জাপানে ‘ইংলিশ স্পিচ কনটেস্টে’ সেরা হলো তাহমিদ

অনলাইন ডেস্ক;
  • প্রকাশিত: ২২ নভেম্বর ২০২১, ১১:২০ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ২ সপ্তাহ আগে

তাহমিদ আহমেদ

জাপানের ‘সাইতামা জুনিয়র হাইস্কুল ইংলিশ স্পিচ কনটেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ’, প্রতিযোগিতায় সেরা হয়েছে বাংলাদেশী কিশোর তাহমিদ আহমেদ।

দুই বছর আগে বাংলাদেশ থেকে আসা এই কিশোর, জন্ম দিয়েছে এক নতুন বিস্ময়ের। নামীদামি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মেধাবী শিক্ষার্থীদের হারিয়ে পুরস্কার জিতে নেয়ায় বংলাদেশের কিশোর তাহমিদকে নিয়ে বিশেষ ফিচার স্টোরি করেছে জাপানের দৈনিক ইয়োমিউরি শিম্বুন।

তাহমিদ মনিপুর উচ্চবিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী ছিল। সে তার বক্তব্যের মাধ্যমে বাংলাদেশ ও জাপানের শিক্ষাব্যবস্থার তুলনামূলক চিত্র তুলে ধরে। নিজের অভিজ্ঞতা থেকে সে জানায়, শিক্ষা গ্রহণের ক্ষেত্রে, বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা কোন সুযোগগুলো থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এবং কী করলে তারা আরও বেশি এগিয়ে যেতে পারবে। সেই পর্যবেক্ষণ ও মূল্যায়ন তুলে ধরে ১৭ বছরের এই শিক্ষার্থী। তার এ বক্তব্যের সময় চারদিকে পিনপতন নীরবতা ছিল। সবাই মুগ্ধ হয়ে তার ১৫ মিনিটের বক্তব্য শুনে। তার বক্তব্য শেষে হলে শুরু হয় তুমুল করতালি।

তাহমিদ আহমেদ তার অভিব্যক্তি ব্যক্ত করার সময় জানান, তার নামের সঙ্গে যখন লাল–সবুজের ‘বাংলাদেশ’ শব্দটি উচ্চারিত হয়, তখন তার ভীষণ আনন্দ হয়, অজান্তেই চোখ ভিজে ওঠে। দৌড়ে গিয়ে আম্মু–আব্বুকে জড়িয়ে ধরতে ইচ্ছে করে। কিন্তু চাইলে কী হবে? তারা তো ব্যস্ততার জন্য আসতে পারেননি। তাই কিছুটা অতৃপ্তি নিয়েই বিজয়ের ট্রফি হাতে তুলে নেয় তাহমিদ।

হমিদ আহমেদ বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ! আমার সাফল্যের পেছনে রয়েছে আমার মা–বাবা ও শিক্ষকদের ঘাম ও শ্রম। তাই তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। কম্পিউটার সায়েন্সে উচ্চতর ডিগ্রি অর্জন আমার লক্ষ্য। বাংলাদেশ আমার জন্মভূমি। আর জন্মভূমি স্বর্গের চেয়ে শ্রেষ্ঠ। তাই বড় হয়ে দেশের জন্য কাজ করাই আমার স্বপ্ন। বিশেষ করে শিক্ষাব্যবস্থার উন্নয়নে এখানকার অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে চাই।’

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...