ঢাকা ০১:২৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

রাজধানীতে স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া করে স্বামীর আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট : ০৪:৩২:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৪ জানুয়ারী ২০২৩
  • / 22
রাজধানীর রামপুরা টিভি সেন্টারের পাশে গলায় ফাঁস দিয়ে এক ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছেন। মৃত ব্যক্তির নাম মনোয়ার আদিব (৩০)।

শুক্রবার (১৩ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ২টার দিকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মনোয়ারের বাড়ি বরিশালের বাকেরগঞ্জ থানার দারিয়াল গ্রামে। পেশায় তিনি একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। স্ত্রীকে নিয়ে রামপুরাতেই থাকতেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, গতকাল রাতে স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া হয়ে মনোয়ারের। পরে স্ত্রীকে রুম থেকে বের করে ভেতর থেকে দরজা লাগিয়ে দেন তিনি। পরে ডাকাডাকি করলে দরজা না খোলায় স্ত্রীর ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে দরজা ভেঙে দেখে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলছে। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেলে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া বলেন, মরদেহ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মর্গে রাখা হয়েছে। এ ঘটনা রামপুরা থানাকে জানানো হয়েছে। বিষয়টি তারা তদন্ত করছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

রাজধানীতে স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া করে স্বামীর আত্মহত্যা

আপডেট : ০৪:৩২:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৪ জানুয়ারী ২০২৩
রাজধানীর রামপুরা টিভি সেন্টারের পাশে গলায় ফাঁস দিয়ে এক ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছেন। মৃত ব্যক্তির নাম মনোয়ার আদিব (৩০)।

শুক্রবার (১৩ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ২টার দিকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মনোয়ারের বাড়ি বরিশালের বাকেরগঞ্জ থানার দারিয়াল গ্রামে। পেশায় তিনি একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। স্ত্রীকে নিয়ে রামপুরাতেই থাকতেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, গতকাল রাতে স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া হয়ে মনোয়ারের। পরে স্ত্রীকে রুম থেকে বের করে ভেতর থেকে দরজা লাগিয়ে দেন তিনি। পরে ডাকাডাকি করলে দরজা না খোলায় স্ত্রীর ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে দরজা ভেঙে দেখে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলছে। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেলে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া বলেন, মরদেহ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মর্গে রাখা হয়েছে। এ ঘটনা রামপুরা থানাকে জানানো হয়েছে। বিষয়টি তারা তদন্ত করছে।