ঢাকা ০১:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সাতক্ষীরায় ডাক্তারের বিরুদ্ধে মানববন্ধন  

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ১২:১১:৩০ অপরাহ্ন, সোমাবার, ৩০ অগাস্ট ২০২১
  • / 107
সাতক্ষীরায় চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগে ডাক্তারের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছেন এলাকাবাসী। সোমবার সাতক্ষীরা শহরের মাহমুদপুর বাদামতলা বাজারে সদর হাসপাতালের অর্থপোডিক্স ডাক্তার ও সাতক্ষীরা ট্রমা এন্ড অর্থপেডিক্স কেয়ার ক্লিনিকের সত্বাধিকারি ডা. মো. হাফিজউল্লাহার অপচিকিৎসার প্রতিবাদে এই মানববন্ধন করেন।

সাতক্ষীরা সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সহকারী কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল করিম সরদারের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, অপচিকিৎসায় পঙ্গুতের শিকার মাহমুদপুর গ্রামের কামরুল ইসলাম, স্ত্রী মেহেরুণনেছা, ব্যবসায়ী হাজী কওছার আলী, সাজ্জাত আলী সরদার, কলেজ ছাত্র আল-আমিন, রেজানুর রহমান প্রমূখ।

বক্তারা বলেন, ২০২০ সালের ১৯ আগস্ট সড়ক দূর্ঘটনায় আহত হয়ে মাহমুদপুর গ্রামের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী কামরুল ইসলাম সাতক্ষীরা ট্রমা এন্ড অর্থপেডিক্স কেয়ার ক্লিনিকে ভর্তি হন। এর পর অর্থপেডিক্স সার্জন ডা. মো. হাফিজউল্লাহ তার ডান পায়ে অস্ত্রপচার করেন। এতে পায়ের ভাল অংশ কেটে হাড় থেকে মাংশ আলাদা করে ফেলায় পচন শুরু হয়। তার ক্লিনিকে টানা ৪৭ দিন রাখার পর রোগীর অবস্থা বেগতিক দেখে তড়িঘড়ি করে ১লাখ ২৪ হাজার টাকা নিয়ে রোগীকে বের করে দেন।

এক পর্যায়ে কামরুল ইসলামের ক্ষতিগ্রস্থ ডান পা কেটে বাদ দিতে হয়। পঙ্গুতের কারণে একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি কামরুল ইসলামসহ পরিবারটি এখন মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

অপচিকিৎসক ডাক্তার হাফিজুল্লাহার দৃষ্টন্তমূলক শাস্তি ও ক্ষতিপুরণ চেয়ে সিভিল সার্জনের নিকট অভিযোগ দিলেও তিনি কোন ব্যবস্থা নেননি।

সরকারি সদর হাসপাতালের জুনিয়র অর্থপোডিক্স সার্জন ডা. হাফিজুল্লাহার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

সাতক্ষীরায় ডাক্তারের বিরুদ্ধে মানববন্ধন  

আপডেট : ১২:১১:৩০ অপরাহ্ন, সোমাবার, ৩০ অগাস্ট ২০২১
সাতক্ষীরায় চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগে ডাক্তারের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছেন এলাকাবাসী। সোমবার সাতক্ষীরা শহরের মাহমুদপুর বাদামতলা বাজারে সদর হাসপাতালের অর্থপোডিক্স ডাক্তার ও সাতক্ষীরা ট্রমা এন্ড অর্থপেডিক্স কেয়ার ক্লিনিকের সত্বাধিকারি ডা. মো. হাফিজউল্লাহার অপচিকিৎসার প্রতিবাদে এই মানববন্ধন করেন।

সাতক্ষীরা সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সহকারী কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল করিম সরদারের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, অপচিকিৎসায় পঙ্গুতের শিকার মাহমুদপুর গ্রামের কামরুল ইসলাম, স্ত্রী মেহেরুণনেছা, ব্যবসায়ী হাজী কওছার আলী, সাজ্জাত আলী সরদার, কলেজ ছাত্র আল-আমিন, রেজানুর রহমান প্রমূখ।

বক্তারা বলেন, ২০২০ সালের ১৯ আগস্ট সড়ক দূর্ঘটনায় আহত হয়ে মাহমুদপুর গ্রামের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী কামরুল ইসলাম সাতক্ষীরা ট্রমা এন্ড অর্থপেডিক্স কেয়ার ক্লিনিকে ভর্তি হন। এর পর অর্থপেডিক্স সার্জন ডা. মো. হাফিজউল্লাহ তার ডান পায়ে অস্ত্রপচার করেন। এতে পায়ের ভাল অংশ কেটে হাড় থেকে মাংশ আলাদা করে ফেলায় পচন শুরু হয়। তার ক্লিনিকে টানা ৪৭ দিন রাখার পর রোগীর অবস্থা বেগতিক দেখে তড়িঘড়ি করে ১লাখ ২৪ হাজার টাকা নিয়ে রোগীকে বের করে দেন।

এক পর্যায়ে কামরুল ইসলামের ক্ষতিগ্রস্থ ডান পা কেটে বাদ দিতে হয়। পঙ্গুতের কারণে একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি কামরুল ইসলামসহ পরিবারটি এখন মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

অপচিকিৎসক ডাক্তার হাফিজুল্লাহার দৃষ্টন্তমূলক শাস্তি ও ক্ষতিপুরণ চেয়ে সিভিল সার্জনের নিকট অভিযোগ দিলেও তিনি কোন ব্যবস্থা নেননি।

সরকারি সদর হাসপাতালের জুনিয়র অর্থপোডিক্স সার্জন ডা. হাফিজুল্লাহার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।