ঢাকা ০৯:২০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নববর্ষ উপলক্ষে ৩ সহস্রাধিক কারাবন্দিকে মুক্তি দিচ্ছে মিয়ানমার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট : ০৬:৪৬:৫৯ অপরাহ্ন, সোমাবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৩
  • / 108
মিয়ানমারে বৌদ্ধ নববর্ষ উপলক্ষে দেশটির বিভিন্ন কারাগার থেকে তিন হাজার ১১৩ জন কারাবন্দিকে সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করেছে জান্তা সরকার। এর মধ্যে ৯৮ জন বিদেশি কারাবন্দিও আছেন। সোমবার মিয়ানমারের সেনা জান্তা এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানিয়েছে। সূত্র: রয়টার্স

তবে বিবৃতিতে সুনির্দিষ্ট করে বলা হয়নি, যাদের মুক্তি দেয়া হচ্ছে তাদের মধ্যে ২০২১ সালের অভ্যুত্থান বিরোধীতাকারীরা আছেন কিনা।

২০২১ সালে ক্ষমতাচ্যুত বেসামরিক সরকারের অন্যান্য জ্যেষ্ঠ সদস্যকেও সামরিক জান্তা আটক করে রেখেছে।

মিয়ানমারের আন্দোলনকারী গোষ্ঠী ‘অ্যাসিসট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনার্স’ এর ভাষ্য অনুযায়ী, জান্তা অন্তত ১৭৪৬০ জনকে আটক করে রেখেছে এবং ৩২৪০ জনকে হত্যা করেছে।

জান্তা মাঝে মাঝে বিভিন্ন উপলক্ষে বন্দিদের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করে। ২০২১ সালে নববর্ষ উপলক্ষে তারা ২৩ হাজার বন্দিকে মুক্তি দিয়েছিল, কিন্তু ২০২২ ও চলতি বছর সেই তুলনায় অল্প সংখ্যক বন্দিকে মুক্তি দিল তারা। ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে গণতন্ত্রপন্থি অং সান সুচি সরকারকে হটিয়ে ক্ষমতা দখল করে মিয়ানমার জান্তা। এরপর দেশটিতে বিক্ষোভ শুরু হয়। সেনাবাহিনীর দমন-পীড়নে তিন সহস্রাধিক মানুষ নিহত হয়েছে। হাজার হাজার মানুষকে কারাবন্দি করা হয়েছে।

মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট জেনারেল অং লিন দিউ বিবৃতিতে বলেন,মিয়ানমারের নববর্ষ উদযাপনের অংশ হিসেবে এই সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করা হয়েছে। মানবিক উদ্বেগ এবং মানুষদের খুশি করতেই এই উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ক্ষমাপ্রাপ্তরা পুনরায় অপরাধ করলে তাদের বাকি সাজাসহ অতিরিক্ত শাস্তি ভোগ করতে হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

নববর্ষ উপলক্ষে ৩ সহস্রাধিক কারাবন্দিকে মুক্তি দিচ্ছে মিয়ানমার

আপডেট : ০৬:৪৬:৫৯ অপরাহ্ন, সোমাবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৩
মিয়ানমারে বৌদ্ধ নববর্ষ উপলক্ষে দেশটির বিভিন্ন কারাগার থেকে তিন হাজার ১১৩ জন কারাবন্দিকে সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করেছে জান্তা সরকার। এর মধ্যে ৯৮ জন বিদেশি কারাবন্দিও আছেন। সোমবার মিয়ানমারের সেনা জান্তা এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানিয়েছে। সূত্র: রয়টার্স

তবে বিবৃতিতে সুনির্দিষ্ট করে বলা হয়নি, যাদের মুক্তি দেয়া হচ্ছে তাদের মধ্যে ২০২১ সালের অভ্যুত্থান বিরোধীতাকারীরা আছেন কিনা।

২০২১ সালে ক্ষমতাচ্যুত বেসামরিক সরকারের অন্যান্য জ্যেষ্ঠ সদস্যকেও সামরিক জান্তা আটক করে রেখেছে।

মিয়ানমারের আন্দোলনকারী গোষ্ঠী ‘অ্যাসিসট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনার্স’ এর ভাষ্য অনুযায়ী, জান্তা অন্তত ১৭৪৬০ জনকে আটক করে রেখেছে এবং ৩২৪০ জনকে হত্যা করেছে।

জান্তা মাঝে মাঝে বিভিন্ন উপলক্ষে বন্দিদের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করে। ২০২১ সালে নববর্ষ উপলক্ষে তারা ২৩ হাজার বন্দিকে মুক্তি দিয়েছিল, কিন্তু ২০২২ ও চলতি বছর সেই তুলনায় অল্প সংখ্যক বন্দিকে মুক্তি দিল তারা। ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে গণতন্ত্রপন্থি অং সান সুচি সরকারকে হটিয়ে ক্ষমতা দখল করে মিয়ানমার জান্তা। এরপর দেশটিতে বিক্ষোভ শুরু হয়। সেনাবাহিনীর দমন-পীড়নে তিন সহস্রাধিক মানুষ নিহত হয়েছে। হাজার হাজার মানুষকে কারাবন্দি করা হয়েছে।

মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট জেনারেল অং লিন দিউ বিবৃতিতে বলেন,মিয়ানমারের নববর্ষ উদযাপনের অংশ হিসেবে এই সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করা হয়েছে। মানবিক উদ্বেগ এবং মানুষদের খুশি করতেই এই উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ক্ষমাপ্রাপ্তরা পুনরায় অপরাধ করলে তাদের বাকি সাজাসহ অতিরিক্ত শাস্তি ভোগ করতে হবে।