করোনার চেয়েও নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ: সিইসি

যুগের কন্ঠ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১২ জুন, ২০২১
  • ২৪
::বরিশাল প্রতিনিধি::

করোনার চেয়েও নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা বলেছেন, নির্বাচনে করোনার বিস্তার ঘটাতে পারে এমন যুক্তিতে আমি বিশ্বাস করি না। করোনা বিস্তারের ১০০টি কারণের মধ্যে নির্বাচন একটি কারণ হতে পারে মাত্র।

শনিবার দুপুরে বরিশাল সার্কিট হাউজ মিলনায়তনে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

সিইসি বলেন, পাশের দেশ ভারতের পশ্চিমবঙ্গে সম্প্রতি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলেও সবচেয়ে বেশি করোনায় আক্রান্ত হয়েছে দিল্লিতে। সেখানে নির্বাচন হয়নি। আমেরিকায়ও নির্বাচনের পরে করোনা সংক্রমণ বাড়েনি। কোভিড পরিস্থিতি শুরুর পর পৃথীবির বিভিন্ন দেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলেও ওই দেশগুলোতে এর প্রভাব পড়েনি।

নাগরিকদের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি কার্ড) প্রদানের বিষয়টি নির্বাচন কমিশনের কাছে থাকবে কি-না জানতে চাইলে সিইসি বলেন, ‘বিশ্বের অন্যান্য দেশে এনআইডি কার্যক্রম ভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কাছে ন্যাস্ত থাকে। নির্বাচন কমিশন শুধু নির্বাচন পরিচালনা করে। আমাদের দেশে যেহেতু এনআইডি কার্যক্রমেরও সূচনা করেছে নির্বাচন কমিশন, তাই এটি কমিশনের কাছেই থাকা উচিত বলে সরকারের কাছে লিখিত ব্যাখ্যা দিয়েছি।’

এর আগে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বিভাগের জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তার সঙ্গে সভা করে ইউপি নির্বাচন নিয়ে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ে নানা দিক নির্দেশনা দেন। বরিশালের জেলা প্রশাসক মো. জসীম উদ্দীন হায়দার সভায় সভাপতিত্ব করেন।

প্রশাসনের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনের কাছে একজন প্রার্থীর পরিচয় শুধু প্রার্থী। তিনি কোন দল-মত বা গোত্রের এটা বিবেচনা করে কোনো প্রার্থীকে অধিকার বঞ্চিত করা যাবে না।’

নির্বাচনে আচরবিধি লঙ্ঘনকারীদের কঠোরভাবে আইনের আওতায় আনার জন্য মাঠ কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়ে সিইসি বলেন, ‘এবার নির্বাচন সুষ্ঠু হবে।’

মতবিনিময় সভায় আরও বক্তৃতা করেন- বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার সাইফুল হাসান বাদল, পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খান, রেঞ্জ ডিআইজি মো. আক্তারুজ্জামান, নির্বাচন কমিশনের যুগ্ম সচিব ফরহাদ আহম্মেদ খান ও আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আলাউদ্দিন।

আগামী ২১ জুন বরিশাল বিভাগের ১৭৩টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তবে এর মধ্যে ২৬ ইউনিয়নে একজন করে চেয়ারম্যান প্রার্থী থাকায় তারা বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এ ইউনিয়নগুলোতে শুধু সদস্য পদে নির্বাচন হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..