ঢাকা ০৬:২০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যুক্তরাজ্যের কাছে টিকা চাইল বাংলাদেশ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ০১:৫৫:৩৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২২ মে ২০২১
  • / 166

সংগৃহীত।

::যুগের কন্ঠ ডেস্ক::
দেশে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ডোজ টিকার সংকট দেখা দেওয়ায় এবার যুক্তরাজ্যের কাছে টিকা চেয়েছে বাংলাদেশ।

শনিবার যুক্তরাজ্যের টেলিভিশন চ্যানেল আইটিভিতে এক সাক্ষাৎকারে টিকা চাওয়ার বিষয়ে কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

ড. মোমেন বলেন, দ্বিতীয় ডোজের জন্য অ্যাস্ট্রাজেনেকার মাত্র ১৬ লাখ টিকা প্রয়োজন। আমরা এ টিকা সহায়তার জন্য যুক্তরাজ্য সরকারকে অনুরোধ করেছি। যুক্তরাজ্য চাইলে আমাদের এ টিকা দিয়ে সহায়তা করতে পারে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ভারত ভয়ংকর সংকটময় মুহূর্ত পার করছে। দেশটির করোনা পরিস্থিতি খুবই উদ্বেগজনক। আমরা এই পরিস্থিতি বুঝতে পারছি। ফলে তারা যে পরিমাণ টিকা সরবরাহের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, তা পূরণে ব্যর্থ হচ্ছে।

তবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা বিশ্বাস করি, যুক্তরাজ্য সরকার চেষ্টা করলে এই পরিমাণ টিকার ব্যবস্থা করতে পারবে। আমরা মনে করি, তাদের সেই সামর্থ্য আছে। যুক্তরাজ্য সরকারের প্রতি অনুরোধ, তারা যেন আন্তরিকতার সঙ্গে চেষ্টা করে। তাদের উচিত, কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোকে সাহায্য করা। তিনি বলেন, বাংলাদেশ যুক্তরাজ্যের ভালো বন্ধু। তাই যুক্তরাজ্যের উচিত এগিয়ে আসা।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

যুক্তরাজ্যের কাছে টিকা চাইল বাংলাদেশ

আপডেট : ০১:৫৫:৩৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২২ মে ২০২১
::যুগের কন্ঠ ডেস্ক::
দেশে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ডোজ টিকার সংকট দেখা দেওয়ায় এবার যুক্তরাজ্যের কাছে টিকা চেয়েছে বাংলাদেশ।

শনিবার যুক্তরাজ্যের টেলিভিশন চ্যানেল আইটিভিতে এক সাক্ষাৎকারে টিকা চাওয়ার বিষয়ে কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

ড. মোমেন বলেন, দ্বিতীয় ডোজের জন্য অ্যাস্ট্রাজেনেকার মাত্র ১৬ লাখ টিকা প্রয়োজন। আমরা এ টিকা সহায়তার জন্য যুক্তরাজ্য সরকারকে অনুরোধ করেছি। যুক্তরাজ্য চাইলে আমাদের এ টিকা দিয়ে সহায়তা করতে পারে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ভারত ভয়ংকর সংকটময় মুহূর্ত পার করছে। দেশটির করোনা পরিস্থিতি খুবই উদ্বেগজনক। আমরা এই পরিস্থিতি বুঝতে পারছি। ফলে তারা যে পরিমাণ টিকা সরবরাহের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, তা পূরণে ব্যর্থ হচ্ছে।

তবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা বিশ্বাস করি, যুক্তরাজ্য সরকার চেষ্টা করলে এই পরিমাণ টিকার ব্যবস্থা করতে পারবে। আমরা মনে করি, তাদের সেই সামর্থ্য আছে। যুক্তরাজ্য সরকারের প্রতি অনুরোধ, তারা যেন আন্তরিকতার সঙ্গে চেষ্টা করে। তাদের উচিত, কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোকে সাহায্য করা। তিনি বলেন, বাংলাদেশ যুক্তরাজ্যের ভালো বন্ধু। তাই যুক্তরাজ্যের উচিত এগিয়ে আসা।