ঢাকা ০৬:১৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাকিস্তানে ভূমিধসে চাপা পড়েছে যানবাহন, নিহত দুই

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট : ০৬:২০:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৩
  • / 119
পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ভূমিধসে কমপক্ষে দুইজন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় বেশ কিছু যানবাহন চাপা পড়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির কর্মকর্তারা।

মঙ্গলবার দেশটির খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের একটি গুরুত্বপূর্ণ সীমান্ত ক্রসিং এর কাছে এ ভূমিধসের ঘটনা ঘটে।

প্রদেশের জরুরি পরিষেবার মুখপাত্র বিলাল ফাইজি বলেছেন, ভোরের আগে প্রবল বৃষ্টি ও বজ্রপাতের পর তোরখাম সীমান্তের কাছে উদ্ধারকারী কর্মকর্তাদের একটি ভূমিধসের খবর দেয়া হয়। এ ভূমিধসে অসংখ্য যানবাহন ও কন্টেইনার চাপা পড়েছে। আমরা এখন পর্যন্ত দুজন ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করেছি।

এছাড়া আহত হয়েছে বেশ কয়েকজন। তাদের মধ্যে চারজনকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

খাইবার জেলার ডিসি আব্দুল নাসির খান বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানান, নিহত দুইজনই প্রতিবেশী আফগানিস্তানের নাগরিক। এ ঘটনায় হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ফাইজি আরও বলেন, ভূমিধসের নিচে চাপা পড়া লোকদের খুঁজে বের করতে কর্তৃপক্ষ অনুসন্ধান অভিযান শুরু করেছে। ধ্বংসস্তূপের নিচে বড় ট্রাকসহ ২০টির বেশি যানবাহন থাকতে পারে।

এটি ছোট কোনো ভূমিধস নয় যে আমরা দ্রুত ধ্বংসস্তূপ অপসারণ করে উদ্ধার করবো। ধ্বংসস্তূপ অপসারণের জন্য আমাদের এখানে ৬০ জনেরও বেশি উদ্ধারকর্মী কাজ করছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

পাকিস্তানে ভূমিধসে চাপা পড়েছে যানবাহন, নিহত দুই

আপডেট : ০৬:২০:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৩
পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ভূমিধসে কমপক্ষে দুইজন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় বেশ কিছু যানবাহন চাপা পড়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির কর্মকর্তারা।

মঙ্গলবার দেশটির খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের একটি গুরুত্বপূর্ণ সীমান্ত ক্রসিং এর কাছে এ ভূমিধসের ঘটনা ঘটে।

প্রদেশের জরুরি পরিষেবার মুখপাত্র বিলাল ফাইজি বলেছেন, ভোরের আগে প্রবল বৃষ্টি ও বজ্রপাতের পর তোরখাম সীমান্তের কাছে উদ্ধারকারী কর্মকর্তাদের একটি ভূমিধসের খবর দেয়া হয়। এ ভূমিধসে অসংখ্য যানবাহন ও কন্টেইনার চাপা পড়েছে। আমরা এখন পর্যন্ত দুজন ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করেছি।

এছাড়া আহত হয়েছে বেশ কয়েকজন। তাদের মধ্যে চারজনকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

খাইবার জেলার ডিসি আব্দুল নাসির খান বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানান, নিহত দুইজনই প্রতিবেশী আফগানিস্তানের নাগরিক। এ ঘটনায় হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ফাইজি আরও বলেন, ভূমিধসের নিচে চাপা পড়া লোকদের খুঁজে বের করতে কর্তৃপক্ষ অনুসন্ধান অভিযান শুরু করেছে। ধ্বংসস্তূপের নিচে বড় ট্রাকসহ ২০টির বেশি যানবাহন থাকতে পারে।

এটি ছোট কোনো ভূমিধস নয় যে আমরা দ্রুত ধ্বংসস্তূপ অপসারণ করে উদ্ধার করবো। ধ্বংসস্তূপ অপসারণের জন্য আমাদের এখানে ৬০ জনেরও বেশি উদ্ধারকর্মী কাজ করছে।