ঢাকা ০৭:২২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সদরঘাটে লঞ্চের কেবিনে নারীর মরদেহ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ১১:১০:২৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৯ অগাস্ট ২০২১
  • / 114
রাজধানী ঢাকার সদরঘাট কেন্দ্রীয় টার্মিনাল থেকে বরিশাল থেকে ছেড়ে আসা এমভি পারাবত ১২ লঞ্চের ৩১২ নম্বর কেবিনে থেকে এক নারীর (৩৫) ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মিটফোর্ড হাসপাতালের মর্গে মরদেহ পাঠানো হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত ওই নারীর নাম-পরিচয় জানা যায়নি। তবে ঐ নারীর মাথায় সিঁদুর ও হাতে শাঁখা দেখে সনাতন ধর্মাবলম্বী বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।

রোববার সদরঘাট নৌ-পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কাইয়ুম আলী সরকার গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

মরদেহ উদ্ধার হওয়া ওই নারীর ছোট ভ্যানিটি ব্যাগ থেকে লঞ্চের একটি টিকিট পাওয়া যায়। টিকিটে আনোয়ার হোসেনের নাম লেখা ছিল।

ক্যাবিন বয়সূত্রে জানা যায়, রাত ১১টার দিকে বরিশাল থেকে পারাবত-১২ লঞ্চ ছেড়ে আসে। সর্বশেষ রাত দশটায় কেবিনে বসে রাতের খাবার খেয়েছিলেন ওই নারী।

এ ঘটনায় লঞ্চের সিসি ক্যামেরার একটি ভিডিও ফুটেজ উদ্ধার করা হয়েছে। তাতে দেখা যায়, বৃদ্ধ বয়স্ক একটি লোক ঐ নারীকে লঞ্চে কেবিন পর্যন্ত উঠিয়ে দিয়ে তারপর চলে যায়।

সদরঘাট নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির এসআই শহীদ জানান, সকালে নারীর ঝুলন্ত মরদেহের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ভেতর থেকে ছিটকিনি লাগানো অবস্থায় দরজা ভেঙে নারীর লাশটি উদ্ধার করা হয়।

লঞ্চকর্মীদের বরাত দিয়ে এসআই শহীদ জানান, রাতে লঞ্চ ছাড়ার সময় কেবিন বয়ের কাছে অর্ডার দিয়ে খাবার খান ওই নারী। সকালে লঞ্চটি সদরঘাটে পৌঁছানোর পর সব যাত্রী নেমে গেলেও ওই কেবিনটি তালাবদ্ধ দেখতে পায় পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা। মাস্টার চাবি দিয়ে তালা খুললেও ভেতর থেকে ছিটকিনি লাগানো থাকায় দরজা খুলতে পারে না লঞ্চ কর্তৃপক্ষ।

এরপর বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তারা পুলিশকে খবর দিলে ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হয়ে লঞ্চ কর্তৃপক্ষের সামনে তালা ভেঙে একজন নারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারের পর তার মরদেহ মিটফোর্ড হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলে জানা গেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

সদরঘাটে লঞ্চের কেবিনে নারীর মরদেহ

আপডেট : ১১:১০:২৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৯ অগাস্ট ২০২১
রাজধানী ঢাকার সদরঘাট কেন্দ্রীয় টার্মিনাল থেকে বরিশাল থেকে ছেড়ে আসা এমভি পারাবত ১২ লঞ্চের ৩১২ নম্বর কেবিনে থেকে এক নারীর (৩৫) ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মিটফোর্ড হাসপাতালের মর্গে মরদেহ পাঠানো হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত ওই নারীর নাম-পরিচয় জানা যায়নি। তবে ঐ নারীর মাথায় সিঁদুর ও হাতে শাঁখা দেখে সনাতন ধর্মাবলম্বী বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।

রোববার সদরঘাট নৌ-পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কাইয়ুম আলী সরকার গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

মরদেহ উদ্ধার হওয়া ওই নারীর ছোট ভ্যানিটি ব্যাগ থেকে লঞ্চের একটি টিকিট পাওয়া যায়। টিকিটে আনোয়ার হোসেনের নাম লেখা ছিল।

ক্যাবিন বয়সূত্রে জানা যায়, রাত ১১টার দিকে বরিশাল থেকে পারাবত-১২ লঞ্চ ছেড়ে আসে। সর্বশেষ রাত দশটায় কেবিনে বসে রাতের খাবার খেয়েছিলেন ওই নারী।

এ ঘটনায় লঞ্চের সিসি ক্যামেরার একটি ভিডিও ফুটেজ উদ্ধার করা হয়েছে। তাতে দেখা যায়, বৃদ্ধ বয়স্ক একটি লোক ঐ নারীকে লঞ্চে কেবিন পর্যন্ত উঠিয়ে দিয়ে তারপর চলে যায়।

সদরঘাট নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির এসআই শহীদ জানান, সকালে নারীর ঝুলন্ত মরদেহের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ভেতর থেকে ছিটকিনি লাগানো অবস্থায় দরজা ভেঙে নারীর লাশটি উদ্ধার করা হয়।

লঞ্চকর্মীদের বরাত দিয়ে এসআই শহীদ জানান, রাতে লঞ্চ ছাড়ার সময় কেবিন বয়ের কাছে অর্ডার দিয়ে খাবার খান ওই নারী। সকালে লঞ্চটি সদরঘাটে পৌঁছানোর পর সব যাত্রী নেমে গেলেও ওই কেবিনটি তালাবদ্ধ দেখতে পায় পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা। মাস্টার চাবি দিয়ে তালা খুললেও ভেতর থেকে ছিটকিনি লাগানো থাকায় দরজা খুলতে পারে না লঞ্চ কর্তৃপক্ষ।

এরপর বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তারা পুলিশকে খবর দিলে ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হয়ে লঞ্চ কর্তৃপক্ষের সামনে তালা ভেঙে একজন নারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারের পর তার মরদেহ মিটফোর্ড হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলে জানা গেছে।