ঢাকা ০২:৩৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অস্ট্রেলিয়ার ক্ষেত্রে না, নিউজিল্যান্ডের বেলায় হ্যাঁ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ১১:৪৪:৪০ পূর্বাহ্ন, সোমাবার, ৩০ অগাস্ট ২০২১
  • / 128
দুপুর ১২টা, তখনও মিরপুর শেরে বাংলায় নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল। সংবাদকর্মীরা বিস্ময় চোখে দেখলো সেন্ট্রার উইকেটে ব্যাটিং-বোলিং করছে ব্ল্যাকক্যাপস। বিচিত্র এই দৃশ্য দেখে জোরালো হলো প্রশ্ন, ঠিক কবে এমনটা হয়েছে সফরকারী দলের ক্ষেত্রে? তা গবেষণার বিষয়।

তবে কেন নিউজিল্যান্ডকে এই সুবিধা দিচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড? দ্বিতীয় সারির দল বলেই কি বাড়তি আতিথেয়তা পাচ্ছে কিউই দল? অস্ট্রেলিয়ার ক্ষেত্রে না, নিউজিল্যান্ডের বেলায় হ্যাঁ। বিসিবি’র পক্ষপাত প্রকাশ্য, যা আলোচনার জন্ম দিয়েছে মিরপুরে।

হীরক রাজার দেশে যা খুশি তাই করার সুবিধা পাচ্ছ ল্যাথাম-নিকোলসরা। নাকি এটা উদ্দেশ্যমূলক, এই নিউজিল্যান্ড খাতির পেয়েও লড়াইয়ে টিকতে পারবে না বলে। ম্যাচ শুরুর একদিন আগে, সেন্ট্রার উইকেটে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিং – বোলিং নানা কিছুর ইঙ্গিত দেয়।

একপক্ষ বলছে, যে উইকেটে অনুশীলন করেছে নিউজিল্যান্ড তা ছিলো ফাস্ট। কিন্তু যে উইকেটে খেলা হবে সেটা হবে স্লো। তাতে বিভ্রান্ত হতে পারে কিউই দল। এতে বরং ফায়দা লুটবে স্বাগতিক বাংলাদেশ।

তবে উইকেটে কি থাকছে রহস্য, সেটার অবকাশ নেই। অস্ট্রেলিয়ার উইকেটেই হবে নিউজিল্যান্ডের ওয়ার্ম আপ। ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান তারই আভাস দিয়েছেন। তবুও প্রশ্ন থাকে, তবে কেন নিউজিল্যান্ড সেন্ট্রাল উইকেটে?

সুবিধা পেয়ে কি ভয়ংকর রূপ নেবে নিউজিল্যান্ড, খাল কেটে কি কুমিড় আনতে যাচ্ছে বাংলাদেশ? ঘুরতে থাকুক প্রশ্ন, বাড়ুক জল্পনা-কল্পনা। সহসাই যে বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না, এটা তো নিশ্চিত করেই বলা যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

অস্ট্রেলিয়ার ক্ষেত্রে না, নিউজিল্যান্ডের বেলায় হ্যাঁ

আপডেট : ১১:৪৪:৪০ পূর্বাহ্ন, সোমাবার, ৩০ অগাস্ট ২০২১
দুপুর ১২টা, তখনও মিরপুর শেরে বাংলায় নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল। সংবাদকর্মীরা বিস্ময় চোখে দেখলো সেন্ট্রার উইকেটে ব্যাটিং-বোলিং করছে ব্ল্যাকক্যাপস। বিচিত্র এই দৃশ্য দেখে জোরালো হলো প্রশ্ন, ঠিক কবে এমনটা হয়েছে সফরকারী দলের ক্ষেত্রে? তা গবেষণার বিষয়।

তবে কেন নিউজিল্যান্ডকে এই সুবিধা দিচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড? দ্বিতীয় সারির দল বলেই কি বাড়তি আতিথেয়তা পাচ্ছে কিউই দল? অস্ট্রেলিয়ার ক্ষেত্রে না, নিউজিল্যান্ডের বেলায় হ্যাঁ। বিসিবি’র পক্ষপাত প্রকাশ্য, যা আলোচনার জন্ম দিয়েছে মিরপুরে।

হীরক রাজার দেশে যা খুশি তাই করার সুবিধা পাচ্ছ ল্যাথাম-নিকোলসরা। নাকি এটা উদ্দেশ্যমূলক, এই নিউজিল্যান্ড খাতির পেয়েও লড়াইয়ে টিকতে পারবে না বলে। ম্যাচ শুরুর একদিন আগে, সেন্ট্রার উইকেটে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিং – বোলিং নানা কিছুর ইঙ্গিত দেয়।

একপক্ষ বলছে, যে উইকেটে অনুশীলন করেছে নিউজিল্যান্ড তা ছিলো ফাস্ট। কিন্তু যে উইকেটে খেলা হবে সেটা হবে স্লো। তাতে বিভ্রান্ত হতে পারে কিউই দল। এতে বরং ফায়দা লুটবে স্বাগতিক বাংলাদেশ।

তবে উইকেটে কি থাকছে রহস্য, সেটার অবকাশ নেই। অস্ট্রেলিয়ার উইকেটেই হবে নিউজিল্যান্ডের ওয়ার্ম আপ। ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান তারই আভাস দিয়েছেন। তবুও প্রশ্ন থাকে, তবে কেন নিউজিল্যান্ড সেন্ট্রাল উইকেটে?

সুবিধা পেয়ে কি ভয়ংকর রূপ নেবে নিউজিল্যান্ড, খাল কেটে কি কুমিড় আনতে যাচ্ছে বাংলাদেশ? ঘুরতে থাকুক প্রশ্ন, বাড়ুক জল্পনা-কল্পনা। সহসাই যে বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না, এটা তো নিশ্চিত করেই বলা যায়।