ঢাকা ০৬:০৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পশ্চিমাদের ‘বিশ্বাসঘাতক’ বললেন আফগান কমান্ডার

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ১১:১৪:৩২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ অগাস্ট ২০২১
  • / 119
যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমা মিত্ররা আফগান সেনাবাহিনীর সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে বলে মন্তব্য করেছেন আফগানিস্তান সেনাবাহিনীর লেফটেন্যান্ট জেনারেল সামি সাদাত।

বুধবার তার লেখা একটি নিবন্ধ প্রকাশ করেছে নিউ ইয়র্ক টাইমস। সেখানে সাদাত বলেছেন, তিনি ক্লান্ত, হতাশ, এবং ক্ষুব্ধ।

কিছুদিন আগেও আফগানিস্তান ন্যাশনাল আর্মির ২১৫ মাইওয়ান্ড কর্পসের কমান্ডার হিসেবে দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চচলে তালেবানের সঙ্গে লড়াইয়ে ছিলেন তিনি। অথচ বর্তমানে তার লেখা নিবন্ধনে উঠে এসেছে হতাশার চিত্র।

তিনি বলেন, তালেবান দেশের দখল নেয়ার পর আফগানিস্তানের রাজনীতিবিদ এবং এতদিনের আমেরিকান সহযোগীরা পালানোর জন্য বিমানবন্দরে যে নজিরবিহীন পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে, তার মধ্যে দিয়ে আফগান বাহিনীর সদস্যদের কার্যত শত্রুর মুখে ফেলে যাওয়া হয়েছে।

সামি লিখেছেন, আফগান সেনাদের যুদ্ধ করার ইচ্ছা হারিয়ে গিয়েছিল কারণ আমাদের অংশীদার আমেরিকানরা আমাদের আগেই ছেড়ে যায়। বিষয়টা আফগান সেনারা বোঝার পর তারা যুদ্ধ করার আগ্রহ হারান।

তিনি লিখেছেন, আমরা বিশ্বাসঘাতকতার শিকার। আশরাফ গনি দ্রুত সরে পড়ে তালেবানের সঙ্গে দর কষাকষিতে যান। তখন আর আমাদের করার কিছু ছিল না।

কাবুল আর ওয়াশিংটনের মধ্যে যে রাজনৈতিক দূরত্ব তৈরি হয়েছিল, তাতে আফগান বাহিনীর দমবন্ধ দশা হয়েছিল, তাদের কাজ ঠিকভাবে করার সামর্থ্যই কমে গিয়েছিল।

সামি সাদাত আফগানিস্তানের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে তালেবানের সঙ্গে লড়াইয়ে ১৫ হাজার সৈন্যের নেতৃত্ব দিয়েছেন ১১ মাস ধরে। সেই লড়াইয়ে শত শত অফিসার আর সৈন্যকে তাদের হারাতে হয়েছে।

সাদাতের ভাষায়, আফগানিস্তানের এই যুদ্ধ কেবল আফগানদের একার লড়াই ছিল না। এটা ছিল আন্তর্জাতিক একটি বাহিনীর যুদ্ধ। অনেক দেশের সেনাবাহিনী এর সঙ্গে যুক্ত ছিল। সেই দায়িত্ব কেবল আমাদের একার পক্ষে বহন করা, লড়াই চালিয়ে যাওয়া সম্ভব ছিল না। এটা একটা সামরিক পরাজয় বটে, কিন্তু এর মূলে রয়েছে রাজনৈতিক ব্যর্থতা।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

পশ্চিমাদের ‘বিশ্বাসঘাতক’ বললেন আফগান কমান্ডার

আপডেট : ১১:১৪:৩২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ অগাস্ট ২০২১
যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমা মিত্ররা আফগান সেনাবাহিনীর সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে বলে মন্তব্য করেছেন আফগানিস্তান সেনাবাহিনীর লেফটেন্যান্ট জেনারেল সামি সাদাত।

বুধবার তার লেখা একটি নিবন্ধ প্রকাশ করেছে নিউ ইয়র্ক টাইমস। সেখানে সাদাত বলেছেন, তিনি ক্লান্ত, হতাশ, এবং ক্ষুব্ধ।

কিছুদিন আগেও আফগানিস্তান ন্যাশনাল আর্মির ২১৫ মাইওয়ান্ড কর্পসের কমান্ডার হিসেবে দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চচলে তালেবানের সঙ্গে লড়াইয়ে ছিলেন তিনি। অথচ বর্তমানে তার লেখা নিবন্ধনে উঠে এসেছে হতাশার চিত্র।

তিনি বলেন, তালেবান দেশের দখল নেয়ার পর আফগানিস্তানের রাজনীতিবিদ এবং এতদিনের আমেরিকান সহযোগীরা পালানোর জন্য বিমানবন্দরে যে নজিরবিহীন পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে, তার মধ্যে দিয়ে আফগান বাহিনীর সদস্যদের কার্যত শত্রুর মুখে ফেলে যাওয়া হয়েছে।

সামি লিখেছেন, আফগান সেনাদের যুদ্ধ করার ইচ্ছা হারিয়ে গিয়েছিল কারণ আমাদের অংশীদার আমেরিকানরা আমাদের আগেই ছেড়ে যায়। বিষয়টা আফগান সেনারা বোঝার পর তারা যুদ্ধ করার আগ্রহ হারান।

তিনি লিখেছেন, আমরা বিশ্বাসঘাতকতার শিকার। আশরাফ গনি দ্রুত সরে পড়ে তালেবানের সঙ্গে দর কষাকষিতে যান। তখন আর আমাদের করার কিছু ছিল না।

কাবুল আর ওয়াশিংটনের মধ্যে যে রাজনৈতিক দূরত্ব তৈরি হয়েছিল, তাতে আফগান বাহিনীর দমবন্ধ দশা হয়েছিল, তাদের কাজ ঠিকভাবে করার সামর্থ্যই কমে গিয়েছিল।

সামি সাদাত আফগানিস্তানের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে তালেবানের সঙ্গে লড়াইয়ে ১৫ হাজার সৈন্যের নেতৃত্ব দিয়েছেন ১১ মাস ধরে। সেই লড়াইয়ে শত শত অফিসার আর সৈন্যকে তাদের হারাতে হয়েছে।

সাদাতের ভাষায়, আফগানিস্তানের এই যুদ্ধ কেবল আফগানদের একার লড়াই ছিল না। এটা ছিল আন্তর্জাতিক একটি বাহিনীর যুদ্ধ। অনেক দেশের সেনাবাহিনী এর সঙ্গে যুক্ত ছিল। সেই দায়িত্ব কেবল আমাদের একার পক্ষে বহন করা, লড়াই চালিয়ে যাওয়া সম্ভব ছিল না। এটা একটা সামরিক পরাজয় বটে, কিন্তু এর মূলে রয়েছে রাজনৈতিক ব্যর্থতা।