ঢাকা ০৩:৩৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মার্কিন ড্রোন হামলা অবৈধ, বলছে তালেবান

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ১২:০৩:১৫ অপরাহ্ন, সোমাবার, ৩০ অগাস্ট ২০২১
  • / 129

মার্কিন ড্রোন হামলায় ভস্মিভূত গাড়িটির সামনে এক তালেবান রক্ষী। ছবি: বিবিসি

আফগানিস্তানে চালানো ড্রোন হামলাকে অবৈধ বলে মন্তব্য করেছে তালেবান। তারা বলছে, অন্য দেশের মাটিতে (আফগানিস্তান) থেকে অবৈধভাবে কাজ করছে যুক্তরাষ্ট্র। সোমবার বিবিসি জানায়, এ হামলা নিয়ে চীনের একটি টেলিভিশনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তালেবান মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ এ মন্তব্য করেছেন।

গত রোববার কাবুল বিমানবন্দরের কাছে আবাসিক এলাকায় একটি গাড়ি লক্ষ্য করে ওই ড্রোন হামলা চালায় যুক্তরাষ্ট্র। এতে ছয় শিশুসহ অন্তত ১০ বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্র বলছে, এ নিয়ে তারা তদন্ত করবে।

কাবুলের হামিদ কারজাই বিমানবন্দরের কাছে জনারণ্যে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জোড়া বোমা হামলা হয়। এতে ১৭৫ জন নিহত হন, যা মধ্যে ১৩ মার্কিন সেনাও রয়েছেন।

সাম্প্রতিক সময়ের সবচেয়ে প্রাণঘাতি ওই হামলার দায় স্বীকার করেছে আইএসকেপি বা ইসলামিক স্ট্যাট খোরাসান প্রোভিন্স।

এর জেরে যুক্তরাষ্ট্র সতর্ক অবস্থায় রয়েছে। এ ড্রোন হামলার পর আরও হামলা চালানোর প্রস্তুতির কথাও জানিয়েছে দেশটি। তবে এরই মধ্যে সোমবার ভোর থেকে কাবুল বিমানবন্দরে ধোঁয়া উড়তে দেখা যায়।

বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানায়, কাবুল বিমানবন্দরের ভেতরে অন্তত পাঁচটি রকেট হামলা চালানো হয়েছে, যা যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষেপনাস্ত্র প্রতিরোধ ব্যবস্থা ঠেকিয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

মার্কিন ড্রোন হামলা অবৈধ, বলছে তালেবান

আপডেট : ১২:০৩:১৫ অপরাহ্ন, সোমাবার, ৩০ অগাস্ট ২০২১
আফগানিস্তানে চালানো ড্রোন হামলাকে অবৈধ বলে মন্তব্য করেছে তালেবান। তারা বলছে, অন্য দেশের মাটিতে (আফগানিস্তান) থেকে অবৈধভাবে কাজ করছে যুক্তরাষ্ট্র। সোমবার বিবিসি জানায়, এ হামলা নিয়ে চীনের একটি টেলিভিশনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তালেবান মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ এ মন্তব্য করেছেন।

গত রোববার কাবুল বিমানবন্দরের কাছে আবাসিক এলাকায় একটি গাড়ি লক্ষ্য করে ওই ড্রোন হামলা চালায় যুক্তরাষ্ট্র। এতে ছয় শিশুসহ অন্তত ১০ বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্র বলছে, এ নিয়ে তারা তদন্ত করবে।

কাবুলের হামিদ কারজাই বিমানবন্দরের কাছে জনারণ্যে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জোড়া বোমা হামলা হয়। এতে ১৭৫ জন নিহত হন, যা মধ্যে ১৩ মার্কিন সেনাও রয়েছেন।

সাম্প্রতিক সময়ের সবচেয়ে প্রাণঘাতি ওই হামলার দায় স্বীকার করেছে আইএসকেপি বা ইসলামিক স্ট্যাট খোরাসান প্রোভিন্স।

এর জেরে যুক্তরাষ্ট্র সতর্ক অবস্থায় রয়েছে। এ ড্রোন হামলার পর আরও হামলা চালানোর প্রস্তুতির কথাও জানিয়েছে দেশটি। তবে এরই মধ্যে সোমবার ভোর থেকে কাবুল বিমানবন্দরে ধোঁয়া উড়তে দেখা যায়।

বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানায়, কাবুল বিমানবন্দরের ভেতরে অন্তত পাঁচটি রকেট হামলা চালানো হয়েছে, যা যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষেপনাস্ত্র প্রতিরোধ ব্যবস্থা ঠেকিয়েছে।