ঢাকা ০২:০৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অবৈধ তহবিল মামলায় গ্রেপ্তার হতে পারেন ইমরান খান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট : ০৬:৫৭:২৭ অপরাহ্ন, সোমাবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • / 156
অবৈধ তহবিল মামলায় গ্রেপ্তার হতে পারেন পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) চেয়ারম্যান ও দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা (এফআইএ) বরাত দিয়ে সোমবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম এআরওয়াই নিউজ।

এআরওয়াই-এর প্রতিবেদনে বলা হয়, গ্রেপ্তার অভিযান পরিচালনা করতে ইতোমধ্যে চার সদস্যের একটি টিমও গঠন করেছে এফআইএ। এছাড়াও পাঞ্জাব পুলিশের সহায়তা নেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। এছাড়া এফআইএ টিমের সারসংক্ষেপ সংস্থার মহাপরিচালক বরাবর পাঠানো হয়েছে। মহাপরিচালক অনুমোদন দিলেই অভিযান শুরু হবে।

গত ৬ অক্টোবর ইসলামাবাদে এফআইএর বাণিজ্যিক ব্যাংক সার্কেল ইমরান খান এবং অন্যান্য পিটিআই নেতাদের বিরুদ্ধে একটি এফআইআর দায়ের করে। এই এফআইআর মামলা হিসাবে নথিভুক্ত হওয়ার পর ইসলামাবাদ আদালতের কাছে জামিন চেয়েছিলেন ইমরান খান।

এফআইআরে বলা হয়েছে, পিটিআই পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশনের কাছে আরিফ মাসুদ নাকভির নামে একটি হলফনামা পেশ করেছে। যেখানে বলা হয়েছে, উটন ক্রিকেট লিমিটেডের (ডব্লিউসিএল) অ্যাকাউন্টে সংগৃহীত সব অর্থ পিটিআইয়ের অ্যাকাউন্টে জমা দেয়া হয়েছে। তবে এই হলফনামা জাল বলে প্রমাণিত হয়েছে। এছাড়া ২০১৩ সালের মে মাসে ডব্লিউসিএল আরও অন্তত দুবার ভিন্ন দুটি অ্যাকাউন্টে লেনদেন করেছিল।

পরবর্তীতে পিটিআইয়ের চেয়ারম্যান ইমরান খান প্রতিরক্ষামূলক জামিনের জন্য আবেদন দাখিল করেন। এতে তিনি বলেন, তার পরিত্রাণ দরকার, যাতে তিনি আত্মসমর্পণ করতে পারেন এবং জামিনের আবেদন গ্রহণের এখতিয়ার রয়েছে এমন আদালতের কাছে যেতে পারেন।

মামলার শুনানির সময়, ইমরান খানের আইনজীবী সালমান সফদার আদালতকে বলেছিলেন যে এফআইএর একই মামলায় দায়ের করা আরও দুই ব্যক্তি জামিনের জন্য আদালতে গিয়েছিলেন। এই মামলায় ইমরান খান ছাড়াও পিটিআই নেতা সর্দার আজহার তারিক, তারিক শফি এবং ইউনিস আমির কিয়ানির নামও রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

অবৈধ তহবিল মামলায় গ্রেপ্তার হতে পারেন ইমরান খান

আপডেট : ০৬:৫৭:২৭ অপরাহ্ন, সোমাবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
অবৈধ তহবিল মামলায় গ্রেপ্তার হতে পারেন পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) চেয়ারম্যান ও দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা (এফআইএ) বরাত দিয়ে সোমবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম এআরওয়াই নিউজ।

এআরওয়াই-এর প্রতিবেদনে বলা হয়, গ্রেপ্তার অভিযান পরিচালনা করতে ইতোমধ্যে চার সদস্যের একটি টিমও গঠন করেছে এফআইএ। এছাড়াও পাঞ্জাব পুলিশের সহায়তা নেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। এছাড়া এফআইএ টিমের সারসংক্ষেপ সংস্থার মহাপরিচালক বরাবর পাঠানো হয়েছে। মহাপরিচালক অনুমোদন দিলেই অভিযান শুরু হবে।

গত ৬ অক্টোবর ইসলামাবাদে এফআইএর বাণিজ্যিক ব্যাংক সার্কেল ইমরান খান এবং অন্যান্য পিটিআই নেতাদের বিরুদ্ধে একটি এফআইআর দায়ের করে। এই এফআইআর মামলা হিসাবে নথিভুক্ত হওয়ার পর ইসলামাবাদ আদালতের কাছে জামিন চেয়েছিলেন ইমরান খান।

এফআইআরে বলা হয়েছে, পিটিআই পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশনের কাছে আরিফ মাসুদ নাকভির নামে একটি হলফনামা পেশ করেছে। যেখানে বলা হয়েছে, উটন ক্রিকেট লিমিটেডের (ডব্লিউসিএল) অ্যাকাউন্টে সংগৃহীত সব অর্থ পিটিআইয়ের অ্যাকাউন্টে জমা দেয়া হয়েছে। তবে এই হলফনামা জাল বলে প্রমাণিত হয়েছে। এছাড়া ২০১৩ সালের মে মাসে ডব্লিউসিএল আরও অন্তত দুবার ভিন্ন দুটি অ্যাকাউন্টে লেনদেন করেছিল।

পরবর্তীতে পিটিআইয়ের চেয়ারম্যান ইমরান খান প্রতিরক্ষামূলক জামিনের জন্য আবেদন দাখিল করেন। এতে তিনি বলেন, তার পরিত্রাণ দরকার, যাতে তিনি আত্মসমর্পণ করতে পারেন এবং জামিনের আবেদন গ্রহণের এখতিয়ার রয়েছে এমন আদালতের কাছে যেতে পারেন।

মামলার শুনানির সময়, ইমরান খানের আইনজীবী সালমান সফদার আদালতকে বলেছিলেন যে এফআইএর একই মামলায় দায়ের করা আরও দুই ব্যক্তি জামিনের জন্য আদালতে গিয়েছিলেন। এই মামলায় ইমরান খান ছাড়াও পিটিআই নেতা সর্দার আজহার তারিক, তারিক শফি এবং ইউনিস আমির কিয়ানির নামও রয়েছে।