বগুড়া তিনমাথা ভায়া-কাহালু দরগাহাট সড়কের বেহাল দশা!

বগুড়া প্রতিনিধি;
  • প্রকাশিত: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২:৩৩ অপরাহ্ণ | আপডেট: ১ মাস আগে
সড়কের বেহাল দশা

বগুড়া তিনমাথা ভায়া কাহালু-দরগাহাট সড়কের বেহালদশায় বিভিন্ন শ্রেণিপেশার কয়েক হাজার মানুষ প্রতিদিন সীমাহীন দূর্ভোগের মধ্য দিয়ে যাতায়াত করছেন। এই রাস্তায় প্রতিনিয়ত অহরহ ঘটছে দুর্ঘটনা।

খুবই ঝুঁকিপূর্ণ এই সড়কে চলাচল করা যানবাহন মাঝে-মধ্যে বিকল হয়ে গেলে যাত্রীরা বিলম্বনার শিকার হন। জানা গেছে, বগুড়া তিনমাথা থেকে কাহালু চারমাথা হয়ে দরগাহাটে গিয়ে মহাসড়কে উঠে এই রাস্তা। প্রায় ১১ কি. মি. এই রাস্তাটি কয়েক বছর আগে সম্প্রসারণ করে কার্পেটিং করা হয়।

এই রাস্তা দিয়ে সিএনজিসহ মিল-কারখানার মালামাল বহনের জন্য অসংখ্য ভারী যানবাহন চলাচল করে সব-সময়। ধারণ ক্ষমতার অধিক ভারী যানবাহন চলাচল ও কার্পেটিং কাজ নিম্নমানের হওয়া অল্পদিনের মধ্যই রাস্তার কার্পেটিং উঠে গিয়ে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়। প্রায় দুবছর আগে থেকে এই রাস্তার সৃষ্ট গর্ত কোথাও কার্পেটি আবার কোথায় ইট সলিং করে রাস্তায় যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করা হলেও তা হিতে বিপরীত হয়েছে।

অপরিকল্পিত টুকিটাকি সংস্কার কাজের জন্য এই রাস্তায় চলাচল করা যানবাহনের ঝাঁকুনিতে ভালো মানুষও অনেক সময় অসুস্থ হয়ে পড়েন। আর অসুস্থ লোক আরও অসুস্থ হয়ে পড়েন। এদিকে জটিল কোন রোগীকে এই রাস্তা দিয়ে নিয়ে গেলে পথিমধ্যেই সেই রোগীর অবস্থা কাহিল হয়ে পড়ে এবং দূর্ঘটনারও আশঙ্কা থাকে। গত দুবছরে টুকিটাকি সংস্কার কোন কাজে না লাগলেও রাস্তাটির নতুন করে কার্পেটিং এর উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।

রাস্তাটি নতুন করে কার্পেটিং কাজ না হওয়ায় ভুক্তভোগীরা সব-সময় ক্ষোভ প্রকাশ করেন। বগুড়া সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আসাদুজ্জামানের সাথে মোবাইল ফোনে কথা বলা হলে তিনি জানান, যেখানে গর্তের সৃষ্টি হচ্ছে সেখানে সাময়িকভাবে মেরামত করা হয়।

নতুন কার্পেটিংয়ের বিষয়ে তিনি জানান, এই ১১ কি. মি. রাস্তার নতুন করে কার্পেটিং করার জন্য ১২ কোটি টাকা বরাদ্দ চেয়ে আমরা একটি প্রস্তাবনা পাঠিয়েছি উর্ধতন কতৃপক্ষের কাছে। তবে এখনো আমাদের প্রস্তাবনার আলোকে প্রকল্পটির অনুমোদন আসেনি।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...