স্কুল-কলেজের মেয়েরাই সাগরের ‘ধর্ষণ টার্গেট’!

নিজস্ব প্রতিবেদক;
  • প্রকাশিত: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১:৩৫ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৪ সপ্তাহ আগে
ফাইল ছবি

কক্সবাজারের একটি বেসরকারি রিসোর্ট থেকে উদ্ধার হওয়া নারীর লাশের রহস্য উন্মোচন করেছে র‌্যাব। র‌্যাব বলছে, কক্সবাজারের সেই হোটেলে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে ওঠার পর সেই নারীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে সাগর। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে ধস্তাধস্তি শুরু হয়, ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে সাগর ভিকটিমের গলা চেপে ধরে দেয়ালে ধাক্কা দিলে ওই নারী মেঝেতে পড়ে যায়। আঘাতের কারণে তার মৃত্যু হয়। পরে সে হোটেল থেকে পালিয়ে যায়।

শনিবার রাজধানীর কাওরান বাজারের র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-১০ এর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মাহফুজুর রহমান।

র‍্যাব জানায়, স্কুল-কলেজ পড়ুয়া মেয়েদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিভিন্ন এলাকায় ঘুরতে নিয়ে যাওয়ার কৌশলে ধর্ষণ করতো সাগর। পূর্ব পরিচয়ের জেরে কক্সবাজারের সেই হোটেলেও ভিকটিম ওই তরুণীকে নিয়ে যায় সাগর। হোটেলটিতে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে তারা ওঠে। পরবর্তীতে জোরপূর্বক ধর্ষণ ও হত্যা করে এই নারীকে।

এছাড়াও একাধিক নারীকে মিথ্যা প্রেমের ফাঁদে ফেলে অনৈতিক কর্মকাণ্ডে বাধ্য করেছে বলেও র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে সাগর।

এর আগে শনিবার র‌্যাব-১০ এর একটি আভিধানিক দল রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকার সায়দাবাদ বাসস্ট্যান্ড এর টোল প্লাজার সামনে থেকে সাগর মিজি (২৪) নামের ঐ যুবককে গ্রেপ্তার করে। এসময় তার কাছে থাকা ভিকটিমের মোবাইলসহ তিনটি মোবাইল ও নগদ ১৫ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

প্রসঙ্গত, গত ১৮ সেপ্টেম্বর সকালে কক্সবাজারের কলাতলী এলাকার আমারই রিসোর্ট নামক হোটেলে একটি কক্ষ ভাড়া নেয় সাগর। ২০ সেপ্টেম্বর আসামি সাগর ওই তরুণীকে (২৬) নিয়ে একটি রুমে উঠে। ২১ সেপ্টেম্বর সকাল আনুমানিক ১০টার দিকে হোটেল কর্তৃপক্ষ রুমের ভেতর কোনও সাড়া-শব্দ না পেলে দরজা ভেঙে মৃতদেহ দেখে পুলিশকে খবর দেয় হোটেলের লোকজন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...