বিষধর গোখরা ভাড়া করে স্ত্রীকে খুন

অনলাইন ডেস্ক;
  • প্রকাশিত: ১৩ অক্টোবর ২০২১, ১২:১৩ অপরাহ্ণ | আপডেট: ২ সপ্তাহ আগে

ছবি সংগৃহীত

বিষধর গোখরা সাপের ছোবল খাইয়ে নিজের স্ত্রীকে হত্যা! কথাটি শুনে অবাক হলেও এমন ঘটনা ঘটেছে ভারতের কেরালার কল্লাম জেলায়। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শামীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন কেরালার আদালত।

গত বছরের মে মাসে স্ত্রীকে অদ্ভুত এ উপায়ে হত্যার ঘটনা ঘটে। সম্প্রতি এ মামলার রায়ের পর নতুন করে আলোচনায় উঠে আসে এ ঘটনা।

ভারতের সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্থান টাইমসের খবরে বলা হয়, ২৫ বছর বয়সী স্ত্রী উথরাকে বিষধর সাপের ছোবল খাইয়ে খুন করেছেন সুরয নামে ওই যুবক।

পুলিশের তদন্তে উঠে এসেছে, একবার নয়, বরং দুইবার সাপের ছোবল খাইয়ে ২৫ বছর বয়সী স্ত্রী উথরাকে খুন করে সুরয। সেই মামলায় আদালতে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ হয়েছে। ভারতীয় দণ্ডবিধির চারটি ধারায় অপরাধী প্রমাণিত হয়েছে সুরয।

জানা গিয়েছে, ২০২০ সালের ৭ মে মারা যান উথরা। সাপের ছোবলে মৃত্যু হয় তাঁর। এর আগে ২০২০ সালের মার্চেই তাঁকে সাপে কামড়েছিল। প্রথমবার সাপের শিকার হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিল উথরা। দীর্ঘ ৫২ দিন হাসপাতালে ছিলেন তিনি। এই সময় তাঁর প্লাস্টিক সার্জারিও হয়। প্রথমবার একটি ভাইপার সাপ কামড়েছিল তাঁকে। পরে মে মাসে আরও বিষধর কোবরা সাপ কামড়ায় উথরাকে। এরপর আর তাঁকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি।

প্রাথমিক ভাবে সবাই বিষয়টিকে দুর্ঘটনা হিসেবেই দেখেছিলেন। তবে সন্দেহ হয়েছিল উথরার বাবা আর ভাইয়ের। তাঁরা পুলিশে অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা দায়ের করেন।

তদন্ত করে পুলিশ জানতে পারে, উথরার মৃত্যুর বিষয়ে অনেকদিন ধরে পরিকল্পনা করছি সুরয। সেই এই লক্ষ্যে দুই বার সাপ ভাড়া নেয় সুরেশ নামক একজনের কাছ থেকে। প্রথম ছোবলের পর উথরার শরীর ভেঙে পড়ে। সেই পরিস্থিতিতেই বিষধর সাপ গোখরার ছোবল খাইয়ে নিজের স্ত্রীকে খুন করে সুরয।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...