টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া: ক্ষতিপূরণ চান ১০ হাজার অস্ট্রেলীয়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক;
  • প্রকাশিত: ১৬ নভেম্বর ২০২১, ১১:২৯ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ২ সপ্তাহ আগে

ছবি সংগৃহীত

সবচেয়ে বেশি মানুষ করোনা টিকা নিয়েছেন- এমন দেশগুলোর তালিকায় কিছুটা পেছনের সারিতেই ছিল অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু চলতি বছরের মাঝামাঝিতে তারা বিপুল সংখ্যক লোকজনকে করোনা টিকার আওতায় নিয়ে আসে।

এ টিকা দিতে অস্ট্রেলিয়ার সরকারের ৫ কোটি ডলারের (অস্ট্রেলীয়) বেশি ব্যয় হয়েছে। কিন্তু এ ব্যয় করেই সব শেষ হয়ে যাচ্ছে না। টিকা গ্রহণকারীরা অস্ট্রেলিয়া সরকারের ওপর নতুনভাবে একটি চাপ প্রয়োগ করছেন।

তারা বলছেন, টিকা নেয়ার কারণে তারা শরীরে যেসব পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া মোকাবেলা করেছেন, সেজন্য তাদেরকে সরকারের পক্ষ থেকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। সিডনি মনিং হেরাল্ডের বরাত দিয়ে মঙ্গলবার এনডিটিভি এ খবর জানিয়েছে।

বিরল পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কারণে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে উপার্জিত অর্থ খরচ হয়েছে বলে দাবি করেছেন অন্তত ১০ হাজার অস্ট্রেলীয়। তারা দেশটির সরকারের পক্ষ থেকে ক্ষতিপূরণ দাবিকারীদের একটি তালিকায়ও অন্তর্ভূক্ত হয়েছেন।

অস্ট্রেলিয়ার গণমাধ্যমটি জানায়, ক্ষতিপূরণ বাবত প্রত্যেককে ৫ হাজার ডলার (অস্ট্রেলীয়) করে দেয়া হতে পারে। এভাবে পুরো ১০ হাজার জনের আবেদন গৃহীত হলে সরকারের ব্যয় হতে পারে ৫ কোটি ডলার।

অস্ট্রেলিয়া থেরাফিটিক গুডস এডমিনিস্ট্রেশনের (টিজিএ) নথি থেকে জানা যায়, দেশটিতে যে ৩ কোটি ৬৮ লাখ মানুষকে করোনা টিকা দেয়া হয়েছে, তাদের মধ্যে অন্তত ৭৯ হাজার জন তীব্র পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার অভিযোগ এনেছেন। এসব পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার মধ্যে রয়েছে- বাহুতে তীব্র ব্যাথা, মাথা ধরা, জ্বর ও ঠাণ্ডার সমস্যা।

টিজিএ বলছে, তারা ফাইজার ইনকোরপোরেশনের টিকা গ্রহণকারীদের মধ্যে এমন ২৮৮ জনকে পেয়েছেন, যাদের হৃদপিণ্ডে প্রদাহের ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।

একইভাবে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা গ্রহণকারীদের মধ্যে ১৬০ জনের ক্ষেত্রে রক্ত জমাট বাধার ঘটনা বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। টিজিএ-এর তথ্য অনুযায়ী, পুরো টিকা প্রদান কর্মসূচিতে অন্তত ৯ জন মারা গেছেন, যাদের অধিকাংশেরই বয়স ৬৫ বছরের বেশি।

সিডনি ও মেলবোর্নে করোনার ডেল্টা ধরনের সংক্রমণ বাড়ার প্রেক্ষাপটে শুরুতে দ্রুত গতিতে না হলেও চলতি বছরের দ্বিতীয়ার্ধে অস্ট্রেলিয়া ব্যাপক হারে করোনা টিকা প্রদান শুরু করে। দেশটিতে টিকা নিতে আগ্রহীর সংখ্যাও বাড়ছে।

এ পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস (রাজধানী সিডনি) অঙ্গরাজ্যে ২১২ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। অপরদিকে দেশটির ভিক্টরিয়া অঙ্গরাজ্যে ৭৯৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...