চট্টগ্রামে হাফ পাস কেন নয়?

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি;
  • প্রকাশিত: ১ ডিসেম্বর ২০২১, ১:১০ অপরাহ্ণ | আপডেট: ২ মাস আগে

ছবি সংগৃহীত

চট্টগ্রামসহ সারাদেশে হাফ ভাড়া কার্যকর ও নিরাপদ সড়কসহ ৯ দফা দাবিতে মানবন্ধন করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। বুধবার নগরীর জামালখান প্রেসক্লাবের সামনে ‘হাফ পাস ভাড়া চট্টগ্রামে কেন নয়’ স্লোগানে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় শিক্ষার্থীরা বলেন, শুধু ঢাকায় হাফ পাস কার্যকর করলে হবে না, চট্টগ্রামেও হাফ ভাড়া কার্যকর করতে হবে। এখানে বৈষম্য সৃষ্টি করার সুযোগ নেই। সিদ্ধান্ত হলে সবার জন্য তা প্রযোজ্য হতে হবে।

তাদের ভাষ্য, শর্ত দিয়ে হাফ ভাড়া কার্যকরকে আমরা প্রত্যাখান করছি। ঢাকায় নয়, সারাদেশে গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের জন্য হাফ ভাড়া কার্যকর করতে হবে।

শিক্ষার্থীরা আরও বলেন, ঢাকায় আজকে থেকে হাফ ভাড়া কার্যকর করা হয়েছে। কিন্তু চট্টগ্রামে এ ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। চট্টগ্রামের শিক্ষার্থীরা কী দোষ করেছে। তারা কেনো হাফ ভাড়া পাবে না। আমরা এ বৈষম্যমূলক নীতি চাই না। আমাদের দাবি, শধু ঢাকা কিংবা চট্টগ্রাম না, সারাদেশে সকল গণপরিবহনে (সড়ক, নৌ, রেল ও মেট্রোরেল) শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া নিশ্চিত করে প্রজ্ঞাপন জারি করতে হবে।

শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলো- দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে শিক্ষার্থীসহ সকল সড়ক হত্যার বিচার করতে হবে ও পরিবারকে যথাযথ ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। গণপরিবহনে নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে এবং জনসাধারণের চলাচলের জন্য যথাস্থানে ফুটপাত, ফুটওভার ব্রিজ বা বিকল্প নিরাপত্তা ব্যবস্থা দ্রুততর সময়ের মধ্যে নিশ্চিত করতে হবে।

‘সড়ক দুর্ঘটনায় আহত সকল যাত্রী এবং পরিবহন শ্রমিকের যথাযথ ক্ষতিপূরণ ও পূনবার্সন নিশ্চিত করতে হবে। পরিকল্পিত বাস স্টপেজ ও পার্কিং নির্মাণ ও যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে (এ ক্ষেত্রে প্রয়োজনে কঠোর আইন প্রয়োগ করতে হবে)। দ্রুত বিচারিক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ও যথাযথ তদন্ত সাপেক্ষে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের দায়ভার সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি বা মহলকে নিতে হবে। বৈধ ও অবৈধ যানবাহন চালকদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বৈধতার আওতায় আনতে হবে এবং বিআরটিএ’র সকল কর্মকাণ্ডের ওপর নজরদারি ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে।’

এছাড়া আধুনিক বাংলাদেশ নির্মাণে ঢাকাসহ সারাদেশে ট্রাফিক ব্যাবস্থাপনা অবিলম্বে স্বয়ংক্রিয় ও আধুনিকায়ন এবং পরিকল্পিত নগরায়ন নিশ্চিত করতে হবে। ট্রাফিক আইনের প্রতি জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য একে পাঠ্যসূচির অন্তর্ভুক্ত করতে হবে এবং ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার মাধ্যমে সচেতনামূলক অনুষ্ঠান সম্প্রচার করতে হবে।

কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নেজাম উদ্দিন বলেন, প্রেসক্লাবের সামনে কিছু শিক্ষার্থী অবস্থান নেয়। তারা সেখানে হাফ ভাড়া আর নিরাপদ সড়কের দাবি নিয়ে কথা বলছেন। ওই এলাকায় যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। কোনো সমস্যা নেই।

এদিকে রাজধানীতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের প্রেক্ষিতে গতকাল মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) সকালে শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নিয়ে বাস মালিকরা হাফ ভাড়া কার্যকরের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এ ক্ষেত্রে কিছু শর্তও নির্ধারণ করা হয়েছে। আজ বুধবার থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে।

বিআরটিসি বাসে হাফ ভাড়া কার্যকরে দেয়া শর্তগুলোর মতো বাস মালিক সমিতিও শর্ত আরোপ করছে। আর এই শর্তগুলো প্রায় একইরকম। ভ্রমণকালে বিআরটিসি বাসের মতোই ব্যক্তি মালিকানাধীন বাসে ছাত্র-ছাত্রীদের অবশ্যই নিজ নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বৈধ পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখতে হবে। প্রয়োজনে তা প্রদর্শন করতে হবে। বিআরটিসি বাসে চলাচলের ক্ষেত্রে সকাল ৭টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা হাফ ভাড়ার সুবিধা পাবে। তবে ব্যক্তি মালিকানাধীন বাসে এ সুবিধা শুরু হবে সকাল ৮টায়, চলবে রাত ৮টা পর্যন্ত। এছাড়াও ছুটির দিন হাফ ভাড়া কার্যকর হবে না। হাফ ভাড়া শুধু ঢাকায় সীমাবদ্ধ, অন্যান্য জেলার জন্য নয় বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...