ঢাকা ০২:৩৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দেশে আরো ১৭ জনের ভারতীয় ধরন শনাক্ত

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ০১:৪১:৪৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ৫ জুন ২০২১
  • / 146

সংগৃহীত ছবি

::নিজস্ব প্রতিবেদক::
দেশে আরো ১৭ জনের দেহে করোনার ভারতীয় ধরন ‌‘ডেল্টা’ শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে ঢাকার নবাবগঞ্জের ১০ জন এবং গোপালগঞ্জের তেলিভিটা গ্রামের ৭ জন।

নবাবগঞ্জ উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. শহিদুল ইসলাম জানান, গত মাসের ১৮ তারিখে তারা সবাই ট্রাকে করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে আশ্রয়ণ প্রকল্পের কাজের জন্য নবাবগঞ্জে এসেছিলেন। বিষয়টি জানতে পেরে ২৬ মে তাদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ঢাকার বক্ষব্যাধী হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়। এরপর গত বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দফায় পরীক্ষার ফলাফল পাওয়ার পর তাদের শরীরে করোনার ভারতীয় ধরন নিশ্চিত হয়।

তথ্য মতে, নবাবগঞ্জে শনাক্ত হওয়া সবাই শ্রমিক। তারা চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে নবাবগঞ্জে আশ্রয়ণ প্রকল্পের কাজে এসেছিলেন।

এদিকে, গোপালগঞ্জ সদরের বোলতলী ইউনিয়নের তেলিভিটা গ্রামের ৭ জনের ভারতীয় ধরণ ডেল্টা শনাক্ত হয়।

এবিষয়ে গোপালগঞ্জের সিভিল সার্জন ডাঃ সুজাত আহমেদ জানান, তেলিভিটা গ্রামের ২৫২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ৫০ জনের করোনা পজেটিভ আসে। এর মধ্য থেকে ১১ জনের নমুনা জিনোম সিকোয়েন্সিং পরীক্ষার জন্য ঢাকার আইইডিসিআর-এ পাঠানো হয়। সেখান থেকে ৭ জনের নমুনায় ভারতীয় ডেল্টা ভেরিয়েন্ট শনাক্ত হয়। এই ৭ জনের বাড়ী সাতপাড়ের তেলিভিটা ও কালিভিটা গ্রামে।

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, আগে থেকেই সদরের বোলতলী, শাখপাড়, শাহাপুর ইউনিয়নে লকডাউন চলছে। তবে এ ঘটনার পর তেলিভিটা গ্রামে লকডাউন অনির্দিষ্টকালের জন্য বাড়ানো হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

দেশে আরো ১৭ জনের ভারতীয় ধরন শনাক্ত

আপডেট : ০১:৪১:৪৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ৫ জুন ২০২১
::নিজস্ব প্রতিবেদক::
দেশে আরো ১৭ জনের দেহে করোনার ভারতীয় ধরন ‌‘ডেল্টা’ শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে ঢাকার নবাবগঞ্জের ১০ জন এবং গোপালগঞ্জের তেলিভিটা গ্রামের ৭ জন।

নবাবগঞ্জ উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. শহিদুল ইসলাম জানান, গত মাসের ১৮ তারিখে তারা সবাই ট্রাকে করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে আশ্রয়ণ প্রকল্পের কাজের জন্য নবাবগঞ্জে এসেছিলেন। বিষয়টি জানতে পেরে ২৬ মে তাদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ঢাকার বক্ষব্যাধী হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়। এরপর গত বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দফায় পরীক্ষার ফলাফল পাওয়ার পর তাদের শরীরে করোনার ভারতীয় ধরন নিশ্চিত হয়।

তথ্য মতে, নবাবগঞ্জে শনাক্ত হওয়া সবাই শ্রমিক। তারা চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে নবাবগঞ্জে আশ্রয়ণ প্রকল্পের কাজে এসেছিলেন।

এদিকে, গোপালগঞ্জ সদরের বোলতলী ইউনিয়নের তেলিভিটা গ্রামের ৭ জনের ভারতীয় ধরণ ডেল্টা শনাক্ত হয়।

এবিষয়ে গোপালগঞ্জের সিভিল সার্জন ডাঃ সুজাত আহমেদ জানান, তেলিভিটা গ্রামের ২৫২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ৫০ জনের করোনা পজেটিভ আসে। এর মধ্য থেকে ১১ জনের নমুনা জিনোম সিকোয়েন্সিং পরীক্ষার জন্য ঢাকার আইইডিসিআর-এ পাঠানো হয়। সেখান থেকে ৭ জনের নমুনায় ভারতীয় ডেল্টা ভেরিয়েন্ট শনাক্ত হয়। এই ৭ জনের বাড়ী সাতপাড়ের তেলিভিটা ও কালিভিটা গ্রামে।

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, আগে থেকেই সদরের বোলতলী, শাখপাড়, শাহাপুর ইউনিয়নে লকডাউন চলছে। তবে এ ঘটনার পর তেলিভিটা গ্রামে লকডাউন অনির্দিষ্টকালের জন্য বাড়ানো হবে।