রহমান বলেন, আহত চয়ন বৈদ্যের পিতা গুরুদাস বৈদ্যের একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Shares