ঢাকা ০৩:১২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার চূড়ান্ত তারিখ ঘোষণা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ০১:০১:১৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • / 118

শিক্ষামন্ত্রী

করোনার কারণে প্রায় দুই বছর বন্ধ থাকা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার চূড়ান্ত তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে।

রোববার বিকেলে আন্তঃমন্ত্রণালয়ে উচ্চ পর্যায়ে বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বৈঠকে শেষে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, চলতি মাসের ১২ তারিখে থেকে স্কুল-কলেজ খুলে দেয়া হবে। এদিন থেকেই শ্রেণিকক্ষে পাঠাদান শুরু হবে।

তিনি বলেন, করোনা সংক্রমণের হার দ্রুত কমছে। একইসাথে টিকা কার্যক্রম যে গতিতে চলছে সে বিবেচনায় প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ১২ সেপ্টেম্বর থেকে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু করব।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এসএসসি, এইচএসসি ও ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা প্রতিদিন স্কুলে আসবে। ক্লাস ওয়ান, দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা সপ্তাহে একদিন আসবে।

তিনি বলেন, ছাত্র-শিক্ষক সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শ্রেণিকক্ষে উপস্থিত হতে হবে। মাস্ক পরা ছাড়া কেউ শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করতে পারবে না।

দীপু মনি বলেন, ১৭ মাস যেহেতু শিক্ষার্থীরা ক্লাসে ছিল না, তাই চার ঘণ্টা, ৫ ঘণ্টা করে ক্লাস নেয়া হবে। তারপর ধীরে ধীরে ক্লাসের সময়সূচি স্বাভাবিক করা হবে। পরিস্থিতি বিবেচনা করে ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানো হবে।

তিনি বলেন, কারো বাড়িতে কারো মধ্যে যদি করোনা উপসর্গ থাকে তার ক্লাসে আসার দরকার নেই। আর পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হাওয়া পর্যন্ত অ্যাসেম্বলি হবে না।

এর আগে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে রোববার আন্তঃমন্ত্রণালয়ে উচ্চ পর্যায়ে বৈঠক বসে।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির সভাপতিত্বে কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী তাজুল ইসলাম, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেলসহ মন্ত্রণালয়ের সচিব ও বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধিরা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার চূড়ান্ত তারিখ ঘোষণা

আপডেট : ০১:০১:১৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
করোনার কারণে প্রায় দুই বছর বন্ধ থাকা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার চূড়ান্ত তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে।

রোববার বিকেলে আন্তঃমন্ত্রণালয়ে উচ্চ পর্যায়ে বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বৈঠকে শেষে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, চলতি মাসের ১২ তারিখে থেকে স্কুল-কলেজ খুলে দেয়া হবে। এদিন থেকেই শ্রেণিকক্ষে পাঠাদান শুরু হবে।

তিনি বলেন, করোনা সংক্রমণের হার দ্রুত কমছে। একইসাথে টিকা কার্যক্রম যে গতিতে চলছে সে বিবেচনায় প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ১২ সেপ্টেম্বর থেকে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু করব।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এসএসসি, এইচএসসি ও ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা প্রতিদিন স্কুলে আসবে। ক্লাস ওয়ান, দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা সপ্তাহে একদিন আসবে।

তিনি বলেন, ছাত্র-শিক্ষক সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শ্রেণিকক্ষে উপস্থিত হতে হবে। মাস্ক পরা ছাড়া কেউ শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করতে পারবে না।

দীপু মনি বলেন, ১৭ মাস যেহেতু শিক্ষার্থীরা ক্লাসে ছিল না, তাই চার ঘণ্টা, ৫ ঘণ্টা করে ক্লাস নেয়া হবে। তারপর ধীরে ধীরে ক্লাসের সময়সূচি স্বাভাবিক করা হবে। পরিস্থিতি বিবেচনা করে ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানো হবে।

তিনি বলেন, কারো বাড়িতে কারো মধ্যে যদি করোনা উপসর্গ থাকে তার ক্লাসে আসার দরকার নেই। আর পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হাওয়া পর্যন্ত অ্যাসেম্বলি হবে না।

এর আগে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে রোববার আন্তঃমন্ত্রণালয়ে উচ্চ পর্যায়ে বৈঠক বসে।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির সভাপতিত্বে কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী তাজুল ইসলাম, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেলসহ মন্ত্রণালয়ের সচিব ও বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধিরা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।