ঢাকা ০৮:৪২ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অবকাঠামো নির্মাণে লাগবে ইউনিয়ন পরিষদের অনুমতি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ১২:৫৮:৩৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • / 123
গ্রামাঞ্চলে যে কোনো অবকাঠামো নির্মাণে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে অনুমতি দেয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

বুধবার কার্যকর ও জবাবদিহিমূলক স্থানীয় সরকার- ইএএলজি প্রকল্পের আওতায় করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধকল্পে সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা জানান তিনি।

তাজুল ইসলাম বলেন, গ্রামাঞ্চলে রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ-কালভার্টসহ সকল অবকাঠামো নির্মাণ অবশ্যই পরিকল্পিতভাবে করতে হবে। শুধু শহরে নয় প্রত্যন্ত গ্রামকেও পরিকল্পিতভাবে গড়ে তুলতে হবে। গ্রামগুলো এখনো অক্ষত রয়েছে সেগুলো ক্ষত-বিক্ষত করা যাবে না। এজন্য গ্রামাঞ্চলে যে কোনো অবকাঠামো নির্মাণে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে অনুমতি দেয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, এ দায়িত্ব পালনে জনপ্রতিনিধিদেরকে দায়িত্বশীল হতে হবে। ইউনিয়ন পরিষদ এসে মানুষ যেন হয়রানির শিকার না হন এবং আবেদন প্রক্রিয়া দ্রুত সময়ে নিষ্পত্তি হয় সে বিষয়টি নিশ্চিত করা হবে।

এসময় কাঙ্ক্ষিত সেবা দোর গোড়ায় পৌঁছে দিয়ে মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস অর্জনের তাগিদ দেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহকে মানুষের কাছে বিশ্বাসযোগ্য করে গড়ে তুলতে হবে। তাদের বুঝাতে হবে এই প্রতিষ্ঠানগুলো তাদেরকে সেবা দেয়ার জন্যই প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। মানুষ যখন জানবে সমাজ হতে অন্যায়-অবিচার নির্মূল করে ন্যায়ভিত্তিক সমাজ ও সুশাসন প্রতিষ্ঠায় জনপ্রতিনিধিরা কাজ করছে তখনই আস্থা ও বিশ্বাস জন্মাবে।

তিনি আরও বলেন, স্থানীয় সরকার ব্যবস্থাপনা সারাবিশ্বে গবেষণার মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে যে স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোকে যত বেশি শক্তিশালী করা যাবে ততো বেশি উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে। তাই ইউনিয়ন ও উপজেলা পরিষদের সক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে। আর এ জন্য দরকার জনগণের অংশগ্রহণ।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

অবকাঠামো নির্মাণে লাগবে ইউনিয়ন পরিষদের অনুমতি

আপডেট : ১২:৫৮:৩৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ সেপ্টেম্বর ২০২১
গ্রামাঞ্চলে যে কোনো অবকাঠামো নির্মাণে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে অনুমতি দেয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

বুধবার কার্যকর ও জবাবদিহিমূলক স্থানীয় সরকার- ইএএলজি প্রকল্পের আওতায় করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধকল্পে সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা জানান তিনি।

তাজুল ইসলাম বলেন, গ্রামাঞ্চলে রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ-কালভার্টসহ সকল অবকাঠামো নির্মাণ অবশ্যই পরিকল্পিতভাবে করতে হবে। শুধু শহরে নয় প্রত্যন্ত গ্রামকেও পরিকল্পিতভাবে গড়ে তুলতে হবে। গ্রামগুলো এখনো অক্ষত রয়েছে সেগুলো ক্ষত-বিক্ষত করা যাবে না। এজন্য গ্রামাঞ্চলে যে কোনো অবকাঠামো নির্মাণে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে অনুমতি দেয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, এ দায়িত্ব পালনে জনপ্রতিনিধিদেরকে দায়িত্বশীল হতে হবে। ইউনিয়ন পরিষদ এসে মানুষ যেন হয়রানির শিকার না হন এবং আবেদন প্রক্রিয়া দ্রুত সময়ে নিষ্পত্তি হয় সে বিষয়টি নিশ্চিত করা হবে।

এসময় কাঙ্ক্ষিত সেবা দোর গোড়ায় পৌঁছে দিয়ে মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস অর্জনের তাগিদ দেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহকে মানুষের কাছে বিশ্বাসযোগ্য করে গড়ে তুলতে হবে। তাদের বুঝাতে হবে এই প্রতিষ্ঠানগুলো তাদেরকে সেবা দেয়ার জন্যই প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। মানুষ যখন জানবে সমাজ হতে অন্যায়-অবিচার নির্মূল করে ন্যায়ভিত্তিক সমাজ ও সুশাসন প্রতিষ্ঠায় জনপ্রতিনিধিরা কাজ করছে তখনই আস্থা ও বিশ্বাস জন্মাবে।

তিনি আরও বলেন, স্থানীয় সরকার ব্যবস্থাপনা সারাবিশ্বে গবেষণার মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে যে স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোকে যত বেশি শক্তিশালী করা যাবে ততো বেশি উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে। তাই ইউনিয়ন ও উপজেলা পরিষদের সক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে। আর এ জন্য দরকার জনগণের অংশগ্রহণ।