উদ্বোধন হলো আইপিডিসি প্রিয় শিক্ষক সম্মাননা তৃতীয় আয়োজনের

নিজস্ব প্রতিবেদক;
  • প্রকাশিত: ৫ অক্টোবর ২০২১, ২:২৮ অপরাহ্ণ | আপডেট: ২ সপ্তাহ আগে
ছবি সংগৃহীত

অনুষ্ঠিত হলো ‘আইপিডিসি প্রিয় শিক্ষক সম্মাননা ২০২১’-এর উদ্বোধনী পর্ব। ৫ অক্টোবর বিশ্ব শিক্ষক দিবস উপলক্ষ্যে ২০১৯ এবং ২০২০ সালের ধারাবাহিকতায় তৃতীয়বারের মতো এই সন্মাননা আয়োজনের উদ্বোধন ঘোষণা করলো আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেড এবং দৈনিক প্রথম আলো।
রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেল-এ আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রূপালী পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদ। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেড-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও মমিনুল ইসলাম এবং ধন্যবাদ বক্তব্য রাখেন দৈনিক প্রথম আলো’র সম্পাদক মতিউর রহমান। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি’র উপাচার্য ড. চৌধুরী মোফিজুর রহমান; নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আতিক ইসলাম; এবং ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস-এর উপাচার্য ড. শামসাদ মুর্তজা প্রমুখ। উভয় প্রতিষ্ঠানের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, ঢাকার বিভিন্ন স্বনামধন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে শিক্ষকমণ্ডলী এবং গণমাধ্যমকর্মীরাও অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।
আয়োজনে বক্তৃতাকালে অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদ বলেন, “সকলকে বিশ্ব শিক্ষক দিবসের শুভেচ্ছা। আমাদের সকলের জীবনেই শিক্ষকদের ভূমিকা অনস্বীকার্য। শিক্ষা যদি জাতির মেরুদন্ড হয়, তবে শিক্ষকরাই সেই মেরুদন্ড মজবুত করে তোলে। তাই তাদের প্রতি আমরা যতটা শ্রদ্ধাশীল হবো, জাতি হিসেবে ততোটা সামনের দিকে এগিয়ে যেতে পারবো। এমন একটি আয়োজনের জন্য আইপিডিসি এবং প্রথম আলো-কে অসংখ্য ধন্যবাদ।”
আয়োজনে বক্তব্য রাখার এক পর্যায়ে আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেড-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও মমিনুল ইসলাম বলেন, “উপস্থিত সকলকে বিশেষ করে শ্রদ্ধেয় শিক্ষকমন্ডলীকে আন্তরিক শুভেচ্ছা। উন্নত দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে বিশ্বদরবারে প্রতিষ্ঠিত করতে আমাদের শিক্ষা খাতকে আরও উন্নত করতে হবে এবং সেই গুরুদায়িত্ব নিতে হবে শিক্ষকদেরই। তবে শিক্ষকরা যেন কোনভাবে অবহেলিত না হন, সেই দায়িত্ব আমাদের নিতে হবে। সকল শিক্ষকই যোগ্য সম্মান ও সম্মানী পাওয়ার যোগ্য। তাই আসুন, উন্নত জাতি গঠনে আমরা শিক্ষকদের জীবনযাত্রার মান উন্নত করার চেষ্টা করি।”

দৈনিক প্রথম আলো’র সম্পাদক মতিউর রহমান বলেন, “আজকের এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের জন্য উপস্থিত সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ। তৃতীয়বারের মতো আমরা এই অনুষ্ঠান আয়োজন করেছি এবং শিক্ষকদের যোগ্য সম্মান জানানোর আমাদের উদ্দেশ্যপূরণে সফল হচ্ছি বলে আমি মনে করি। এমন একটি আয়োজনে আমাদের সঙ্গী হওয়ার জন্য আইপিডিসি-কে অসংখ্য ধন্যবাদ।”
শিক্ষক মাত্রই পরম শ্রদ্ধেয় ব্যক্তিত্ব। তবে তাদের মধ্যে কিছু শিক্ষক থাকেন যাদের পাঠদানের পদ্ধতি, দিকনির্দেশনা, আদর-স্নেহ এমনকি শাসনও আমাদের মনে বিশেষ জায়গা করে নেয়। তাঁরা শিক্ষার্থীর জীবন ও মননে রাখেন গভীর ছাপ। তাঁরা হয়ে থাকেন আমাদের প্রিয় শিক্ষক। দেশজুড়ে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা এমন অনন্য শিক্ষকদের খুঁজে বের করে স্বীকৃত প্রদানের লক্ষ্যে আইপিডিসি এবং প্রথম আলো’র এই যৌথ উদ্যোগ।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...