ঢাকা ০৩:৪০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ময়মনসিংহে নারী উদ্যোক্তাদের পণ্য মেলা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট : ০৭:২৭:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • / 121

ময়মনসিংহ নগরীর শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন পার্কের ‘বৈশাখী মঞ্চে’ এ, ই-কমার্স এন্টারপ্রাইজ নামের একটি অনলাইন প্রেইজভিত্তিক জনপ্রিয় প্রতিষ্ঠানের উদ্দ্যোগে অনুষ্ঠিত হচ্ছে নারী উদ্যোক্তাদের অংশগ্রহণে পণ্য পদর্শণী মেলা। গত মঙ্গলবার ১৪ ফেব্রুয়ারি সকাল ৮টার মেলার উদ্বোধন করেন ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটু। মেলা চলে শুক্রবার ১৭ ফেব্রুয়ারি রাত ৮টা পর্যন্ত।

নারী উদ্যোক্তাদের পণ্যের প্রচার ও প্রসার ঘটিয়ে তাদের অনুপ্রেরণা জোগাতে এবং উদ্যোক্তা ও ভোক্তার মাঝে সেতুবন্ধন গড়ে তুলতে ই-কমার্স এন্টারপ্রাইজের এ আয়েজন। উন্নত বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে নারী ক্ষমতায়ণ ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে সৃষ্টিশীল নারীদের তৈরি গহনা, বাঁশের বিভিন্ন আসবাবপত্র, পিঠা-পুলি, নারী-পুরুষ ও শিশুদের জন্য পাঞ্জাবী, ফতুয়া শাড়ি, থ্রি-পিস, ব্যাগ, ভুট্টার আচার, মসলার চা, পাটের পলিথিনসহ বিভিন্ন পণ্যের সমাবেশ ঘটেছে নারী উদ্যোক্তাদের এই মেলায়। এসব পণ্যের প্রতি দর্শকদের বেশ আগ্রহ দেখা গেছে। বিক্রিও হয়েছে ভালো।

দেশের অনলাইন ভিত্তিক পেইজগুলোর বেশিরভাগ উদ্যোক্তা দেখা যায় এই মেলায়। এসব পণ্য তারা অনলাইনে বিক্রি করে থাকেন, তাই পণ্যের ক্রেতারা তা ছুঁয়ে দেখার সুযোগ পান না। তাই এই মেলায় আগত অতিথিরা যেন তাদের পণ্য ছুঁয়ে দেখতে পারেন এবং এতে উদ্যোক্তারা আরও উৎসাহিত হতে পারেন।

অনলাইন ভিত্তিক পেইজ ‘নাইন’ এর স্বত্বাধীকারী জুয়েনা জান্নাত জুঁই বলেন, এ মেলায় অংশ নেওয়া সকল উদ্যোক্তাই নারী। প্রত্যেকটি মানুষের মধ্যে ট্যালেন্ট আছে, এই নারীরা তাদের সংসার সামলিয়ে কিছু সৃজনশীল কাজ করে এই মেলার মাধ্যেমে সেই পণ্যগুলো। নারী ক্ষমতায়ন ও নারী উন্নয়নের সফলতা যেন ঘরে ঘরে সবার কাছে পৌঁছাতে পারে সেজন্যই আমাদের আজকের এই আয়োজন।

ই-কমার্স এন্টারপ্রাইজের এর প্রতিষ্ঠাতা ও মেলায় আয়োজক মাসরুর আহমেদ তালুকদার বলেন, দেশের অর্থনীতিতে সচল রাখতে নারীদের সক্রিয় অবদান রয়েছে। এই সংখ্যা আরো বৃদ্ধি পেলে বাংলাদেশকে একটি উন্নত দেশে উন্নীত করা সম্ভব। দেশের প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে নারীদের অর্থনৈতিক কাজে সম্পৃক্ত হওয়ার সুযোগ কম থাকায় এবং সামাজিক প্রতিবন্ধকতার জন্য নারীরা পিছিয়ে রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, যারা নারী ক্ষমতায়নে বিশ্বাসী, নারীর অর্থনৈতিক মুক্তিতে বিশ্বাসী তারা এসম মেলায় আসবেন এবং কাজের সুযোগের সৃষ্টিশীল কাজের ক্ষেত্রে সহযোগিতা করবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ময়মনসিংহে নারী উদ্যোক্তাদের পণ্য মেলা

আপডেট : ০৭:২৭:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

ময়মনসিংহ নগরীর শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন পার্কের ‘বৈশাখী মঞ্চে’ এ, ই-কমার্স এন্টারপ্রাইজ নামের একটি অনলাইন প্রেইজভিত্তিক জনপ্রিয় প্রতিষ্ঠানের উদ্দ্যোগে অনুষ্ঠিত হচ্ছে নারী উদ্যোক্তাদের অংশগ্রহণে পণ্য পদর্শণী মেলা। গত মঙ্গলবার ১৪ ফেব্রুয়ারি সকাল ৮টার মেলার উদ্বোধন করেন ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটু। মেলা চলে শুক্রবার ১৭ ফেব্রুয়ারি রাত ৮টা পর্যন্ত।

নারী উদ্যোক্তাদের পণ্যের প্রচার ও প্রসার ঘটিয়ে তাদের অনুপ্রেরণা জোগাতে এবং উদ্যোক্তা ও ভোক্তার মাঝে সেতুবন্ধন গড়ে তুলতে ই-কমার্স এন্টারপ্রাইজের এ আয়েজন। উন্নত বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে নারী ক্ষমতায়ণ ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে সৃষ্টিশীল নারীদের তৈরি গহনা, বাঁশের বিভিন্ন আসবাবপত্র, পিঠা-পুলি, নারী-পুরুষ ও শিশুদের জন্য পাঞ্জাবী, ফতুয়া শাড়ি, থ্রি-পিস, ব্যাগ, ভুট্টার আচার, মসলার চা, পাটের পলিথিনসহ বিভিন্ন পণ্যের সমাবেশ ঘটেছে নারী উদ্যোক্তাদের এই মেলায়। এসব পণ্যের প্রতি দর্শকদের বেশ আগ্রহ দেখা গেছে। বিক্রিও হয়েছে ভালো।

দেশের অনলাইন ভিত্তিক পেইজগুলোর বেশিরভাগ উদ্যোক্তা দেখা যায় এই মেলায়। এসব পণ্য তারা অনলাইনে বিক্রি করে থাকেন, তাই পণ্যের ক্রেতারা তা ছুঁয়ে দেখার সুযোগ পান না। তাই এই মেলায় আগত অতিথিরা যেন তাদের পণ্য ছুঁয়ে দেখতে পারেন এবং এতে উদ্যোক্তারা আরও উৎসাহিত হতে পারেন।

অনলাইন ভিত্তিক পেইজ ‘নাইন’ এর স্বত্বাধীকারী জুয়েনা জান্নাত জুঁই বলেন, এ মেলায় অংশ নেওয়া সকল উদ্যোক্তাই নারী। প্রত্যেকটি মানুষের মধ্যে ট্যালেন্ট আছে, এই নারীরা তাদের সংসার সামলিয়ে কিছু সৃজনশীল কাজ করে এই মেলার মাধ্যেমে সেই পণ্যগুলো। নারী ক্ষমতায়ন ও নারী উন্নয়নের সফলতা যেন ঘরে ঘরে সবার কাছে পৌঁছাতে পারে সেজন্যই আমাদের আজকের এই আয়োজন।

ই-কমার্স এন্টারপ্রাইজের এর প্রতিষ্ঠাতা ও মেলায় আয়োজক মাসরুর আহমেদ তালুকদার বলেন, দেশের অর্থনীতিতে সচল রাখতে নারীদের সক্রিয় অবদান রয়েছে। এই সংখ্যা আরো বৃদ্ধি পেলে বাংলাদেশকে একটি উন্নত দেশে উন্নীত করা সম্ভব। দেশের প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে নারীদের অর্থনৈতিক কাজে সম্পৃক্ত হওয়ার সুযোগ কম থাকায় এবং সামাজিক প্রতিবন্ধকতার জন্য নারীরা পিছিয়ে রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, যারা নারী ক্ষমতায়নে বিশ্বাসী, নারীর অর্থনৈতিক মুক্তিতে বিশ্বাসী তারা এসম মেলায় আসবেন এবং কাজের সুযোগের সৃষ্টিশীল কাজের ক্ষেত্রে সহযোগিতা করবেন।