পরকীয়া প্রেমিকের সাথে ঘুরতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার গৃহবধূ

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি;
  • প্রকাশিত: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২:০৪ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৪ সপ্তাহ আগে
ছবি সংগৃহীত

হবিগঞ্জের মাধবপুরে গৃহবধূকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় নারীসহ ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডের পূর্ব মাধবপুরের ইদ্রিস আলীর ছেলে বাদশা পাঠান, সোয়াব মিয়ার ছেলে জীবন মিয়া, কাটিহারা গ্রামের মাহবুব মিয়ার মেয়ে লাকী আক্তার ও বিজয়নগর উপজেলার এক্তিয়ারপুর গ্রামের আবু সায়েদ মিয়ার ছেলে আতিক মিয়া।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সহকারী পুলিশ সুপার (মাধবপুর-চুনারুঘাট সার্কেল) মহসীন আল মুরাদ।

পুলিশ সূত্রে ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, মাধবপুরের বাঘাসুরা গ্রামের বিদেশফেরত এক বিবাহিত নারীর সঙ্গে বিজয়নগরের এক্তিয়ারপুর গ্রামের আতিক মিয়া নামে এক ব্যক্তির প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বুধবার দুপুরে দেখা করার জন্য মাধবপুরে নিয়ে যাওয়া হয় ওই নারীকে এবং পরে বিয়ের আশ্বাস দেন আতিক। এরপর তারা একান্ত সময় কাঠানোর জন্য মাধবপুর পৌর শহরের কাটিহারা গ্রামে লাকী আক্তারের বাসায় ৬০০ টাকা ভাড়া দিয়ে একটি কক্ষে ওঠেন। পরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে জোর ধর্ষণ করেন কথিত প্রেমিক আতিক।

এ সময় পরকীয়া প্রেমিক-প্রেমিকাকে আপত্তির অবস্থায় দেখতে পায় বাদশা পাঠান ও জীবন মিয়া নামে দুজন ব্যক্তি। পরে ওই নারীকে তারা ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে ভিকটিম বিষয়টি থানায় জানালে পুলিশ রাতেই বাড়ির মালিক লাকী আক্তারসহ ৪ জনকে গ্রেপ্তার করে। এখনো একজন পলাতক রয়েছে। এ ঘটনায় রাতেই ভিকটিম বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন।

মাধবপুর থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান, এ ঘটনায় নারীসহ ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকালে ভিকটিমকে উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। গ্রেপ্তারকৃতদের আদালতে পাঠানো হবে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...