ঢাকা ০৩:৩৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বরাদ্দ বেড়েছে বেসামরিক বিমান ও পর্যটনে

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ০২:০০:২৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩ জুন ২০২১
  • / 172
::নিজস্ব প্রতিবেদক::

প্রস্তাবিত ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেটে বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের জন্য বরাদ্দ বাড়ানো হয়েছে। এই খাতে চার হাজার ৩২ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। যা আগের বছর থেকে ৩৪৪ কোটি টাকা বেশি। আগের অর্থবছরে তিন হাজার ৬৮৮ কোটি টাকা প্রস্তাবিত বরাদ্দ ছিলো।

বৃহস্পতিবার বিকেলে জাতীয় সংসদে স্পিকার ড. শিরীন শারমিনের সভাপতিত্বে শুরু হওয়া বাজেট অধিবেশনে এ প্রস্তাব অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল তুলে ধরেন।

সর্বশেষ অর্থবছরে সংশোধিত বাজেটে এ মন্ত্রণালয়ে বরাদ্দ দেয়া হয়েছিলো দুই হাজার ৯৮৪ কোটি টাকা। সেই হিসেবে গত বছরের সংশোধিত বাজেটের তুলনায় এবারের বাজেটে ৩৫ শতাংশ বেশি বা এক হাজার ৪৮ কোটি টাকা বেশি বরাদ্দ দেয়ার হয়েছে।

তবে প্রস্তাবিত বাজেটে ২৩টি প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় উপকারভোগীর সংখ্যা প্রকাশ করা হয়েছে। এই সারণীর ২ নম্বরে ক্ষতিগ্রস্ত শিল্প ও সার্ভিস সেক্টরের প্রতিষ্ঠানসমূহের জন্য ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল সুবিধা দেয়া বাবদ ৪০ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী। শিল্প ও সেবা খাতের যেসব প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম চলমান আছে তারা এ বরাদ্দ থেকে প্রণোদনা পাবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

বরাদ্দ বেড়েছে বেসামরিক বিমান ও পর্যটনে

আপডেট : ০২:০০:২৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩ জুন ২০২১
::নিজস্ব প্রতিবেদক::

প্রস্তাবিত ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেটে বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের জন্য বরাদ্দ বাড়ানো হয়েছে। এই খাতে চার হাজার ৩২ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। যা আগের বছর থেকে ৩৪৪ কোটি টাকা বেশি। আগের অর্থবছরে তিন হাজার ৬৮৮ কোটি টাকা প্রস্তাবিত বরাদ্দ ছিলো।

বৃহস্পতিবার বিকেলে জাতীয় সংসদে স্পিকার ড. শিরীন শারমিনের সভাপতিত্বে শুরু হওয়া বাজেট অধিবেশনে এ প্রস্তাব অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল তুলে ধরেন।

সর্বশেষ অর্থবছরে সংশোধিত বাজেটে এ মন্ত্রণালয়ে বরাদ্দ দেয়া হয়েছিলো দুই হাজার ৯৮৪ কোটি টাকা। সেই হিসেবে গত বছরের সংশোধিত বাজেটের তুলনায় এবারের বাজেটে ৩৫ শতাংশ বেশি বা এক হাজার ৪৮ কোটি টাকা বেশি বরাদ্দ দেয়ার হয়েছে।

তবে প্রস্তাবিত বাজেটে ২৩টি প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় উপকারভোগীর সংখ্যা প্রকাশ করা হয়েছে। এই সারণীর ২ নম্বরে ক্ষতিগ্রস্ত শিল্প ও সার্ভিস সেক্টরের প্রতিষ্ঠানসমূহের জন্য ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল সুবিধা দেয়া বাবদ ৪০ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী। শিল্প ও সেবা খাতের যেসব প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম চলমান আছে তারা এ বরাদ্দ থেকে প্রণোদনা পাবেন।