ঢাকা ০৯:২৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গাজায় ইসরায়েলি হামলা, নিহত বেড়ে ২২৭

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ০৬:৪১:১৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ মে ২০২১
  • / 207

ছবি: সংগৃহীত

::আন্তর্জাতিক ডেস্ক::

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় বসবাসকারী আরব নৃগোষ্ঠীর স্থানীয় ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদ এবং ইসরায়েলি বসতকারীদের (সেটলার) ভূমি দখলকে কেন্দ্র করে হামাস ও ইসরায়েলের সামরিক বাহিনীর মধ্যে শুরু হওয়া সংঘাত গড়িয়েছে দশম দিনে।

ইসরায়েলের সামরিক বাহিনীর হামলায় এ পর্যন্ত প্রাণ গেছে ২২৭ ফিলিস্তিনির, নিহতদের মধ্যে ৬৪ জন শিশু এবং ৩৮ জন নারী রয়েছেন।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা জানিয়েছে, সংঘর্ষ ও হামলার দশম দিনে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে যুদ্ধবিরতি নিয়ে আলোচনা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

আলোচনায় নেতানিয়াহুকে বাইডেন বলেছেন, অস্ত্রবিরতি কার্যকর করতে উভয়পক্ষের মধ্যে চলমান উত্তেজনা উল্লেখযোগ্য পরিমাণে হ্রাস পেতে দেখতে চান তিনি।

অবশ্য, বাইডেনের সঙ্গে ফোনালাপের পর নেতানিয়াহু বলেছেন, ‘লক্ষ্য অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত’ গাজায় হামলা চালিয়ে যেতে বদ্ধপরিকর তিনি। এছাড়া হামাস ও ইসরায়েলের মধ্যে কার্যকর অস্ত্রবিরতি বাস্তবায়নে কূটনৈতিক বিভিন্ন উদ্যোগও কার্যত ব্যর্থ হয়েছে।

রয়টার্স জানিয়েছে, হামলার মাধ্যমে গাজায় এখন পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৪০০ ভবন গুড়িয়ে দিয়েছে ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী। ধ্বংস হয়ে যাওয়া এই ভবনগুলোর মধ্যে বেশ কয়েকটি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রও রয়েছে।

এছাড়া সংঘাতে এখন পর্যন্ত গাজার কমপক্ষে অর্ধলক্ষ ফিলিস্তিনি ঘর-বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছেন। ইসরায়েলের বিমান হামলা ও কামানের গোলার আঘাত থেকে বাঁচতে নারী-শিশুসহ অসংখ্য বেসামরিক মানুষ জাতিসংঘ পরিচালিত ৫৮ টি স্কুলে আশ্রয় নিয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

গাজায় ইসরায়েলি হামলা, নিহত বেড়ে ২২৭

আপডেট : ০৬:৪১:১৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ মে ২০২১
::আন্তর্জাতিক ডেস্ক::

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় বসবাসকারী আরব নৃগোষ্ঠীর স্থানীয় ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদ এবং ইসরায়েলি বসতকারীদের (সেটলার) ভূমি দখলকে কেন্দ্র করে হামাস ও ইসরায়েলের সামরিক বাহিনীর মধ্যে শুরু হওয়া সংঘাত গড়িয়েছে দশম দিনে।

ইসরায়েলের সামরিক বাহিনীর হামলায় এ পর্যন্ত প্রাণ গেছে ২২৭ ফিলিস্তিনির, নিহতদের মধ্যে ৬৪ জন শিশু এবং ৩৮ জন নারী রয়েছেন।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা জানিয়েছে, সংঘর্ষ ও হামলার দশম দিনে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে যুদ্ধবিরতি নিয়ে আলোচনা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

আলোচনায় নেতানিয়াহুকে বাইডেন বলেছেন, অস্ত্রবিরতি কার্যকর করতে উভয়পক্ষের মধ্যে চলমান উত্তেজনা উল্লেখযোগ্য পরিমাণে হ্রাস পেতে দেখতে চান তিনি।

অবশ্য, বাইডেনের সঙ্গে ফোনালাপের পর নেতানিয়াহু বলেছেন, ‘লক্ষ্য অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত’ গাজায় হামলা চালিয়ে যেতে বদ্ধপরিকর তিনি। এছাড়া হামাস ও ইসরায়েলের মধ্যে কার্যকর অস্ত্রবিরতি বাস্তবায়নে কূটনৈতিক বিভিন্ন উদ্যোগও কার্যত ব্যর্থ হয়েছে।

রয়টার্স জানিয়েছে, হামলার মাধ্যমে গাজায় এখন পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৪০০ ভবন গুড়িয়ে দিয়েছে ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী। ধ্বংস হয়ে যাওয়া এই ভবনগুলোর মধ্যে বেশ কয়েকটি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রও রয়েছে।

এছাড়া সংঘাতে এখন পর্যন্ত গাজার কমপক্ষে অর্ধলক্ষ ফিলিস্তিনি ঘর-বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছেন। ইসরায়েলের বিমান হামলা ও কামানের গোলার আঘাত থেকে বাঁচতে নারী-শিশুসহ অসংখ্য বেসামরিক মানুষ জাতিসংঘ পরিচালিত ৫৮ টি স্কুলে আশ্রয় নিয়েছেন।