ঢাকা ০৫:৫৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

খুলনা বিভাগে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড

::খুলনা প্রতিনিধি::

প্রাণঘাতী ভাইরাস করোনায় আক্রান্ত হয়ে খুলনা বিভাগে একদিনে সর্বোচ্চ ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। রোববার দুপুরে বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক রাশেদা সুলতানা এই তথ্য জানান।

খুলনা বিভাগের মধ্যে সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে কুষ্টিয়ায়। সেখানে সাতজনের মৃত্যু হয়। কুষ্টিয়া ছাড়াও খুলনায় দুইজন, বাগেরহাটে দুইজন, সাতক্ষীরায় দুইজন, যশোরে চারজন, নড়াইলে একজন, মাগুরায় একজন, চুয়াডাঙ্গায় পাঁচজন এবং ঝিনাইদহে চারজন মারা গেছেন অদৃশ্য এই ভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে।

এর আগে গতকাল শনিবার খুলনা বিভাগে ২২ জনের মৃত্যু হয়েছিলো। তার আগের দিন ১৭ জুন মারা গিয়েছিলো ১৮ জন।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জেলাভিত্তিক করোনা সংক্রান্ত তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, খুলনায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ২২৩ জন। করোনায় এই জেলায় মোট মৃত্যু হয়েছে ২০৮ জনের। বাগেরহাটে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৬৮ জনের। করোনায় এই জেলায় মোট মারা গেছেন ৬৫ জন।

সাতক্ষীরায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ১৪ জন। মোট মৃত্যু হয়েছে ৬২ জনের। যশোরে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৭৩ জনের। মোট মৃত্যু হয়েছে ১০৮ জনের। নড়াইলে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৪৪ জন। এই জেলায় করোনায় মোট মারা গেছেন ৩১ জন। মাগুরায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে কোনো রোগী শনাক্ত হয়নি। এই জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মোট মারা গেছেন ২৫ জন।

মেহেরপুরে নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ১৯ জন। মোট মৃতের সংখ্যা ৩৩ জন। ঝিনাইদহে গত একদিনে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৯০ জনের। তাদের নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা ৬৬ জন। কুষ্টিয়ায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ১৬৪ জন। মোট মারা গেছে ১৫৪ জন। চুয়াডাঙ্গায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৬৮ জন। মোট মারা গেছেন ৭৩ জন।

ট্যাগস :

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

খুলনা বিভাগে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড

আপডেট সময় : ০২:০৩:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২০ জুন ২০২১
::খুলনা প্রতিনিধি::

প্রাণঘাতী ভাইরাস করোনায় আক্রান্ত হয়ে খুলনা বিভাগে একদিনে সর্বোচ্চ ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। রোববার দুপুরে বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক রাশেদা সুলতানা এই তথ্য জানান।

খুলনা বিভাগের মধ্যে সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে কুষ্টিয়ায়। সেখানে সাতজনের মৃত্যু হয়। কুষ্টিয়া ছাড়াও খুলনায় দুইজন, বাগেরহাটে দুইজন, সাতক্ষীরায় দুইজন, যশোরে চারজন, নড়াইলে একজন, মাগুরায় একজন, চুয়াডাঙ্গায় পাঁচজন এবং ঝিনাইদহে চারজন মারা গেছেন অদৃশ্য এই ভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে।

এর আগে গতকাল শনিবার খুলনা বিভাগে ২২ জনের মৃত্যু হয়েছিলো। তার আগের দিন ১৭ জুন মারা গিয়েছিলো ১৮ জন।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জেলাভিত্তিক করোনা সংক্রান্ত তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, খুলনায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ২২৩ জন। করোনায় এই জেলায় মোট মৃত্যু হয়েছে ২০৮ জনের। বাগেরহাটে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৬৮ জনের। করোনায় এই জেলায় মোট মারা গেছেন ৬৫ জন।

সাতক্ষীরায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ১৪ জন। মোট মৃত্যু হয়েছে ৬২ জনের। যশোরে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৭৩ জনের। মোট মৃত্যু হয়েছে ১০৮ জনের। নড়াইলে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৪৪ জন। এই জেলায় করোনায় মোট মারা গেছেন ৩১ জন। মাগুরায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে কোনো রোগী শনাক্ত হয়নি। এই জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মোট মারা গেছেন ২৫ জন।

মেহেরপুরে নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ১৯ জন। মোট মৃতের সংখ্যা ৩৩ জন। ঝিনাইদহে গত একদিনে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৯০ জনের। তাদের নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা ৬৬ জন। কুষ্টিয়ায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ১৬৪ জন। মোট মারা গেছে ১৫৪ জন। চুয়াডাঙ্গায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৬৮ জন। মোট মারা গেছেন ৭৩ জন।