ঢাকা ০২:৪৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিমানবন্দর পরিচালনায় তুরস্কের সহায়তা চেয়েছে তালেবান

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ১১:১৬:৪৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ অগাস্ট ২০২১
  • / 129
আগামী ৩১ আগস্ট যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো বাহিনী আফগানিস্তান ছাড়ার পর কাবুল বিমানবন্দরের নিয়ন্ত্রণ চলে যাবে তালেবানের হাতে। এ পরিস্থিতিতে কাবুল বিমানবন্দর পরিচালনায় তুরস্কের কাছে কারিগরি সহায়তা চেয়েছে তালেবান। বুধবার তুরস্কের দুই কর্মকর্তা এ তথ্য জানিয়েছেন। খবর ডেইলি সাবাহ’র।

কর্মকর্তারা জানান, তারা বিমানবন্দর পরিচালনায় সহায়তা চাইলেও নির্দিষ্ট সময়সীমা অনুযায়ী ৩১ আগস্টের মধ্যে তুরস্কের সেনাদের আফগানিস্তান ছাড়তে হবে বলে জোর দিয়ে বলেছে।

তুরস্কের এক কর্মকর্তা বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে বলেন, ২০ বছর পর আবার আফগানিস্তানের ক্ষমতায় আসছে তালেবানরা। তাদের শর্তসাপেক্ষে করা অনুরোধ মেনে নিয়ে বিমানবন্দর পরিচালনার মতো কঠিন কাজের ভার নেয়া হবে কি হবে না, তা নিয়ে দ্বিধাগ্রস্ত অবস্থায় রয়েছে আঙ্কারা।

ন্যাটোর সদস্য দেশ তুরস্কের সেনারা আফগানিস্তান মিশনে অংশ নিয়েছিল। এখনও কাবুল বিমানবন্দরে দেশটির কয়েকশ সেনা অবস্থান করছেন। তুরস্কের কর্মকর্তারা জানান, তারা অল্প সময়ের বিজ্ঞপ্তিতেই আফগানিস্তান ছাড়তে প্রস্তুত আছেন।

অবশ্য তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান বলে আসছেন, আফগানিস্তানের ক্ষমতাসীনরা অনুরোধ করলে কাবুল বিমানবন্দরে সেনা উপস্থিতি থাকতে পারে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে তুরস্কের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বলেন, ‘তালেবান কাবুল বিমানবন্দর পরিচালনায় কারিগরি সহায়তা চেয়েছে।’ কিন্তু তালেবানের দাবি অনুযায়ী আফগানিস্তান থেকে তুরস্কের সব সেনা সরিয়ে নিলে সেখানে সম্ভাব্য যে কোনো মিশন জটিল হয়ে উঠবে বলেও তিনি মত প্রকাশ করেছেন।

তিনি বলেন, ‘তুরস্কের সশস্ত্র বাহিনী ছাড়া কর্মীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা খুবই ঝুঁকিপূর্ণ হবে।’ তিনি জানান, তালেবানের সঙ্গে এ প্রসঙ্গে আলোচনার পাশাপাশি আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহারের প্রস্তুতিও সম্পন্ন করে রাখা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

বিমানবন্দর পরিচালনায় তুরস্কের সহায়তা চেয়েছে তালেবান

আপডেট : ১১:১৬:৪৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ অগাস্ট ২০২১
আগামী ৩১ আগস্ট যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো বাহিনী আফগানিস্তান ছাড়ার পর কাবুল বিমানবন্দরের নিয়ন্ত্রণ চলে যাবে তালেবানের হাতে। এ পরিস্থিতিতে কাবুল বিমানবন্দর পরিচালনায় তুরস্কের কাছে কারিগরি সহায়তা চেয়েছে তালেবান। বুধবার তুরস্কের দুই কর্মকর্তা এ তথ্য জানিয়েছেন। খবর ডেইলি সাবাহ’র।

কর্মকর্তারা জানান, তারা বিমানবন্দর পরিচালনায় সহায়তা চাইলেও নির্দিষ্ট সময়সীমা অনুযায়ী ৩১ আগস্টের মধ্যে তুরস্কের সেনাদের আফগানিস্তান ছাড়তে হবে বলে জোর দিয়ে বলেছে।

তুরস্কের এক কর্মকর্তা বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে বলেন, ২০ বছর পর আবার আফগানিস্তানের ক্ষমতায় আসছে তালেবানরা। তাদের শর্তসাপেক্ষে করা অনুরোধ মেনে নিয়ে বিমানবন্দর পরিচালনার মতো কঠিন কাজের ভার নেয়া হবে কি হবে না, তা নিয়ে দ্বিধাগ্রস্ত অবস্থায় রয়েছে আঙ্কারা।

ন্যাটোর সদস্য দেশ তুরস্কের সেনারা আফগানিস্তান মিশনে অংশ নিয়েছিল। এখনও কাবুল বিমানবন্দরে দেশটির কয়েকশ সেনা অবস্থান করছেন। তুরস্কের কর্মকর্তারা জানান, তারা অল্প সময়ের বিজ্ঞপ্তিতেই আফগানিস্তান ছাড়তে প্রস্তুত আছেন।

অবশ্য তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান বলে আসছেন, আফগানিস্তানের ক্ষমতাসীনরা অনুরোধ করলে কাবুল বিমানবন্দরে সেনা উপস্থিতি থাকতে পারে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে তুরস্কের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বলেন, ‘তালেবান কাবুল বিমানবন্দর পরিচালনায় কারিগরি সহায়তা চেয়েছে।’ কিন্তু তালেবানের দাবি অনুযায়ী আফগানিস্তান থেকে তুরস্কের সব সেনা সরিয়ে নিলে সেখানে সম্ভাব্য যে কোনো মিশন জটিল হয়ে উঠবে বলেও তিনি মত প্রকাশ করেছেন।

তিনি বলেন, ‘তুরস্কের সশস্ত্র বাহিনী ছাড়া কর্মীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা খুবই ঝুঁকিপূর্ণ হবে।’ তিনি জানান, তালেবানের সঙ্গে এ প্রসঙ্গে আলোচনার পাশাপাশি আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহারের প্রস্তুতিও সম্পন্ন করে রাখা হয়েছে।