সব স্তরে খাদ্য নিরাপদে ১০ বিধি-প্রবিধি কার্যকর

নিজস্ব প্রতিবেদক;
  • প্রকাশিত: ৯ নভেম্বর ২০২১, ১১:২৭ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ৩ সপ্তাহ আগে

ছবি সংগৃহীত

দেশের সব স্তরে খাদ্য নিরাপদ করতে এখন পর্যন্ত দশটি বিধি-প্রবিধিমালা করেছে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ।

বর্তমানে কার্যকর দশটি বিধি-প্রবিধিমালা হচ্ছে- নিরাপদ খাদ্য (খাদ্যদ্রব্য জব্দকরণ ও প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ পদ্ধতি) বিধিমালা, ২০১৪; খাদ্য সংযোজন দ্রব্য ব্যবহার প্রবিধানমালা, ২০১৭; রাসায়নিক দূষক, টক্সিন ও ক্ষতিকর অবশিষ্টাংশ প্রবিধানমালা, ২০১৭; মোড়কাবদ্ধ খাদ্য লেবেলিং প্রবিধানমালা, ২০১৭; খাদ্যের নমুনা সংগ্রহ, পরীক্ষা ও বিশ্লেষণ প্রবিধানমালা, ২০১৭; নিরাপদ খাদ্য (কারিগরি কমিটি) বিধিমালা, ২০১৭; নিরাপদ খাদ্য (স্বাস্থ্যসম্মত পরিবেশ সংরক্ষণ) প্রবিধানমালা, ২০১৮; খাদ্য স্পর্শক প্রবিধানমালা, ২০১৭; বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ কর্মচারী চাকরি প্রবিধানমালা, ২০১৮ ও বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ আর্থিক বিধিমালা, ২০১৯।

মঙ্গলবার হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টারে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ কর্তৃক আয়োজিত ‘নিরাপদ খাদ্য আইন, ২০১৩ ও বিধি-প্রবিধি সর্ম্পকে অবহিতকরণ ও জনসচেতনতা সৃষ্টিতে গণমাধ্যম’ শীর্ষক সেমিনারের মূল প্রবন্ধে এ তথ্য জানান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড মো. ইকবাল রউফ মামুন।

সেমিনারে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মো. আব্দুল কাইউম সরকারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। বিশেষ অতিথি ছিলেন খাদ্যসচিব ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম।

এসময় দেশের নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে করণীয় সম্পর্কে অধ্যাপক ইকবাল রউফ বলেন, নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের কাজের পরিধি সুনির্দিষ্ট করতে হবে। খাদ্য পরিদর্শনে সমন্বয় করতে হবে। নিরাপদ খাদ্য আইনের শাস্তি ও জরিমানার সঙ্গে অন্যান্য আইনের সমন্বয়ের তাগিদ দেন তিনি।

বিজ্ঞানভিত্তিক স্বতন্ত্র বিধি-প্রবিধি প্রণয়নের পরামর্শ দিয়ে সংস্থাটির সাবেক এই সদস্য জানান, ফুড সেফটি স্ট্যান্ডার্ড নির্ধারণ করা জরুরি। পাশাপাশি নিরাপদ খাদ্য উৎপাদনে খাদ্য উৎপাদনকারীদের করণীয় নির্ধারণ করতে হবে।

তিনি বলেন, খাদ্য পরিদর্শনে পরিদর্শকদের করণীয় নির্ধারণ ও হোটেল রেস্টুরেন্টে নিরাপদ খাবার নিশ্চিতকরণে প্রবিধি প্রণয়ন করা জরুরি। একই সঙ্গে প্রক্রিয়াজাত ও পথ-খাবারের নিরাপত্তা নিশ্চিতে প্রবিধি প্রণয়নের তাগিদ দেন তিনি।

এদিকে জাতিসংঘ ঘোষিত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এসডিজি) সঙ্গে নিরাপদ জড়িত। এসডিজি সূচকে বিশ্বের ১৬৫টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১০৯তম বলে জানানো হয় মূল প্রবন্ধে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...