মার্কিন পত্রিকার উদ্ধৃতি দিয়ে মোদির নামে প্রচার জালিয়াতি

;
  • প্রকাশিত: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১:৫৩ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৩ সপ্তাহ আগে
No Caption

জো বাইডেন প্রেসিডেন্ট পদে বসার পর প্রথম যুক্তরাষ্ট্র সফর সেরে ভারতে ফিরেছেন নরেন্দ্র মোদি। এ যাত্রায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বাইডেন, ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের পাশাপাশি দেশটির শীর্ষ সংস্থাগুলোর প্রধান এবং কোয়াড বৈঠকেও অংশ নিয়েছিলেন তিনি। করোনা আবহে দীর্ঘদিন পর ভারতের প্রধানমন্ত্রী বিদেশ যাত্রা নিয়ে সরগরম ছিল দেশ-বিদেশের সংবাদমাধ্যম।

বুধবার কলকাতা থেকে প্রকাশিত আনন্দবাজার অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়, সেই সূত্রেই নেটমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে একটি সংবাদপত্রের প্রচ্ছদের ছবি। তাতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদির ছবি দিয়ে লেখা রয়েছে বেশ কয়েকটি প্রশস্তিসূচক লাইন। কিন্তু গোল বেধেছে সেই ছবির সত্যতা নিয়েই।

যুক্তরাষ্ট্র সফর সেরে ভারতে ফেরার পরই একটি ছবি নেটমাধ্যমে ভেসে ওঠে। ছবিটি যুক্তরাষ্ট্রের দৈনিক সংবাদপত্র দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস-এর প্রথম পাতার। যেখানে দেখা যাচ্ছে, নরেন্দ্র মোদির একটি ছবি এবং তাকে ‘দুনিয়ার শেষ, সর্বোৎকৃষ্ট ভরসাস্থল’ হিসেবে অভিহিত করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের নাম করা সংবাদপত্রে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর এমন ভূয়সী প্রশংসায় স্বভাবতই তোলপাড় পড়ে যায় দেশে। ঝড়ের গতিতে হোয়াটসঅ্যাপে ছড়িয়ে পড়তে থাকে ছবিটি। কিন্তু তার পরই প্রকাশ্যে এল আসল তথ্য। যুক্তরাষ্ট্রের দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস বিবৃতি দিয়ে জানিয়ে দিল, তাদের নাম ব্যবহার করে মোদিকে নিয়ে এ প্রচার মিথ্যা। এমন কোনও সংবাদ তারা পরিবেশন করেননি।

দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমসে প্রকাশিত হয়েছে বলে দাবি করা ভুয়া ছবি (বামে), যেখানে সেপ্টেম্বর বানানে ভুল। ডানে মূল ছবি।

নেটমাধ্যমে সেই ছবি ভাইরাল হতেই শুরু হয় ফ্যাক্ট চেকিং। ধরা পড়ে, মোদির ছবি দেওয়া দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস-এর প্রচ্ছদে তারিখের জায়গায় ‘সেপ্টেম্বর’ বানানটি ভুল। মোদির যে ছবিটি ব্যবহার হয়েছে, সেটিও তার যুক্তরাষ্ট্র সফরের নয়। গত ১২ মার্চ সবরমতী আশ্রম থেকে গুজরাতে ‘আজাদি কা অমৃত মহোৎসব’-এর সূচনার সময় তোলা। যখন আশ্রম ঘুরে দেখার পর ভিজিটর্স বুকে স্বাক্ষর করেছিলেন মোদি। সেই ছবি এভাবে ব্যবহৃত হওয়ার সত্য জানাজানি হতেই নেটমাধ্যমে শুরু হয়ে গেছে কটূক্তি ও ব্যঙ্গের বন্যা।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...