ঢাকাবৃহস্পতিবার , ২৮ এপ্রিল ২০২২

কলেজছাত্রকে বিবস্ত্র ও মাথা ন্যাড়া করে নির্যাতন, ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
এপ্রিল ২৮, ২০২২ ৯:০০ অপরাহ্ন
Link Copied!

সাতক্ষীরার তালায় কলেজছাত্রকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার প্রধান আসা‌মি উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ আকিবকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। খুলনা জেলার ডুমু‌রিয়া এলাকা থেকে বুধবার সন্ধ্যায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার দিকে তালা থানা পুলিশ তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠায়।

গত সোমবার উপজেলা ছাত্রলীগের পদ থেকে তাকে সাময়িক বহিষ্কারের জন্য ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সংসদের কাছে সুপারিশ করে জেলা ছাত্রলীগ।

নির্যাতনের শিকার শোয়েব আজিজ তন্ময়ের পরিবার জানান, রোববার (২৪ এপ্রিল) দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত টানা ৫ ঘণ্টা তালা সরকারি কলেজ ছাত্রাবাসের একটি কক্ষে তন্ময়কে আটকে রেখে বিবস্ত্র করে নির্যাতন করে তালার মাঝিয়াড়া গ্রামের সৈয়দ ইদ্রিসের ছেলে উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ আকিব (২৫), হরিশচন্দ্রকাটি গ্রামের গণেশ চক্রবর্তীর ছেলে ও উপজেলা শ্রমিক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সৌমিত্র চক্রবর্তী (৩২), ছাত্রলীগ কর্মী জে. আর সুমন (২৫), তালার মহান্দি গ্রামের ছাত্রলীগ কর্মী জয় (২৪) ও তালা সদরের নজির শেখের ছেলে ছাত্রলীগ কর্মী নাহিদ হাসান উৎস (২৪)।

এ ঘটনায় গত সোমবার নির্যাতিত কলেজছাত্র তন্ময়ের বাবা তালা সদরের জাতপুর গ্রামের শেখ আজিজুর রহমান বাদী হয়ে ওই পাঁচ নেতাকর্মীর নামে তালা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ভুক্তভোগী তন্ময় জাতপুর টেকনিক্যাল কলেজ থেকে এইচএসসিতে জিপিএ প্লাস পেয়ে বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য খুলনায় কোচিং করছেন।

নির্যাতনের শিকার তন্ময় বলেন, ছাত্রলীগ কর্মী নাহিদ হাসান উৎসের মাধ্যমে আমাকে ফোন করে ডেকে নিয়ে আকস্মিক মারপিট শুরু করে উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ আকিব, শ্রমিক লীগ নেতা সৌমিত্র চক্রবর্তী, ছাত্রলীগ কর্মী জে. আর সুমন ও জয়। তালা কলেজের পশ্চিম পাশে একটি রুমের মধ্যে নিয়ে টানা ৫ ঘণ্টা আটকে রেখে নির্যাতন চালায় তারা। হাতে, পায়ে নির্মমভাবে মারপিট করে মাথা ন্যাড়া করে দেয়। এরপর বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণ করে এবং বাড়িতে ফোন দিয়ে দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।

তন্ময় আরও জানান, যে রুমের মধ্যে আমাকে আটকে রেখেছিল সেটা সম্ভবত কলেজের ছাত্রবাস কক্ষ। ওই রুমের মধ্যে মারপিট করার জন্য বেল্ট, লাঠিসোঁটা এখনো রয়েছে। সেখান থেকে আমার চাচাতো ভাইয়েরা আমাকে উদ্ধার করে।

তন্ময়ের বাবা আজিজুর রহমান বলেন, রোববার সন্ধ্যায় ছেলেকে উদ্ধারের পর তালা হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেয়া হয়। এরপর রাতে থানায় এজাহার জমা দিতে গেলে থানার মধ্যেই হুমকি দিতে থাকে আসামিরা। নিরাপত্তাহীনতার কারণে গত সোমবার তন্ময়কে বাড়িতে নেয়া হয়।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, ছাত্রলীগের নেতা আকিবের সাথে একটি মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সম্প্রতি আকিবের সাথে সেই সম্পর্ক ভেঙে যায়। নতুন করে সম্পর্ক গড়ে উঠে তন্ময়ের সাথে। তন্ময়ের ওপর প্রতিশোধ নিতে আকিব তাকে নাহিদের মাধ্যমে ডেকে এনে মারপিট ও মাথা টাক করে দেয়।

এ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তালা থানার এসআই চন্দন জানান, মামলার প্রধান আসা‌মি আকিবকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।