ঢাকা ০৯:০৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিতীয় বৃহত্তম ব্যাংক সিলিকন ভ্যালি দেউলিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট : ০৪:৫৫:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ মার্চ ২০২৩
  • / 142
বড় ধরনের মন্দার কবলে পড়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালি ব্যাংক (এসভিবি)। আপাতত ব্যাংকটির সব কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা সিএনএন’র এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। মার্কিন ইতিহাসে ২০০৮ সালের পর এটি দেশটির ব্যাংকিং খাতে সবচেয়ে বড় আর্থিক বিপর্যয়।

সিএনএন জানিয়েছে, স্থানীয় সময় শুক্রবার ব্যাংকটি বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় নিয়ন্ত্রক সংস্থা। এই সিদ্ধান্তের পর ব্যাংকটির যাবতীয় আমানতের নিয়ন্ত্রণ ইউএস ফেডারেল ডিপোজিট ইনস্যুরেন্স করপোরেশনের (এফডিআইসি) হাতে চলে গেছে।

এফডিআইসি দায়িত্ব নেয়ার মাধ্যমে তারা আমানতকারী এবং পাওনাদারসহ গ্রাহকদের অর্থ ফেরত দিতে ব্যবস্থা নেবে। সিলিকন ভ্যালি ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় এবং সব শাখা ১৩ মার্চ আবার খুলবে।

মূলত ব্যাংকটির একটি ঘোষণাই কাল হয়ে দাঁড়ায় তাদের জন্য। গত বুধবার স্টার্টআপের জন্য ঋণ দেয়া সিলিকন ভ্যালি ব্যাংক ব্যালান্স শিট বা স্থিতিপত্র শক্তিশালী করতে তারা ২২৫ কোটি ডলার সমমূল্যের শেয়ার বিক্রি করার ঘোষণা দেয়। এ ঘোষণায় ব্যাংকের গ্রাহক ও বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। পরদিন ব্যাংকটির শেয়ারের দর ৬০ শতাংশ কমে যায়।

গত বৃহস্পতিবার ব্যাংকটির আমানতকারীরা তুলে নেন ৪ হাজার ২০০ কোটি ডলার। বিনিয়োগকারীরা ভাবেন, এ ঘোষণায় ব্যাংকটি থেকে অর্থ তুলে নেয়ার প্রবণতা আরও বেড়ে যেতে পারে। ফলে শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের ব্যাংক খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিলিকন ভ্যালি ব্যাংক বন্ধ করে দেয়।

পশ্চিমা সংবাদমাধ্যমসহ আর্থিক খাতের বিশেষজ্ঞরা বলছে, ২০০৮ সালের আর্থিক সংকটের পর এই প্রথম বড় ধরণের বিপর্যয়ে মার্কিন ব্যাংক। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে দ্বিতীয় বৃহত্তম ব্যাংক ধস এটি। অনেকে আবার একে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভের ধারাবাহিকভাবে নীতি সুদহার বৃদ্ধির রেজাল্ট বলছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিতীয় বৃহত্তম ব্যাংক সিলিকন ভ্যালি দেউলিয়া

আপডেট : ০৪:৫৫:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ মার্চ ২০২৩
বড় ধরনের মন্দার কবলে পড়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালি ব্যাংক (এসভিবি)। আপাতত ব্যাংকটির সব কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা সিএনএন’র এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। মার্কিন ইতিহাসে ২০০৮ সালের পর এটি দেশটির ব্যাংকিং খাতে সবচেয়ে বড় আর্থিক বিপর্যয়।

সিএনএন জানিয়েছে, স্থানীয় সময় শুক্রবার ব্যাংকটি বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় নিয়ন্ত্রক সংস্থা। এই সিদ্ধান্তের পর ব্যাংকটির যাবতীয় আমানতের নিয়ন্ত্রণ ইউএস ফেডারেল ডিপোজিট ইনস্যুরেন্স করপোরেশনের (এফডিআইসি) হাতে চলে গেছে।

এফডিআইসি দায়িত্ব নেয়ার মাধ্যমে তারা আমানতকারী এবং পাওনাদারসহ গ্রাহকদের অর্থ ফেরত দিতে ব্যবস্থা নেবে। সিলিকন ভ্যালি ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় এবং সব শাখা ১৩ মার্চ আবার খুলবে।

মূলত ব্যাংকটির একটি ঘোষণাই কাল হয়ে দাঁড়ায় তাদের জন্য। গত বুধবার স্টার্টআপের জন্য ঋণ দেয়া সিলিকন ভ্যালি ব্যাংক ব্যালান্স শিট বা স্থিতিপত্র শক্তিশালী করতে তারা ২২৫ কোটি ডলার সমমূল্যের শেয়ার বিক্রি করার ঘোষণা দেয়। এ ঘোষণায় ব্যাংকের গ্রাহক ও বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। পরদিন ব্যাংকটির শেয়ারের দর ৬০ শতাংশ কমে যায়।

গত বৃহস্পতিবার ব্যাংকটির আমানতকারীরা তুলে নেন ৪ হাজার ২০০ কোটি ডলার। বিনিয়োগকারীরা ভাবেন, এ ঘোষণায় ব্যাংকটি থেকে অর্থ তুলে নেয়ার প্রবণতা আরও বেড়ে যেতে পারে। ফলে শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের ব্যাংক খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিলিকন ভ্যালি ব্যাংক বন্ধ করে দেয়।

পশ্চিমা সংবাদমাধ্যমসহ আর্থিক খাতের বিশেষজ্ঞরা বলছে, ২০০৮ সালের আর্থিক সংকটের পর এই প্রথম বড় ধরণের বিপর্যয়ে মার্কিন ব্যাংক। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে দ্বিতীয় বৃহত্তম ব্যাংক ধস এটি। অনেকে আবার একে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভের ধারাবাহিকভাবে নীতি সুদহার বৃদ্ধির রেজাল্ট বলছেন।