ঢাকা ০৩:২৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হাইকোর্টে ৪ ভার্চ্যুয়াল বেঞ্চ গঠন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ১১:৫২:৪২ পূর্বাহ্ন, সোমাবার, ১২ জুলাই ২০২১
  • / 334

ছবি: সংগৃহীত

::অনলাইন ডেস্ক::

অবকাশকালীন সময়ে বিচারকাজ পরিচালনার জন্য ৪ ভার্চ্যুয়াল বেঞ্চ গঠন করে দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি। আগামী ১৮ জুলাই থেকে ৩১ জুলাই পর‌্যন্ত এসব বেঞ্চ ভার্চ্যুয়ালি বিচারকাজ পরিচালনা করবেন।

প্রধান বিচারপতি অবকাশকালীন সময়ে বিচারকাজ পরিচালনার জন্য ৪ ভার্চ্যুয়াল বেঞ্চ গঠন করে দিয়েছেন। আগামী ১৮ জুলাই থেকে ৩১ জুলাই পর‌্যন্ত এসব বেঞ্চ ভার্চ্যুয়ালি বিচারকাজ পরিচালনা করবেন।

সোমবার প্রধান বিচারপতি এ আদেশ দেন। প্রধান বিচারপতির নির্দেশনায় বলা হয়, আমি এতদ্বারা নির্দেশ করিতেছি যে, দেশব্যাপী করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধকল্পে শারীরিক উপস্থিতি ব্যতিরকে আগামী ১৮ জুলাই রোববার থেকে ৩১ জুলাই শনিবার পর‌্যন্ত ভার্চ্যুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে হাইকোর্ট বিভাগের বিচার কার‌্য পরিচালনার জন্য অবকাশকালীন বেঞ্চ গঠন করা হলো।

বেঞ্চগুলো হলো-অতি জরুরি বিষয়ে রিট এবং দেওয়ানি মোশন ও আবেদন গ্রহণ করবেন বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম। ফৌজদারি মোশন ও আবেদন গ্রহণ করবেন বিচারপতি জে বি এম হাসান। একই বিষয়ে আবেদন গ্রহণ করবেন বিচারপতি মো.আশরাফুল কামাল। কোম্পানি ও অ্যাডমিরালিটি সংক্রান্ত আবেদন গ্রহণ করবেন বিচারপতি কে এম কামরুল কাদের।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

হাইকোর্টে ৪ ভার্চ্যুয়াল বেঞ্চ গঠন

আপডেট : ১১:৫২:৪২ পূর্বাহ্ন, সোমাবার, ১২ জুলাই ২০২১
::অনলাইন ডেস্ক::

অবকাশকালীন সময়ে বিচারকাজ পরিচালনার জন্য ৪ ভার্চ্যুয়াল বেঞ্চ গঠন করে দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি। আগামী ১৮ জুলাই থেকে ৩১ জুলাই পর‌্যন্ত এসব বেঞ্চ ভার্চ্যুয়ালি বিচারকাজ পরিচালনা করবেন।

প্রধান বিচারপতি অবকাশকালীন সময়ে বিচারকাজ পরিচালনার জন্য ৪ ভার্চ্যুয়াল বেঞ্চ গঠন করে দিয়েছেন। আগামী ১৮ জুলাই থেকে ৩১ জুলাই পর‌্যন্ত এসব বেঞ্চ ভার্চ্যুয়ালি বিচারকাজ পরিচালনা করবেন।

সোমবার প্রধান বিচারপতি এ আদেশ দেন। প্রধান বিচারপতির নির্দেশনায় বলা হয়, আমি এতদ্বারা নির্দেশ করিতেছি যে, দেশব্যাপী করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধকল্পে শারীরিক উপস্থিতি ব্যতিরকে আগামী ১৮ জুলাই রোববার থেকে ৩১ জুলাই শনিবার পর‌্যন্ত ভার্চ্যুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে হাইকোর্ট বিভাগের বিচার কার‌্য পরিচালনার জন্য অবকাশকালীন বেঞ্চ গঠন করা হলো।

বেঞ্চগুলো হলো-অতি জরুরি বিষয়ে রিট এবং দেওয়ানি মোশন ও আবেদন গ্রহণ করবেন বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম। ফৌজদারি মোশন ও আবেদন গ্রহণ করবেন বিচারপতি জে বি এম হাসান। একই বিষয়ে আবেদন গ্রহণ করবেন বিচারপতি মো.আশরাফুল কামাল। কোম্পানি ও অ্যাডমিরালিটি সংক্রান্ত আবেদন গ্রহণ করবেন বিচারপতি কে এম কামরুল কাদের।