বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগে শিক্ষা ক্যাডারকে শোকজ

নিজস্ব প্রতিবেদক;
  • প্রকাশিত: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১:৪৯ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৩ সপ্তাহ আগে
ছবি সংগৃহীত

গাইড বইয়ে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগে এক শিক্ষা ক্যাডারকে শোকজ করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)।

রোববার মাউশি মহাপরিচালক প্রফেসর ড. সৈয়দ গোলাম ফারুক স্বাক্ষরিত চিঠিতে এ কারণ দর্শানোর নোটিশ দেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কুষ্টিয়া সরকারি মহিলা কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ের প্রভাষক মো. আবু বকর সিদ্দিক। একই সঙ্গে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩ বছর মেয়াদি ডিগ্রি (পাস) দ্বিতীয় বর্ষের ‘বাংলাদেশের সরকার ও রাজনীতি’ (রাষ্ট্রবিজ্ঞান তৃতীয় পত্র) ব্যতিক্রম পাবলিকেশন্স-এর একটি গাইড বইয়ের লেখক তিনি।

মাউশির এক কর্মকর্তা জানান, ওই বইয়ের চতুর্থ প্রকাশ, সেপ্টেম্বর-২০১৮ এর ৩৯৮ পৃষ্ঠায় স্বাধীনতা পরবর্তী রাজনৈতিক শাসনামল নিয়ে শিক্ষার্থীদের কাছে ভুল তথ্য উপস্থাপন করেছেন যা চরম ইতিহাস বিকৃতি। এ কারণেই মো. আবু বকর সিদ্দিককে কারণ দর্শানোর চিঠি দেয়া হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়, জনাব মো. আবু বকর সিদ্দিক-১৬২৬৪, প্রভাষক (রাষ্ট্রবিজ্ঞান), কুষ্টিয়া সরকারি মহিলা কলেজ, কুষ্টিয়া আপনি বিসিএস (সাধারণ শিক্ষা) ক্যাডারের কর্মকর্তা। আপনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন বছর মেয়াদি ডিগ্রি (পাস) দ্বিতীয় বর্ষের ‘বাংলাদেশের সরকার ও রাজনীতি’ (রাষ্ট্রবিজ্ঞান তৃতীয় পত্র) ব্যতিক্রম পাবলিকেশন্স-এর একটি গাইড বইয়ের লেখক। উক্ত বইয়ের চতুর্থ প্রকাশ, সেপ্টেম্বর-২০১৮ এর ৩৯৮ পৃষ্ঠায় স্বাধীনতা পরবর্তী রাজনৈতিক শাসনামল নিয়ে শিক্ষার্থীদের কাছে ভুল তথ্য উপস্থাপন করেছেন, যা চরম ইতিহাস বিকৃতি। উক্ত লেখায় বঙ্গবন্ধু ও আমাদের স্বাধীনতা পরবর্তী ইতিহাসকে বিকৃতভাবে উপস্থাপন করেছেন যা সরকারি কর্মচারী (আচরণ) বিধিমালা ১৯৭৯ এর ২৩ (১) ধারার পরিপন্থি।

আপনার গৃহীত কর্মকান্ড সরকারি কর্মচারী (শৃংখলা ও আপীল) বিমলা-২০১৮ এর ২ (খ), ২ (উ) মোতাবেক অসদাচরণও বটে। এমতাবস্থায়, সরকারি কর্মকর্তা হয়ে বর্ণিত গাইড বই-এ ইতিহাস বিকৃত করার অভিযোগে কেন আপনার বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবেনা তা পত্র প্রাপ্তির সাত কর্ম দিবসের মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্য নির্দেশ দেয়া হলো।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...