ঢাকা ০৬:০২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঈদ সামনে রেখে ব্যবসায়ীরা সুযোগ নিচ্ছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট : ০৭:২৪:৩০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৩
  • / 115
সরকার চিনির দাম তিন টাকা কমানোর ঘোষণা দিলেও বাজারে উল্টো দাম বেড়েছে। বিষয়টি বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশিকে আবহিত করা হলে তিনি বলেন, ‘ঈদ সামনে রেখে ব্যবসায়ীরা সুযোগ নিচ্ছেন। ট্যারিফ কমিশন থেকে ক্যালকুলেশন করে দেখা গেছে, প্রতি কেজি চিনিতে তিন টাকার বেশি দাম কমানো সম্ভব। সে হিসাবে দাম কমানো হয়েছিল।’

রোববার দুপুরে মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে আয়োজিত জুট প্রোডাক্টস বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিল গঠন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাণিজ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘আপনাদের কথাই ঠিক, চিনির দাম বেড়েছে। এ কথা আমি স্বীকার করছি। দেশের বৃহৎ বাজারে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্রভাবে অনেকে ব্যবসা করছেন। বিশাল এই বাজার নিয়ন্ত্রণ করা আসলে একটু কঠিন হয়ে পড়ে।’

‘যখনই এটা নিয়ে আলোচনা চলছিল, সেসময় চিনির দাম আবারও বেড়ে গেল। এখন ঈদ সামনে, ফলে চিনির চাহিদা অনেক বেড়েছে। যার কারণে দাম বেড়েছে। চিনির দাম বেড়েছে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। ’

তিনি বলেন, গত ১৫ দিনে বিশ্ব বাজারে চিনির দাম আরও ১০০ ডলার বেড়ে গেছে। দাম বেড়ে যাওয়া সেই চিনি দেশে আসতে আরও এক মাস সময় লাগবে। কিন্তু আপনারা জানেন- ব্যবসায়ীরাতো সুযোগ নিয়েই থাকে। তারা আগে থেকেই সুযোগটা নেয়।

মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করছি। এতো বিশাল মার্কেট ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জায়গায় ছড়ায় ছিটিয়ে আছে। এটি আসলে নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন। আমরা চেষ্টা করছি নিয়ন্ত্রণ রাখার জন্য, যত দূর পাড়া যায় আরকি। ’

মুরগির বাজারের অস্থিরতার বিষয়ে টিপু মুনশি বলেন, বিষয়টি আমাদের দেখার বিষয় না। এটি প্রাণি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের বিষয়। মুরগি নিয়ে যখন প্রশ্ন করেন, আমাকে উত্তর দিতে হলে জানতে হবে মুরগির উৎপাদন খরচ কতো। সেটা তো আমি জানি না। তবে মাঝে মাঝে আমি ধমক দেই। এটা ওটা করবো, যাতে দামটা মাত্রাতিরিক্ত না হয় সেই চেষ্টা করা।

তিনি বলেন, আমাদের ভোক্তা অধিকার একটি আদর্শ বা ন্যায়সঙ্গত দাম ধরে দৌড়ে বেড়াচ্ছে। এর ফলে কখনো কখনো ২০ থেকে ৩০ টাকা কমে আসছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ঈদ সামনে রেখে ব্যবসায়ীরা সুযোগ নিচ্ছেন

আপডেট : ০৭:২৪:৩০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৩
সরকার চিনির দাম তিন টাকা কমানোর ঘোষণা দিলেও বাজারে উল্টো দাম বেড়েছে। বিষয়টি বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশিকে আবহিত করা হলে তিনি বলেন, ‘ঈদ সামনে রেখে ব্যবসায়ীরা সুযোগ নিচ্ছেন। ট্যারিফ কমিশন থেকে ক্যালকুলেশন করে দেখা গেছে, প্রতি কেজি চিনিতে তিন টাকার বেশি দাম কমানো সম্ভব। সে হিসাবে দাম কমানো হয়েছিল।’

রোববার দুপুরে মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে আয়োজিত জুট প্রোডাক্টস বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিল গঠন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাণিজ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘আপনাদের কথাই ঠিক, চিনির দাম বেড়েছে। এ কথা আমি স্বীকার করছি। দেশের বৃহৎ বাজারে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্রভাবে অনেকে ব্যবসা করছেন। বিশাল এই বাজার নিয়ন্ত্রণ করা আসলে একটু কঠিন হয়ে পড়ে।’

‘যখনই এটা নিয়ে আলোচনা চলছিল, সেসময় চিনির দাম আবারও বেড়ে গেল। এখন ঈদ সামনে, ফলে চিনির চাহিদা অনেক বেড়েছে। যার কারণে দাম বেড়েছে। চিনির দাম বেড়েছে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। ’

তিনি বলেন, গত ১৫ দিনে বিশ্ব বাজারে চিনির দাম আরও ১০০ ডলার বেড়ে গেছে। দাম বেড়ে যাওয়া সেই চিনি দেশে আসতে আরও এক মাস সময় লাগবে। কিন্তু আপনারা জানেন- ব্যবসায়ীরাতো সুযোগ নিয়েই থাকে। তারা আগে থেকেই সুযোগটা নেয়।

মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করছি। এতো বিশাল মার্কেট ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জায়গায় ছড়ায় ছিটিয়ে আছে। এটি আসলে নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন। আমরা চেষ্টা করছি নিয়ন্ত্রণ রাখার জন্য, যত দূর পাড়া যায় আরকি। ’

মুরগির বাজারের অস্থিরতার বিষয়ে টিপু মুনশি বলেন, বিষয়টি আমাদের দেখার বিষয় না। এটি প্রাণি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের বিষয়। মুরগি নিয়ে যখন প্রশ্ন করেন, আমাকে উত্তর দিতে হলে জানতে হবে মুরগির উৎপাদন খরচ কতো। সেটা তো আমি জানি না। তবে মাঝে মাঝে আমি ধমক দেই। এটা ওটা করবো, যাতে দামটা মাত্রাতিরিক্ত না হয় সেই চেষ্টা করা।

তিনি বলেন, আমাদের ভোক্তা অধিকার একটি আদর্শ বা ন্যায়সঙ্গত দাম ধরে দৌড়ে বেড়াচ্ছে। এর ফলে কখনো কখনো ২০ থেকে ৩০ টাকা কমে আসছে।