ঢাকা ১১:০৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কমলাপুর স্টেশন ম্যানেজারের চুরি হওয়া মোবাইল উদ্ধার, আটক ৩

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট : ০৫:৫৮:১৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২
  • / 60
গত রমজান মাসের শেষ দিকে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশন ম্যানেজার মাসুদ সারওয়ারের খোয়া যাওয়া মোবাইল-টাকাসহ তিনজনকে বুধবার গ্রেপ্তার করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) গুলশান বিভাগ।

এসময় মোবাইল চোর আজিজ মোহাম্মদসহ (৪৫) চোর চক্রের আরও দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরা হলেন রনি হাওলাদার (৪০) ও মো. জাকির হোসেন (২৫)।

এর আগে গত ২৩ মার্চ সকালে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশন ম্যানেজার মো. মাসুদ সারওয়ারের অফিস কক্ষে সংবাদ সম্মেলনের সময় তার ২টি মোবাইল ফোন, একটি ওয়ালেটের ভেতর প্রয়োজনীয় কাগজপত্র এবং নগদ ৪৫ হাজার টাকা খোয়া যায়।

ডিবি গুলশান বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মশিউর রহমান জানান, ওই ঘটনার ছায়া তদন্তের ধারাবাহিকতায় ১৭টি মোবাইলসহ তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ডিবি জানায়, গ্রেপ্তার আজিজ একজন কোরআনে হাফেজ। তিনি দীর্ঘ ৩৩ বছর সৌদি আরবের বিভিন্ন নাম করা মসজিদের ইমাম হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ইমামতির পাশাপাশি গাড়ি চালাতেন। এরপর সৌদি আরবে গাড়ি চুরি করা শুরু করেন আজিজ। গাড়ি চুরির মামলায় তিন বছর সাজাও হয় তার।

সাজা ভোগ করে ২০১৮ সালে বাংলাদেশে এসে কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অবস্থান নিয়ে একটি মাদরাসায় শিক্ষকতা শুরু করেন, কিছুদিন পর মাদরাসায় মোবাইল চুরি করে ধরা পড়লে তার চাকরি চলে যায়। এরপর থেকে পুরোদমে মোবাইল চুরি শুরু করে একটি চক্র গড়ে তোলেন আজিজ। সুযোগ বুঝে বিভিন্ন স্থানে মোবাইল চুরি করতেন তারা।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

কমলাপুর স্টেশন ম্যানেজারের চুরি হওয়া মোবাইল উদ্ধার, আটক ৩

আপডেট : ০৫:৫৮:১৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২
গত রমজান মাসের শেষ দিকে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশন ম্যানেজার মাসুদ সারওয়ারের খোয়া যাওয়া মোবাইল-টাকাসহ তিনজনকে বুধবার গ্রেপ্তার করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) গুলশান বিভাগ।

এসময় মোবাইল চোর আজিজ মোহাম্মদসহ (৪৫) চোর চক্রের আরও দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরা হলেন রনি হাওলাদার (৪০) ও মো. জাকির হোসেন (২৫)।

এর আগে গত ২৩ মার্চ সকালে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশন ম্যানেজার মো. মাসুদ সারওয়ারের অফিস কক্ষে সংবাদ সম্মেলনের সময় তার ২টি মোবাইল ফোন, একটি ওয়ালেটের ভেতর প্রয়োজনীয় কাগজপত্র এবং নগদ ৪৫ হাজার টাকা খোয়া যায়।

ডিবি গুলশান বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মশিউর রহমান জানান, ওই ঘটনার ছায়া তদন্তের ধারাবাহিকতায় ১৭টি মোবাইলসহ তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ডিবি জানায়, গ্রেপ্তার আজিজ একজন কোরআনে হাফেজ। তিনি দীর্ঘ ৩৩ বছর সৌদি আরবের বিভিন্ন নাম করা মসজিদের ইমাম হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ইমামতির পাশাপাশি গাড়ি চালাতেন। এরপর সৌদি আরবে গাড়ি চুরি করা শুরু করেন আজিজ। গাড়ি চুরির মামলায় তিন বছর সাজাও হয় তার।

সাজা ভোগ করে ২০১৮ সালে বাংলাদেশে এসে কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অবস্থান নিয়ে একটি মাদরাসায় শিক্ষকতা শুরু করেন, কিছুদিন পর মাদরাসায় মোবাইল চুরি করে ধরা পড়লে তার চাকরি চলে যায়। এরপর থেকে পুরোদমে মোবাইল চুরি শুরু করে একটি চক্র গড়ে তোলেন আজিজ। সুযোগ বুঝে বিভিন্ন স্থানে মোবাইল চুরি করতেন তারা।