স্কুলের উদ্দেশ্যে বের হয়ে তিনদিন ধরে নিখোঁজ শীলা

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি;
  • প্রকাশিত: ১৮ নভেম্বর ২০২১, ১২:২৩ অপরাহ্ণ | আপডেট: ২ সপ্তাহ আগে

নিখোঁজ সানজিদা আক্তার শীলা

ঠাকুরগাঁওয়ে স্কুলে যাওয়ার উদ্দেশ্যে বের হয়ে সানজিদা আক্তার শীলা (১৪) নামের এক ছাত্রী নিখোঁজ হয়েছে। শীলা ঠাকুরগাঁও আমানতুল্লাহ ইসলামী একাডেমি স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী।

গত মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) বেলা ১১টায় স্কুলে যাওয়ার কথা বলে বাসা থেকে বের হয়ে আর ফিরে আসেনি মেয়েটি। নিখোঁজের তিন দিনেও শিলার খোঁজ না মিললেও খরচের ভয়ে মেয়েটির বাবা তেমন কোনো তদারকি করছে না বলে অভিযোগ করেছেন শিলার নানি মালেকা খাতুন।

শিলার নানি জানান, অসহায় মেয়েটি জন্মের বছর খানেক পরেই তার বাবা-মায়ের বিচ্ছেদ হয়। এরপর দুজনেই অন্যত্র বিয়ে করে। তখন থেকে শিশু শিলা নানির কাছে থেকেই বড় হয়েছে।

মালেকা খাতুন আরও জানান, স্কুল থেকে দুপুর ২টা থেকে ৩টার মধ্যে ফেরার কথা থাকলেও শিলা ফিরে না আসায় খোঁজ নিতে স্কুলে যান তিনি। স্কুলের সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে জানা যায় শিলা সেদিন স্কুলে গিয়েছিল। তবে স্কুলের হাজিরা খাতায় তার উপস্থিতি ছিলো না। সর্বত্র খোঁজ করে শিলাকে না পাওয়ার পর তিনি থানায় একটি জিডি করেন।

এ বিষয়ে আমানতুল্লাহ স্কুলের প্রধান শিক্ষক শামসুল ইসলাম বলেন, মেয়েটির নানি স্কুলে এসে নিখোঁজের বিষয়টি জানিয়েছিল। আমি খোঁজ নিয়েছি। হাজিরা খাতায় উপস্থিতি নেই, কিন্তু কিছু ছাত্রছাত্রী সেদিন তাকে স্কুলে দেখেছে। বোঝা যাচ্ছে ক্লাস শুরু হওয়ার আগেই স্কুল থেকে চলে গেছে মেয়েটি। হয়তো কারও প্রলোভনে পড়ে কোথাও গেছে। কারণ স্কুল থেকে কেউ উঠিয়ে নিয়ে যাবে- এটা মনে হচ্ছে না।

নিখোঁজ শিলার নানি বলেন, আমার নাতনি একটি শিশু বাচ্চা। হয়তো দুর্বৃত্তরা তুলে নিয়ে গেছে। এতিম অবস্থায় পালিত হওয়া অসহায় মেয়েটিকে আমি ফিরে চাই।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তানভীরুল ইসলাম জানান, সানজিদা আক্তার শিলা নামের মেয়েটি নিখোঁজের ঘটনায় থানায় একটি জিডি হয়েছে। তার খোঁজ চলছে। আশা করছি দ্রুতই খুঁজে পাওয়া যাবে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...