ঢাকা ০৬:৩৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইমরান খানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি অভিযান স্থগিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট : ০৭:১৩:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মার্চ ২০২৩
  • / 107
পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) সমর্থকদের সঙ্গে বুধবার দিনভর উত্তেজনার পর দলটির চেয়ারম্যান ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে গ্রেপ্তারে পিছু হটলেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। ইমরান খানকে গ্রেপ্তারে চলমান অভিযান বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টা পর্যন্ত বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন লাহোর হাইকোর্ট। তবে তোশাখানা মামলায় জারি করা গ্রেপ্তারি পরোয়ানা বাতিল চেয়ে পিটিআইয়ের প্রধানের করা আবেদন নাকচ করে দিয়েছেন ইসলামাবাদ হাইকোর্ট।

তাই বৃহস্পতিবার সকাল থেকে আবার গ্রেপ্তারি অভিযানে মল রোডে জড়ো হতে শুরু করেছে পুলিশ। তবে লাহোর হাইকোর্ট (এলএইচসি) বিচারপতি তারিক সেলিম শেখ ইমরানকে গ্রেপ্তারি অভিযান আগামী ১৭ মার্চ পর্যন্ত স্থগিত করেছেন।

এর আগে বেলা ১২টার দিকে জামান পার্ক থেকে ডন ডটকমের প্রতিবেদক জানান, পিটিআই কর্মীরা ক্যানাল রোডে লাঠিসোটা নিয়ে জড়ো হয়েছিল। তারা কন্টেইনার নিয়ে ইমরানের বাসভবন অবরোধ করে ও তাদের দলীয় প্রধানের পক্ষে স্লোগান দেয়। ইমরান খানের সমর্থকরা জামান পার্কের দিকে যাওয়ার রাস্তার একাধিক অংশে পাথরও ফেলেছিল। ইমরান খান বর্তমানে তার লাহোরের বাসভবনে অবস্থান করছেন।

ইমরানের বাসভবন থেকে মাত্র পাঁচ মিনিটের দূরত্বে অবস্থিত মল রোডে জড়ো হতে শুরু করেছে পুলিশ। ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, শিপিং কনটেইনারসহ একাধিক ট্রাক মল রোড ও ক্যানাল রোডের মোড়ে দাঁড়িয়ে আছে। ভিডিও ফুটেজে পাঞ্জাব পুলিশকেও দেখা যাচ্ছে।

এদিকে একাধিক টুইট বার্তায় ইমরানের দলের নেতা মুসাররাত জামশেদ চিমাকে উদ্ধৃত করে পিটিআই বলেছে, জামান পার্কের দিকে যাওয়ার রাস্তাগুলো অবরুদ্ধ করা হচ্ছে এবং পাঞ্জাবের প্রধান মহাসড়কগুলোতেও কন্টেইনার স্থাপন করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, আমরা তাদের সতর্ক করতে চাই, আমরা জাতির নেতাকে রক্ষা করব এবং আমরা পাকিস্তানের ভবিষ্যৎ কয়েকটি পরিবারের কাছে বন্দি হতে দেবো না।

চিমা আরও দাবি করেছেন, লাহোর হাইকোর্ট পুলিশকে অভিযান পরিচালনা করতে বাধা দিয়েছে। কিন্তু এরপরও এই প্রশাসন যদি আদালতের আদেশ অমান্য করে, তাহলে তারা জনগণের মুখোমুখি হবে।

এদিকে ইসলামাবাদ পুলিশ জানিয়েছে, জামান পার্কে সংঘর্ষের সময় তাদের নয়জন কর্মকর্তা আহত হয়েছেন। যার মধ্যে একজন এখনও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। টুইটারে দেয়া এক বার্তায় তারা জানিয়েছে, নিরস্ত্র পুলিশ অফিসারদের নির্যাতন এবং রাস্তা অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছিল।

পুলিশ আদালতের আদেশ পালন করছে উল্লেখ করে আরও বলা হয়েছে, ইসলামাবাদ ক্যাপিটাল পুলিশ পেশাদারভাবে তার দায়িত্ব পালন করেছে এবং তারা দায়িত্বপালন করে যাবে। সূত্র দ্য ডন

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ইমরান খানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি অভিযান স্থগিত

আপডেট : ০৭:১৩:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মার্চ ২০২৩
পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) সমর্থকদের সঙ্গে বুধবার দিনভর উত্তেজনার পর দলটির চেয়ারম্যান ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে গ্রেপ্তারে পিছু হটলেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। ইমরান খানকে গ্রেপ্তারে চলমান অভিযান বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টা পর্যন্ত বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন লাহোর হাইকোর্ট। তবে তোশাখানা মামলায় জারি করা গ্রেপ্তারি পরোয়ানা বাতিল চেয়ে পিটিআইয়ের প্রধানের করা আবেদন নাকচ করে দিয়েছেন ইসলামাবাদ হাইকোর্ট।

তাই বৃহস্পতিবার সকাল থেকে আবার গ্রেপ্তারি অভিযানে মল রোডে জড়ো হতে শুরু করেছে পুলিশ। তবে লাহোর হাইকোর্ট (এলএইচসি) বিচারপতি তারিক সেলিম শেখ ইমরানকে গ্রেপ্তারি অভিযান আগামী ১৭ মার্চ পর্যন্ত স্থগিত করেছেন।

এর আগে বেলা ১২টার দিকে জামান পার্ক থেকে ডন ডটকমের প্রতিবেদক জানান, পিটিআই কর্মীরা ক্যানাল রোডে লাঠিসোটা নিয়ে জড়ো হয়েছিল। তারা কন্টেইনার নিয়ে ইমরানের বাসভবন অবরোধ করে ও তাদের দলীয় প্রধানের পক্ষে স্লোগান দেয়। ইমরান খানের সমর্থকরা জামান পার্কের দিকে যাওয়ার রাস্তার একাধিক অংশে পাথরও ফেলেছিল। ইমরান খান বর্তমানে তার লাহোরের বাসভবনে অবস্থান করছেন।

ইমরানের বাসভবন থেকে মাত্র পাঁচ মিনিটের দূরত্বে অবস্থিত মল রোডে জড়ো হতে শুরু করেছে পুলিশ। ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, শিপিং কনটেইনারসহ একাধিক ট্রাক মল রোড ও ক্যানাল রোডের মোড়ে দাঁড়িয়ে আছে। ভিডিও ফুটেজে পাঞ্জাব পুলিশকেও দেখা যাচ্ছে।

এদিকে একাধিক টুইট বার্তায় ইমরানের দলের নেতা মুসাররাত জামশেদ চিমাকে উদ্ধৃত করে পিটিআই বলেছে, জামান পার্কের দিকে যাওয়ার রাস্তাগুলো অবরুদ্ধ করা হচ্ছে এবং পাঞ্জাবের প্রধান মহাসড়কগুলোতেও কন্টেইনার স্থাপন করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, আমরা তাদের সতর্ক করতে চাই, আমরা জাতির নেতাকে রক্ষা করব এবং আমরা পাকিস্তানের ভবিষ্যৎ কয়েকটি পরিবারের কাছে বন্দি হতে দেবো না।

চিমা আরও দাবি করেছেন, লাহোর হাইকোর্ট পুলিশকে অভিযান পরিচালনা করতে বাধা দিয়েছে। কিন্তু এরপরও এই প্রশাসন যদি আদালতের আদেশ অমান্য করে, তাহলে তারা জনগণের মুখোমুখি হবে।

এদিকে ইসলামাবাদ পুলিশ জানিয়েছে, জামান পার্কে সংঘর্ষের সময় তাদের নয়জন কর্মকর্তা আহত হয়েছেন। যার মধ্যে একজন এখনও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। টুইটারে দেয়া এক বার্তায় তারা জানিয়েছে, নিরস্ত্র পুলিশ অফিসারদের নির্যাতন এবং রাস্তা অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছিল।

পুলিশ আদালতের আদেশ পালন করছে উল্লেখ করে আরও বলা হয়েছে, ইসলামাবাদ ক্যাপিটাল পুলিশ পেশাদারভাবে তার দায়িত্ব পালন করেছে এবং তারা দায়িত্বপালন করে যাবে। সূত্র দ্য ডন